ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ঘাড়ে বেশি ব্যথা হচ্ছে কি?

লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ শুক্রবার, ০৩:৩৯ পিএম
ঘাড়ে বেশি ব্যথা হচ্ছে কি?

সকালে ঘুম থেকে উঠেই টের পেলেন ঘাড় নাড়াতে পারছেন না। হঠাৎ করেই ঘাড় অসাড় আর ব্যথায় একদম শক্ত হয়ে আছে, এদিক ওদিক তাকানোও যাচ্ছে না। এই ঘাড় ব্যথা খুব সাধারণ একটি সমস্যা। এটি বড় কোনো রোগের লক্ষণ না হলেও বেশ অস্বস্তিকর। পেশিতে টান, একটানা একভাবে বসে কাজ করা, ভুল ভঙ্গিতে ঘুমানো, পুষ্টির অভাব, অতিরিক্ত ব্যায়াম, একটানা মাথা নিচু রাখা ইত্যাদি কারণে ঘাড় ব্যথা হতে পারে। এই অস্বস্তিকর ব্যথা দূর করা সম্ভব ঘরোয়া কিছু উপায়েই।

ম্যাসাজ

ঘাড়ের ব্যথা কমাতে ভালো উপায় মালিশ করা। মালিশ করলে মাংসপেশী শিথিল হয় এবং রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায়। এর ফলে ঘাড়ের কাঠিন্য দূর হবে। সঙ্গে ঘুমও ভালো হবে। এছাড়া গরম পানি দিয়ে গোসল করলে মাংসপেশি শিথিল হয়। অলিভ অয়েল, সরিষার তেল বা নারকেল তেল গরম করে ঘাড়ে কিছুক্ষণ মালিশ করুন কয়েক মিনিট যাবত। নিজে না পারলে ম্যাসাজের জন্য কারো সাহায্য নিন।

ঘাড়ের ব্যায়াম

ঘাড়ের ব্যায়াম ঘাড়ের ব্যথা বা ঘাড় শক্ত হয়ে যাওয়া দূর করতে বেশ কার্যকর হতে পারে। এজন্য প্রথমে সোজা হয়ে বসে শরীরকে শিথিল হওয়ার সময় দিন। এরপর আপনার মাথা বুকের দিকে নামিয়ে আনুন, তারপর আকাশের দিকে তাকাতে তাকাতে মাথাটি পেছনের দিকে নিন। এইভাবে কয়েকবার করুন।

আবার মাথা একবার ডান দিকে, তারপর বাম দিকে কাঁত করুন। এভাবে কয়েকবার করুন। শরীর না নাড়িয়ে মাথাটি আস্তে আস্তে ডান দিকে ঘুরিয়ে তারপর বাম দিকে ঘুরান। এইভাবে কয়েকবার করার পরে আস্তে আস্তে কাঁধ ঘুরিয়ে ঘাড়ের ব্যায়াম শেষ করুন। তবে ব্যায়াম করতে গিয়ে ব্যথা অনুভব করলে ব্যায়াম করার দরকার নেই।

ঠাণ্ডা থেরাপি

ঠাণ্ডা থেরাপি দিলে ঘাড়ে অসাড়তার ব্যথা কমে এবং মাংসপেশির মেটাবলিজমের ফলে সৃষ্ট ল্যাকটিক এসিড তৈরি হতে বাধা প্রদান করে। ফলে ব্যাথা সৃষ্টি হতে পারে না। এজন্য একটি পাতলা তোয়ালে বা টুকরো কাপড়ের মধ্যে বরফের টুকরা নিয়ে ঘাড়ের মধ্যে ১০-১৫ মিনিট চেপে ধরে রাখুন। ব্যথা কমবে।

গরম থেরাপি

আপনি ঠাণ্ডা থেরাপি দিয়ে ব্যথা কমাতে না পারলে গরম থেরাপি নিন। এক্ষেত্রে হট ওয়াটার ব্যাগ বা হট ওয়াটার বোতল বা গরম পানিতে পাতলা তোয়ালে ভিজিয়ে ঘাড়ে দিতে পারেন। দিনে ২-৩ বার গরম থেরাপি নিন।

সরিষার তেল ও রসুনের ব্যবহার

ঘাড়ে ব্যথা কমাতে ২ টেবিল চামচ সরিষার তেল নিন। একটি প্যানে তেল ঢেলে গরম করে এতে ৩/৪ টি রসুনের কোয়া দিন। রসুন গাঢ় বাদামী হওয়া পর্যন্ত ভাজতে থাকুন। এরপর সেটা নামিয়ে কিছুটা ঠাণ্ডা করে ঘাড়ে ও কাঁধে মালিশ করুন। ১০ মিনিট ভালো করে ম্যাসেজ করলে ঘাড় বা কাঁধে ব্যথা কমে যাবে।

মেন্থল ও কর্পূর

মেন্থল ও কর্পূরের প্রলেপ লাগালে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায়। এই উপাদান দুটির মিশ্রণের ফলে ঠাণ্ডা ও উষ্ণ দুই ধরণের অনুভূতিই পাওয়া যায়। উষ্ণতার কারণে আপনার ব্যথা দূর হবে। আবার ঠাণ্ডার কারণে আপনি আরাম পাবেন।

আপেল সাইডার ভিনেগার

আমাদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে আপেল সিডার ভিনেগার অনেক উপকারে আসে। ঘাড়ে ব্যথা কমাতে একটি টাওয়েল ভিনেগারে ভিজিয়ে নিন। এবার এটি ঘাড়ে ব্যথার স্থানে লাগিয়ে রাখুন। এভাবে কয়েক ঘণ্টা রাখতে পারলে ভালো হয়। দিনে দুইবার এমন করুন। এছাড়া দুই কাপ আপেল সাইডার ভিনেগার কুসুম গরম পানিতে মিশিয়ে নিন। ১৫ মিনিট পর এটি দিয়ে গোসল করে ফেলুন। ব্যথা উপশম হবে।

কিছু সতর্কতা

একটানা বসে কোনো কাজ করবেন না। প্রতি ২০-২৫ মিনিটে অন্তত ১ বার উঠে ৫ মিনিট হাঁটাহাঁটি করে আসুন। আর ঘাড়, পিঠ ও মেরুদণ্ড বাঁকা করে বসবেন না। শক্ত সমান বিছানায় এক বালিশে চিত হয়ে ঘুমাতে হবে। ঘুমানোর সময় ঘাড়ের নিচে বালিশ দিতে হবে। প্রয়োজনে বালিশ নিচে টেনে নামিয়ে ঘাড়ের নিচে নেবেন বা কম উচ্চতার বালিশ ব্যবহার করবেন। ঘাড় সামনে ঝুঁকিয়ে বেশিক্ষণ কোনো কাজ করা যাবেনা। কাজের জায়গায় চেয়ার টেবিল এমন ভাবে রাখবেন যাতে ঘাড় সামনে না ঝুকিয়ে কাজ করতে না হয়।

তবে বেশি সমস্যা হলে, ব্যথার সময়ে অন্যান্য সমস্যা দেখা দিলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ/জেডএ

 

বিষয়: 25574 ,  25514 , 25500 , 25492 , 25491 , 25404