ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

বিচ্ছেদের পর যে কাজগুলো একেবারে নয়

শাহরিনা হক
প্রকাশিত: ১৩ জুলাই ২০১৯ শনিবার, ০৮:০৪ এএম
বিচ্ছেদের পর যে কাজগুলো একেবারে নয়

একটা সুসম্পর্কের বিচ্ছেদ হয়েছে কিছুদিন আগে। দীর্ঘদিনের প্রেম, কতো স্মৃতি মনের মধ্যে ধরিয়ে দিয়ে সঙ্গী চলে গেছে। আপনি হয়ত কষ্ট, রাগ, ক্ষোভ নিয়ে আছেন। এই বিচ্ছেদের পর নিজেকে সামলে নেওয়া খুবই কঠিন। এতদিনের স্মৃতি সহজেই ভোলা যায় না। প্রতিদিনের হাঁটা পথ, টি পথ, ফাস্টফুডের দোকান, গান শোনা, বৃষ্টির দিনের চা খাওয়ায় মিশে থাকে দূরে সরে যাওয়া মানুষটি। আর তাই আবেগের বশবর্তী হয়ে অনেক সময় ভুল করে ফেলে। হাজার হলেও তো ভালোবাসা ছিল, মন তো পড়ারই কথা। আজকে জানাবো বিচ্ছেদের পরে কিছু ভুল সম্পর্কে যেগুলো এড়িয়ে চলা উচিত আমাদের সবারই-

ব্লক করা একদমই ঠিক না

বিচ্ছেদের পরে ক্ষেপে গিয়ে এতদিনের কাছের মানুষটিকে ফোন এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্লক করে দেন অধিকাংশ মানুষ। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে রাগ কমতে থাকে। তখন ঘটে উল্টোটা। সেই মানুষটির প্রোফাইল দেখার আগ্রহ বেড়ে যায়। তাই বন্ধুবান্ধবের সোশ্যাল মিডিয়ায় ঢুকে কিংবা ফেক আইডি খুলে সেই মানুষটির প্রোফাইলে ঢুঁ মারেন অনেকেই। এতে কিন্তু আপনার এই অভ্যাসে মায়া কমে না, বরং থেকে যায়। সঙ্গীকে ভুলে যাওয়ার চেয়ে মনে পড়ে বেশি। তাই সম্পর্ক ভাঙলে ব্লক না করে বিষয়টি মেনে নেয়ার চেষ্টা করুন। সময়ই ঠিক মনকে সামলে নেবে।

‘লাস্ট সিন’ এ সবসময় চোখ রাখা

হোয়াটসঅ্যাপে বা মেসেঞ্জারে ইউজার শেষ কখন অনলাইনে ছিল তা দেখায় ‘লাস্ট সিন’-এ। আর তাই, ব্রেকআপের পরে প্রাক্তন কখন অনলাইনে আসে-যায় তা নজরদারির জন্য অনেকেই ‘লাস্ট সিন’-এ চোখ রাখে। একটু পরপর বিষয়টি চেক করায় মানসিক যন্ত্রণাও বাড়তে থাকে। মনে হয় সে কাছাকাছি আছে, আবার না জানি কতো দূরে।

অন্য কারো কাছে বার বার খোঁজ নেওয়া

বিচ্ছেদ হয়েছে, সম্পর্কে ফেরার আর কোনো সুযোগ নেই। কিন্তু তার প্রতি কিছুটা অনুভূতি বা কৌতুহল আছে। সে কি করছে না করছে, নতুন সম্পর্কে জড়ালো কিনা, আপনার খোঁজখবর নিচ্ছে কিনা- সেই খোঁজ রাখতে গিয়ে আমরা তার আশেপাশের লোকের কাছে খোঁজ নিতে যাই। এটা করলে আপনার কষ্ট কমবে না বরং বাড়বে।

রাগ করে প্রতিশোধপরায়ণ হওয়া

সে প্রতারণা করলো বা কোনো অপরাধ করলো- মনে মনে আপনার তার প্রতি খুব রাগ হলো। বিচ্ছেদের পরেও আপনি সুযোগ খুঁজতে লাগলেন যে তাকে আপনি কিছুতেই ভালো থাকতে দেবেন না। যেভাবেই হোক তাকে বুঝাবেন যে আপনি তার ক্ষতি চান। সেটা করতে গেলে তো তাকে ভুলতে পারবেন না। তারচেয়ে বরং আপনি ভালো থাকুন, তাকে দেখান আপনি ভালো আছেন। এটাই হতে পারে অন্যরকম প্রতিশোধ।

স্মৃতি ধরে রাখার চেষ্টা

বিচ্ছেদের পরে অনেকেই একসঙ্গে তোলা ছবিগুলো মুছে ফেলতে পারেন না। মায়া লাগে, মুছে ফেললে তো তাকে আর দেখতে পেলাম না- এই অজুহাতে ছবিগুলো রেখে দেন অনেকে। এতে কষ্ট কমার বদলে আরও বাড়ে। কারণ বার বার স্মৃতিগুলো চোখের সামনে চলে আসে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বুঁদ হওয়া

নিজের দুঃখগুলো সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে যাবেন না। এটা অবশ্য অনেকেই করেন। অনুভূতিগুলো নিজের মনের ভেতরে রাখুন। সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যক্তিত্ববানের মতো আচরণ করুন। ইনস্টাগ্রাম বা ফ্লিকার ব্যবহার করে নিজের ছবি তোলার চর্চা বাড়াতে পারেন। গঠনমূলক কাজে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করুন। কোনোভাবেই যেন সোশ্যাল মিডিয়া আপনাকে গ্রাস করতে না পারে। 

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ