ঢাকা, শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

টনসিলের ব্যথা কমান ঘরোয়া উপায়েই

লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৭ আগস্ট ২০১৮ সোমবার, ০৫:৩৯ পিএম
টনসিলের ব্যথা কমান ঘরোয়া উপায়েই

টনসিলাইটিস বা টনসিলে প্রদাহ আমাদের অনেকেরই একটি কমন সমস্যা। এই একটু অনিয়ম করে খাচ্ছেন বা ঠাণ্ডা-গরম লাগাচ্ছেন, আর অমনি গলা ফুলে ব্যথায় টনসিল শুরু হয়ে যাচ্ছে। সাধারণত স্ট্রেপট্রোকক্কাস নামক ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে টনসিলাইটিস হয়। আরও কিছু ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণেও হতে পারে এটি। এর ফলে টনসিলের লালভাব, গলাব্যথা, গলার মধ্যে আলসার, কানে ব্যথা, ঘাড়ে ফোলাভাব, জ্বর ইত্যাদি সমস্যা দেখা যায়। এ থেকে নিরাময়ের অনেকগুলো উপায় আপনার হাতেই রয়েছে।

লবণ পানি

গলাব্যথা শুরু হলে সামান্য উষ্ণ লবণ পানি দিয়ে কুলি করার বিষয়টি মোটামুটি সবাই জানি। এটি টনসিল সংক্রামণ রোধ করে, ব্যথাও বেশ দ্রুত কমিয়ে দিতে পারে। এছাড়াও উষ্ণ লবণ পানি দিয়ে কুলি করলে গলায় সব ধরনের ব্যাকটেরিয়ার সংক্রামণের আশঙ্কাও কমায়।

সবুজ চা এবং মধু

টনসিল কমাতে এক কাপ গরম পানিতে আধা চামচ সবুজ চা পাতা আর এক চামচ মধু দিয়ে ১০ মিনিট ফুটিয়ে নিন। এবার আস্তে আস্তে চুমুক দিয়ে সেটি খান। সবুজ চায়ে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় সবরকম ক্ষতিকর জীবাণু ধ্বংস করে। দিনে ৩ থেকে ৪ কাপ এই মধু-চা পানে উপকার পাবেন।

হলুদ মেশানো দুধ

এক কাপ গরম দুধে এক চিমটি হলুদ মিশিয়ে নিন। গরুর দুধ টনসিলের ব্যথা উপশমে কাজে লাগে। কারণ দুধে অ্যান্টিবায়োটিক উপাদান আছে। গরুর দুধে হলুদ মিশিয়ে সামান্য গরম করে খেলেও উপকার মেলে। হলুদ অ্যান্টি ইনফ্লামেন্টরী, অ্যান্টিবায়োটিক এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ উপাদান বলে গলাব্যথা কমিয়ে টনসিলের সংক্রমণ দূর করে।

আদা চা

টনসিল দূর করতে দেড় কাপ পানিতে এক চামচ আদা কুচি আর চা ১০ মিনিট ফুটান। দিনে অন্তত ২-৩ বার এটি পান করুন। আদার অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি উপাদান যেকোনো সংক্রমণ ছড়াতে বাধা দেয়। তাই গলার ব্যথা কমায়।

লেবুর রস

২০০ মিলিগ্রাম উষ্ণ গরম পানিতে এক চামচ লেবুর রস, এক চামচ মধু, আধা চামচ লবণ ভালো করে মিশিয়ে নিন। গলাব্যথা ভালো না হওয়া পর্যন্ত এটি খেতে থাকুন। টনসিলের সম্যসা দূর করার জন্য এটি খুবই কার্যকরী।

নিম

নিম তো সব ধরনের রোগের জন্য দারুণ জাদুকরী পথ্য। এজন্য প্রথমে কয়েক চিমটি নিম পাউডার পানিতে গুলিয়ে ফুটিয়ে নিন। এতে খানিকটা লবণও মেশাতে পারেন। ঠাণ্ডা হলে সেই পানি খান, এবং নিয়মিত এটা খেলে টনসিল থেকে আপনি নিরাময় পাবেন।

দারুচিনি

ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ কমিয়ে টনসিল সারাতে চাইলে অবশ্যই খাবেন দারুচিনি। এজন্য এক গ্লাস গরম পানিতে দারুচিনি গুড়ো ও এক চা চামচ মধু মিশিয়ে সেই মিশ্রণ দিনে কয়েকবার খান। টনসিল সেরে যাবে।

তুলসী

ঠাণ্ডাজনিত সমস্যা কমাতে তুলসীর কোনো বিকল্প হয় না। কারণ এতেও রয়েছে অ্যান্টি ভাইরাল ও অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান। এগুলো টনসিল সারাতে বিশেষ ভূমিকা রাখে। এজন্য কয়েকটি তুলসী পাতা পানিতে ফুটিয়ে ঠাণ্ডা করে খেয়ে নিন। চাইলে এতে কিছুটা মধুও মিশিয়ে নিতে পারেন।


বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ