ঢাকা, বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

ডে ট্যুর কীভাবে করবেন

লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৪ জানুয়ারি ২০১৯ বৃহস্পতিবার, ০৪:২৮ পিএম
ডে ট্যুর কীভাবে করবেন

অফিস বা ক্লাসের চাপে হাঁপিয়ে উঠেছেন একদম। ফাইল, প্রেজেন্টেশন আর প্রোজেক্টের চাপে অন্য কিছু ভাবার সময়টাও হাতে নেই। কিন্তু আপনি অবশ্যই একঘেয়েমি আর যান্ত্রিক জীবন নিয়ে যথেষ্ট বিরক্ত। আপনার কিছুটা পরিবর্তন দরকার, অন্য কোথাও গিয়ে একটু দম ফেলা দরকার। ভাবছেন দম ফেলার সুযোগ কই! ছুটিই বা কোথায় পাবেন! আর এজন্যই তো আপনার কোথাও যাওয়া হয় না। তবে তাই বলে কোথাওই যাবেন না, ক্লাস-অফিস-বাসা করে কাটিয়ে দেবেন? একদমই না।

আপনি তো একদিনের ছুটি পান সপ্তাহান্তে। সেই দিনেই কোথাও ঘুরে আসুন। দূরে যেতে হবে না, আপনার আশেপাশে কোথাও যান সময় করে। চাঙ্গা হয়ে আসুন একদিনের ‘ডে ট্যুর’এর মাধ্যমে। সেজন্য পরিকল্পনা করে ফেলুন-

একা যাবেন না দল বেঁধে?

ডাক শুনে কেউ না আসলে একাই যাবেন, সেটা ঠিক আছে। কিন্তু ঘুরতে গেলে মজা করা, দারুণ সময় কাটানোর জন্য দল বেঁধে গেলে আপনার ঐ ভ্রমণটা অবশ্যই আরও আনন্দদায়ক হবে। আপনি ঘুরে-ফিরে, খেয়ে-দেয়ে, ছবি তুলে মজা পাবেন। এতে দেখবেন আপনার যাবতীয় পরিকল্পনাও সহজ হবে, খরচাপাতিও কম হবে।

আগে আপনি আপনার পরিবারকে রাজি করান। তারা কেউ যদি ঘুরতে যেতে চায় তো কয়জন মিলে ঘুরে আসুন। আর বন্ধুবান্ধব বা সহকর্মী সঙ্গে যেতে চাইলে সবার পছন্দ আর সুবিধামতো একটি দিন ঠিক করে ফেলুন। আর কাউকে না পেলে একাই কোথাও থেকে ঘুরে আসুন।

পরিকল্পনা

সবার আগে পরিকল্পনা করে নিন। যেহেতু একদিনই সময়, তাই কাছেপিঠে কোথাও যাবেন। সেখানে দিনে গিয়ে দিনেই ফেরা যায় কিনা সেটা ভেবে নিন। সেখানে দেখা, ঘোরা, সময় কাটানোর মতো কী কী রয়েছে সেটা খোঁজ নিন। যাত্রাপথ আর গন্তব্য নিরাপদ কিনা সেটার খোঁজও আপনাকে রাখতে হবে। যাদের সঙ্গে যাচ্ছেন, তাদের সঙ্গে যাবতীয় পরিকল্পনা আর তালিকা করে ফেলুন। সেদিন ফিরতে পারবেন কিনা, ফিরতে পরিবহন ব্যবস্থা কেমন হবে সেটাও আগে থেকে ঠিক করে তারপর বের হন। সবচেয়ে ভালো হয় নিজের কোনো পরিবহনে যেতে-আসতে পারলে। তা না হলে ঠিক করে নিন সেখান থেকে যাওয়া আর ফেরার সবচেয়ে ভালো উপায় কী। সেই এলাকা সম্পর্কে বিস্তারিত খোঁজ নিয়ে তারপর যাবেন।

চটজলদি বেরিয়ে পড়ুন

আপনি একদিনেই ঘোরার পরিকল্পনা করেছেন, তাই পুরো দিনটি আপনার কাছে জরুরি। যত দ্রুত বেরোতে পারবেন, যাত্রা আর ঘোরার জন্য তত সময় আপনার হাতে থাকবে। সকালে উঠে গোছগাছ করতে গেলে বাস, ট্রেন বা ফ্লাইটের প্রথম ট্রিপটাই হয়ত মিস করে ফেলবেন। তাই আগের দিনে সব গুছিয়ে রাখুন, টিকিটও কেটে রাখুন। একেবারে সকাল সকাল বেরিয়ে পড়ুন।

সঙ্গে পর্যাপ্ত অর্থ রাখুন

একদিনের জন্য যাচ্ছেন বলে কাছে বেশি টাকাপয়সা রাখবেন না, তা নয়। আপনার তাড়াতাড়ি যাওয়া আসার তাগিদে পথে যানবাহনে বেশি খরচ হতে পারে। আপনাকে খেতে হবে, যেখানে যাচ্ছেন সেখানে কিছু না কিছু কেনাকাটা তো করবেন, তার জন্য হাতে ভালো বাজেটই নিয়ে যান। সঙ্গে কিছু বাড়তি টাকা রাখুন। হঠাৎ কোনো দুর্ঘটনা ঘটে গেলে কাজে আসবে।

খাওয়াদাওয়া

সারাদিনের খাওয়াদাওয়া নিয়ে আপনাকে বিশেষ চিন্তাভাবনা করতে হবে। সকালে বের হওয়ার আগে একেবারে ফ্রেশ কিছু খেয়ে বের হন। পথে বমির সমস্যা থাকলে খালিপেটে কখনোই বের হবেন না। কিছু খেয়ে বমির ওষুধ খেয়ে নেবেন। আর দুপুরে যার কাছে যাবেন বা যেখানে যাবেন সেখানকার হোটেলে পেটপুরে খেয়ে নিন, তবে খাবার যেন অস্বাস্থ্যকর না হয় কখনো। আর সন্ধ্যায় ফেরার আগেও কিছু খেয়ে তারপর রওনা দিন।

ভ্রমণের টুকিটাকি

একদিনের ভ্রমণেও সঙ্গে কিছু জিনিস রাখা আবশ্যক। সঙ্গে একটা ব্যাগ রাখুন। তাতে আপনার দরকারি ছোটখাটো জিনিস রাখুন। তবে ব্যাগ ভারি করবেন না। সঙ্গে বাড়তি কাপড়ও রাখতে পারেন। আবহাওয়া বুঝে কাপড় নিন। সঙ্গে প্রয়োজনীয় ঔষধপথ্যও রাখবেন।

অপ্রয়োজনীয় জিনিস নেবেন না। সঙ্গে রাখতে পারেন লোশন, ক্রিম, বডি স্প্রে, টুথব্রাশ, পেস্ট, শ্যাম্পু, চিরুনি, লিপজেল, ক্যাপ/হ্যাট, ছোট্ট ছাতা, রুমাল, ওয়েট টিস্যু, প্রয়োজন অনুযায়ী ইত্যাদি জিনিস।

আপনি বেড়াতে যাবেন, অথচ বিশেষ মুহূর্তগুলোর ছবি তুলে রাখবেন না, তা তো হয় না। সঙ্গে ভালো ফোন বা ক্যামেরা নিয়ে নিন। এক্সট্রা ব্যাটারি, মেমোরি কার্ডও নিন। আপনার মোবাইল ও ল্যাপটপ নিলে অবশ্যই সেগুলোর চার্জারটি ব্যাগে নিন। সাথে পাওয়ার ব্যাংক নিতে ভুলবেন না। ইয়ারফোন বা এমপিথ্রি ভ্রমণের সময় নিয়ে নিন। গানে গানে পথচলা আরও সুন্দর হবে। সঙ্গে হালকা কোনো বইও নিয়ে নিন। চলতে চলতে বইয়ের মধ্যে ডুব দিন।

সঙ্গে খাতাকাগজ আর কলমও নিয়ে নেবেন। টুকে রাখতে পারেন আপনার ভ্রমণের টুকিটাকি অভিজ্ঞতা।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ/এমআর