ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

প্রথম দেখায় প্রেম

ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি ২০১৯ মঙ্গলবার, ০৮:০২ এএম
প্রথম দেখায় প্রেম

একটা বিয়ের অনুষ্ঠানে ফয়সাল আর অনুর প্রথম দেখা হয়। বিয়েটা ফয়সালের বন্ধু আর অনুর বান্ধবির। বিয়ের সেই হৈ চৈ, আনন্দ হুল্লোড়ের মধ্যে ফয়সালের চোখ আটকে গেলো অনুর দিকে। সেই যে চোখ পড়লো, আর কিচুই ভালো লাগছিলো না। শুধু কাছাকাছি যাওয়া, নানা বাহানায় কথা বলতে চাওয়া, অপলক চোখে তাকিয়ে থাকা- ফয়সালের প্রশ্ন জাগছিলো এটাই কি তাহলে প্রথম দেখায় প্রেম? কি করবে এখন? কীভাবে অনুকে মনের কথা বলবে অনুকে?

মনের মধ্যে জমা ভালোলাগার কথাগুলো জমিয়ে রাখবেন না। একটু সময় নিন। ভাবনা চিন্তা করে নিয়ে ভালোলাগার মানুষটিকে প্রস্তুত করুন, বোঝান যে আপনি তাকে ভালোবেসে ফেলেছেন। তাকে মনের কথা খুলে বলুন। কীভাবে পুরো বিষয়টি সামলাবেন সে বিষয়ে বিস্তারিত থাকছে আজ-

ভেবে দেখুন তো বিষয়টা একপেশে নয় তো?

ধরুন আপনি প্রথম দেখাতেই প্রেমে পড়ে গেলেন বা একটু অন্যভাবে বললে ‘প্রেমে পড়ার সিদ্ধান্তটাই নিয়ে ফেললেন।’ এটাকে প্রেম বলার আগে একবার নিজেকে প্রশ্ন করে নিন। একে ‘প্রেম’বলবেন? প্রিয়মুখের মানুষটা আপনার অনুভূতিকে ঠিক কীভাবে নেবে এটাও তো ভাবতে হবে। আগে চেনাজানা, বন্ধুত্বের বিষয়টি হলে ভালো হয়। প্রেম নিয়ে অন্তত তাড়াহুড়োর কিছু নেই।

এই কি প্রেম?

প্রেম তো আজীবনই অধরা থাকে না। তবে প্রেম প্রেম অনুভূতি আর প্রেম হওয়া তো এক নয়। হঠাৎ যাঁর প্রেমে পড়লেন, তাঁকে নিয়ে রাজ্যের ভাবনার আগে নিজেকে নিয়ে ভাবুন। আপনি কদ্দূর কি ভাবছেন- সেটাও জরুরি। কাউকে দেখে মোহের ঘোরে পড়া, ভালোলাগার খাতির থেকেই সারাদিন তার কথা ভাবা তো মানসিক বা শারীরিক দুই আকর্ষণ থেকে হতে পারে। এটা কি আসলেই প্রেম কিনা বুঝতে হবে তো।

ভেবেচিন্তে ঝাঁপ দিন

পানিতে ঝাঁপ দেওয়ার আগে জেনে নিন সেখানে আপনি থৈ পাবেন তো? মানে যার দিকে এগোতে চান, ভালোলাগে সে কেমন সাড়া দেবে, এগোবে তা একটু আঁচ করে নিন। সে বিন্দুমাত্র আগ্রহী না হলে তো প্রেম জেগে উঠবে না। আপনি ঝাঁপ দিতে গিয়ে উল্টো তলিয়ে যাবেন। তাই যে মানুষটিকে সঙ্গীরূপে পেতে চাইছেন, তাঁকে চেনাজানার চেষ্টা করুন। জীবন সাজানো গল্প তো না। জীবনটাকে আসলে গল্পের মতো করে সাজাতে হয়। সে দায়িত্ব নিন আপনিই।

প্রথম ধাক্কা সামলান

প্রথম দেখায় ভালো লাগলো, কথাবার্তা- চেনাজানা শুরু করলেন। সবাই প্রেমে পড়লে নাকি চোখে আর কিছুই ভালো লাগে না, জেনেশুনে সবাই বিষপানও করতে পারে। চেনাজানার প্রথমদিকে সবকিছু ভালোও লাগে। কারো কোনো দোষ-ত্রুটি চোখে পড়তে চায় না। কিন্তু হুট করে ছোটখাট কোনো বিবাদ হয়েই বসতে পারে। এই প্রথম বিবাদটি কীভাবে মিটমাট হয় সেটি দেখুন। যদি একে অন্যের দোষ-ত্রুটি মেনে নিয়েই এই ভালোলাগার বিষয়টিকে গ্রহণ করতে পারেন, তাহলে আপনাদের পথ হয়ত মসৃণ হবে।

অতীত থাকলে সেটা নিয়ে আলোচনা করে নিন

যাকে ভালোলাগে, যাকে নিয়ে ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখছেন- তার কাছে নিজের সব বিষয়ে পরিস্কার থাকুন। আপনার জীবনে অতীতে আরও কেউ থাকতে পারে। তারও থাকতে পারে। সেই অতীতটাকে এড়ানোর কিছু নেই। এটা থাকতেই পারে- সেটা ভেবেই কথা বলুন। জেনেশুনে সেটা মেনে নিন। একে অন্যের সঙ্গে নিজেদের অতীতের কথা, সুখ-দুঃখের কথা ভাগাভাগি করে নিন। শুধু সঙ্গীকে বিচার না করে দুজনের বোঝাপড়াটা বাড়িয়ে ফেলুন।

বাস্তবতার প্রতি নজর দিন

আপনার কোনো বিপদ বা হতাশা এলে হয় আপনি খুব ভেঙে পড়েন, নয়তো আপনি নতুন করে স্বপ্ন দেখেন। আশা বা নিরাশার চেয়ে আপনার বাস্তব পরিস্থিতিটাকে গুরুত্ব দিন। আগে নিজে ভালো থাকার চেষ্টা করুন। নিজে ভালো না থাকলে আপনার গড়ে উঠতে যাওয়া সম্পর্ক আর সঙ্গীকে আপনি ভালো রাখতে পারবেন না তো। নিজে বাস্তববাদী হন, সম্পর্কটাকে শক্ত করতে চেষ্টা করুন। ভবিষ্যদের দিকে নিজেদের এগিয়ে নিতে থাকুন।

নিজের জীবনটাকেও গুরুত্ব দিন

ভালোলাগে, ভালোবাসেন ভালো কথা। তাকে জীবনের সব কথা বলা, সবকিছু শেয়ার করা, বিশেষ কোনো নামে ডাকতিই পারেন। তবে প্রথম প্রথম বলে যে একেবারে গা ভাসিয়ে দেবেন তা তো না। আপনার নিজের যে একটা স্বকীয়তা আছে সেটা ভুলে যাবেন না। আপনার ভালোলাগাকে কখনো জোর করে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করাতে যাবেন না। তাকে সময় দিন। এরপর নিজের জীবনের প্রতিও খেয়াল রাখুন। ভেসে গিয়ে নিজের পড়াশুনা, ক্যারিয়ার, ভবিষ্যত থেকে ছিটকে পড়বেন না।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ