ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৯ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কখন, কীভাবে খাবেন গ্রিন টি?

লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ জুলাই ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০৯:২৮ এএম
কখন, কীভাবে খাবেন গ্রিন টি?

শরীরকে চনমনে রাখতে চা খায়না এমন লোক কমই আছে। তবে যেকোনো চায়ের থেকে গ্রিন টি আমাদের শরীর আর মন দুটোর জন্যই ভালো। আমরা কমবেশি সবাই জানি গ্রিন টি আমাদের জন্য যথেষ্ট উপকারী। কিন্তু কখন কি নিয়মে গ্রিন টি খেলে সেটা শরীরের জন্য আসলেই ভালো সেটা জেনে নেব:  

১. গ্রিন টি আমাদের শরীরে খারাপ কোলেস্টেরল বা এলডিএল ও ট্রাইগ্লিসারাইড জমতে দেয় না। রক্তনালীতে এই সব ফ্যাট জমলে রক্ত সঞ্চালন বাধা পায়। তাই গ্রিন টি অবশ্যই আমাদের জন্য ভালো।

২. গ্রিন টি আমাদের মেটাবলিজমের মাত্রা বাড়িয়ে দ্রুত ফ্যাট ঝরিয়ে দেয়। ফলে ওজন কমে যায়।

৩. গ্রিন টিতে রয়েছে পলিফেনল ও ফ্লাভনয়েডের মতো অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট থাকে। যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারে।

৪. ত্বক ও চুলের স্বাস্থ্যের জন্য দারুণ উপকারী। এটা শরীরের একেবারে মূল থেকে আমাদের পুষ্টি এবং সজীবতা এনে দেয়।

মাথায় রাখুন কিছু বিষয়:

খালি পেটে গ্রিন টি নয়

আমরা ভাবতেই পারি যে খালি পেটে গ্রিন টি বোধহয় পেট পরিস্কার হয়। কিন্তু এটা ঠিক নয়। কারণ গ্রীন টিতে রয়েছে ক্যাফেইন। যাতে করে পেটে গ্যাস জমতে পারে। তাই খালি পেটে এই চা খেলে প্লীহা ও পেটের ক্ষতি হয়ে বসতে পারে।

সঠিক সময়ে চা পান করুন

সবচেয়ে ভালো ফল পেতে হলে খাওয়ার কমপক্ষে ৩০ মিনিট আগে এই চা পান করা উচিত। চাইলে খাবার গ্রহণের ১-২ ঘণ্টা পরও গ্রিন টি পান করতে পারেন। না হলে পেটে নানা সমস্যা হতে পারে।

গ্রিন টি`র সঙ্গে দুধ ও চিনি নয়

সাধারণ চায়ে আমরা দুধ ও চিনি মনের মতো করে মিশিয়ে খাই। কিন্তু গ্রিন টি এর ক্ষেত্রে তেমনটা করবেন না। গ্রিন টি তে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং থিয়ানিন স্বাস্থ্যের জন্য এমনিতেই অনেক ভালো। উপকারী। কিন্তু যখনই গ্রিন টি’র সঙ্গে দুধ এবং চিনি মেশানো হয় তখন স্বাস্থ্যে ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে।

গ্রিন টি`র সঙ্গে মধু মেশান

গ্রিন টি`র ক্যাফেইন এবং মধুর ভিটামিন একসঙ্গে শরীরের মেদ ঝরাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। মধু ক্যালোরি কমাতে এবং গ্রিন টি হজমশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। তাই পরিমাণমতো মধু গ্রিন টি এর সঙ্গে মিশিয়ে খান।

দিনে কতো কাপ গ্রিন টি

দিনে কত কাপ গ্রিন টি খাওয়া উচিৎ সেটাই হয়তো জানেন না অনেকেই। গ্রিন টি অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট হতেই পারে। তবুও দিনে ৩ কাপের বেশি খাওয়া উচিত নয়। কারণ এর বেশি গ্রিন টি খেলে শরীর ডিহাইড্রেটেড হয়ে যেতে পারে। বেশি পরিমাণ গ্রিন টি শরীর থেকে প্রয়োজনীয় উপাদান বের করে দিতে পারে।

সকাল ও সন্ধ্যা দুই সময়ের জন্যই ভালো গ্রিন টি। তবে যাদের ঘুম নিয়ে সমস্যা রয়েছে তাদের সন্ধা বেলা গ্রিন টি না খাওয়াই ভালো।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ/জেডএ