ঢাকা, সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শখ যখন ফটোগ্রাফি

শাহরিনা হক
প্রকাশিত: ২২ জুলাই ২০১৯ সোমবার, ০৮:০০ এএম
শখ যখন ফটোগ্রাফি

ছবি নাকি হাজার কথার সমান। শুধু তো কথাই নয়, মনের ভাব প্রকাশ করে দেয় ছবি। শুধু কি মনের ভাব? প্রাচীনকাল থেকেই সংবাদ ও তথ্য আদান-প্রদানের হাতিয়ারও এই ছবি। দুঃখ, সুখ, আনন্দের কথা বোঝাতে হাজার শব্দতে যখন কাজ হয় না, তখন একটা ছবিই বুঝিয়ে দিতে পারে অনেককিছু। আর এজন্য ফটোগ্রাফি হতে পারে দারুণ এক পন্থা।

ফটোগ্রাফি আমাদের অনেকের শখ। তবে শুধু শখের জালেই বেধে না রেখে জীবনের বিভিন্ন দিক, বাস্তবতাকে ফটোগ্রাফির মাধ্যমে প্রকাশ করতে চান অনেকে। তখনই ফটোগ্রাফিটা নিজের পেশা হিসেবে বেছে নেওয়া যায়।

যুগটা এমনই, এখানে গণমাধ্যমের জয়জয়কার চলছে যেন। বিভিন্ন ঘটনার বাস্তব দৃশ্য উন্মোচনে গুরুত্ব পাচ্ছে ফটোগ্রাফি। একটি পরিচ্ছন্ন বস্তুনিষ্ঠ ছবি একটি সংবাদকে অনেক বেশি স্পষ্ট করে দিতে পারে। ছবি ছাড়া খবর কখনোবা আসলই মনে হয় না। আর এটা সবাই জানে যে, এখন চিত্রসাংবাদিক কিংবা আলোকচিত্রীদের পেশাগত জীবনও বেশ প্রতিষ্ঠিত।

কেমন হতে পারে কাজ

ফটোগ্রাফির কথা মনে আসলে প্রথমেই আসে প্রেস ফটোগ্রাফার বা চিত্রসাংবাদিকদের কথা। এদের প্রধান কাজই হলো প্রতিদিনের সংবাদের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ ছবি সবার সামনে নিয়ে আসা। বিষয়টিকে যাতে সুন্দরভাবে পরিবেশিত ও উপস্থাপিত করা যায়, সেটা মাথায় রেখেই ছবি তোলা। কখনো দুর্ঘটনা বা সংঘর্ষের জায়গা থেকেও ছবি তুলে পাঠাতে হয়। এসব কাজে ঝুঁকি যেমন, অ্যাডভেঞ্চারও অনেক। অ্যাডভেঞ্চারপ্রেমীদের জন্য এখানে সুযোগও অনেক।

ফ্যাশন ফটোগ্রাফি

ফ্যাশন ফটোগ্রাফিও এখন খুব রমরমা অবস্থানে রয়েছে। এই ধরনের ফটোগ্রাফাররা ফ্যাশন হাউসগুলোর জন্য কাজ করেন। কখনো আবার কোনো বিশেষ মডেল বা ডিজাইনারদের হয়েও কাজ করেন। তবে এ ধরনের ফটোগ্রাফি বেছে বেছে নিতে হলে আধুনিক ফ্যাশন ট্রেন্ড সম্পর্কে ভালো জানাশোনা থাকতে হবে। নিজেরা স্বাধীনভাবেও কাজ করা যায়। সেক্ষেত্রে প্রয়োজন নিজেদের ব্র্যান্ড ভ্যালু।

পোর্ট্রেট ফটোগ্রাফি

কোনো ব্যক্তিবিশেষের অনুষ্ঠানে, বিয়ে সংক্রান্ত ফটোগ্রাফি বা কারও কোনো সুন্দর বাড়ি, পোষা জীবজন্তু ইত্যাদির ছবি তোলাই এই ফটোগ্রাফির উদ্দেশ্য। এই ধরনের ফটোগ্রাফাররা আরও বেশি সুযোগ পেতে পারেন। তারা ব্যক্তিগত কাজের প্রদর্শনী করেও ভালো রোজগার করতে পারেন।

আরও কিছু ফটোগ্রাফি

এছাড়া ফিল্ম ফটোগ্রাফি, বিজ্ঞাপন ফটোগ্রাফিও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে বর্তমান সময়ে। কারণ মানুষ এখন বাস্তবতা, চোখের সামনে জলজ্যান্ত কাঠামো দেখতেই বেশি আগ্রহী। এগুলো বর্তমানে জনপ্রিয় হয়েছে ওয়াইল্ড লাইফ ফটোগ্রাফিও। অরণ্যের জীবজন্তু, দৃশ্যপট, জঙ্গলের দৃশ্য, প্রকৃতির চিত্রাবলির ছবি এ গোত্রের অন্তর্গত। ওয়াইল্ড লাইফের ছবি তুলতে অবশ্য বিশেষ দক্ষতা লাগে। দরকার পড়ে বিশেষ ধরনের লেন্স বা অন্যান্য যন্ত্রপাতিরও। কিছু কিছু জিনিসের জন্য আবার হয়ত বেশকিছু টাকাও খসতে পারে পকেট থেকে। তাই পকেটের কথা মাথায় রেখেই শখকে পেশায় রূপান্তর করা যায়।

এছাড়া ফটোগ্রাফির কিছু বিশেষ বিভাগ রয়েছে যেগুলো আমাদের জানাশোনা একটু কমই। যেমন ফরেনসিক ফটোগ্রাফি, যেখানে আলোকচিত্রীদের কাজ পুলিশের সহায়তা করা। এছাড়া ফ্রিল্যান্সার হিসেবেও কাজ করা যায়। সেক্ষেত্রে পরপর কাজের অ্যাসাইনমেন্ট জোগাড় করতে হবে এবং বহু রকমের ফটোগ্রাফি সম্পর্কে বিভিন্ন অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

কেমন দক্ষতা দরকার আপনার

ভিজ্যুয়াল, রঙ, দ্রুত কাজ করার ক্ষমতা, কারিগরি জ্ঞান বিষয়ে পরিস্কার ধারণা থাকা প্রয়োজন। কোন বিষয়টি এখন চলছে, চাহিদা কোনটার বেশি সেগুলো সম্পর্কেও টুকটাক জানাশোনাও থাকতে হবে।

কি করণীয়

সবচেয়ে ভালো হয় কোনো একটা কোর্স করে নিতে পারলে। মাধ্যমিকের পর কম সময় থাকে, কিন্তু উচ্চ মাধ্যমিকের পর এই ফটোগ্রাফি কোর্সটা করার সময় আর সুযোগ দুটোই ভালো থাকে। তাই এ সময়টা কাজে লাগানো উচিৎ। সবচেয়ে বড় কথা, এটা থেকে সম্ভাবনাও দেখা যাচ্ছে এখন। কারণ অভিজ্ঞতার সঙ্গে সঙ্গে ফটোগ্রাফারদের উপার্জনও বাড়ে। আর ফ্রিল্যান্সার ও ওয়েডিং ফটোগ্রাফার হিসেবেও মাসে সম্মানজনক অর্থ আয় করা সম্ভব। কমার্শিয়াল ফটোগ্রাফিতেও আয় ভালো। যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা এবং নিয়োগকর্তার ওপর ও বেতন কাঠামোর ওপর নির্ভরশীল।

প্রস্তুতি কীভাবে নেবেন

ফটোগ্রাফির জন্য শুধু একটা ভালো দামি ক্যামেরা থাকলেই হবে না। এর জন্য প্রয়োজন প্রস্তুতির। ফটোগ্রাফি শেখার জন্য অনেক সহায়ক বই রয়েছে, রয়েছে তথ্যবহুল ওয়েবসাইট। ইন্টারনেট ঘাটলে ভালো ভালো টিউটোরিয়াল পাওয়া যাবে। ছবি দেখে, অভিজ্ঞ কোনো ফটোগ্রাফারের সঙ্গে থেকে কিংবা কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তি হয়ে শেখা যায়। তবে পেশা হিসেবে ফটোগ্রাফিকে নিতে চাইলে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা থাকা জরুরি। আমাদের দেশে বেশ কয়েকটি ফটোগ্রাফির স্কুল রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠান বর্তমানে ফটোগ্রাফির ওপর ডিপ্লোমা বা স্নাতক ডিগ্রি দিচ্ছে।

ফটোগ্রাফিতে ডিপ্লোমা করার প্রাথমিক শর্ত, প্রশিক্ষণার্থীকে ফটোগ্রাফির ওপর মৌলিক (বেসিক) কোর্স করা থাকতে হবে। সেই সঙ্গে একটি ডিজিটাল সিঙ্গেল লেন্স রিফে (ডিএসএলআর) ক্যামেরা থাকতে হবে। এ কোর্সে শেখানো হয় ডিজিটাল ক্যামেরা অপারেশন, সম্পাদনা, পোর্ট্রেট ফটোগ্রাফি, শিশুদের ছবি তোলা, মডেল ফটোগ্রাফি ও ল্যান্ডস্কেপ ফটোগ্রাফি।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ