ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

ওজন কমানো নিয়ে যত ভুল ধারণা

শাহরিনা হক
প্রকাশিত: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ রবিবার, ০৮:০১ এএম
ওজন কমানো নিয়ে যত ভুল ধারণা

নিজের বাড়তি স্বাস্থ্য কমাতে আমরা হুমড়ি খেয়ে পড়ি একেবারে। দেখতে ভালো লাগছে না, কোনো পোশাক গায়ে লাগছে না, সবাই মোটা বলে ক্ষেপাচ্ছে- তাই ওজন না কমিয়ে কোনো উপায়ই নেই। আর তাছাড়া আজকাল অনেকেই নিজেদের ওজন সম্পর্কে সচেতন, সবাই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান। ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা উচিত সত্যি, কিন্তু ওজন কমানোর প্রক্রিয়ায় আমরা অনেকেই কিছু ভুল ধারণা দ্বারা প্রভাবিত হই। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে। তাই সাবধান।

ওজন কমানো সম্পর্কে ভুল ধারণাগুলো বিষয়ে থাকছে আজকের আলোচনা-

ওজন কমাতে চর্বিজাতীয় খাবার পুরোপুরি ত্যাগ

অনেকের ধারণা, চর্বিজাতীয় খাবারই মানুষকে মোটা বা স্থূল বানায়। তাই চর্বিজাতীয় খাবার থেকে দূরে থাকলেই ওজন কমে যাবে এবং ফিগার স্লিম হবে। আসলে এ সবসময় ধারণা ঠিক নয়। প্রথমত, পরিমিত মাত্রার চর্বি শরীরের জন্য প্রয়োজন। দ্বিতীয়ত, পরিমিত পরিমাণে চর্বিজাতীয় খাবার শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে বরং আমাদের সাহায্য করে।

প্রতিদিন সামান্য চর্বিজাতীয় খাবার খেলে পেটে ক্ষুধা কম লাগে এবং এর ফলে শরীরে শর্করাজাতীয় খাবারের কমে যায়। এর মানে, পরোক্ষভাবে পরিমিত মাত্রার চর্বিজাতীয় খাবার আমাদের ওজন কমাতে বা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে।

শরীরের ওজন কমাতে পুষ্টিকর খাবার খাওয়া বন্ধ

অনেকেই এই ভুল ধারণা করেন যে, পুষ্টিকর খাবার খেলে শরীর আরও মোটা হয়। আসলে, পুষ্টিকর খাবারকে শরীরের ওজন বৃদ্ধির জন্য দায়ী করার কোনো অর্থই হয় না। অতিরিক্ত খেলে যেকোনো ধরনের খাবারেই ওজন বাড়তে পারে। অন্যদিকে, শরীরের সুস্থতার জন্য পুষ্টিকর ও ভিটামিনযুক্ত খাবার প্রয়োজন। এটা যেমন হালকা-পাতলা মানুষের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য, তেমনি প্রযোজ্য মোটা মানুষের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। যারা ওজন কমাতে চান, তারা প্রতিদিন কী ধরনের খাবার খাবেন, তার একটি তালিকা পুষ্টিবিদের কাছ থেকেই জেনে নিতে পারেন। পুষ্টিবিদই আপনাকে এমন খাবার পরামর্শ দেবে যাতে শরীরে পুষ্টির অভাবও হবে না, ওজনও ধীরে ধীরে কমে যাবে। এক্ষেত্রে যথাযথ খাদ্যাভ্যাসের পাশাপাশি নিয়মিত শরীরচর্চা অপরিহার্য।

বেশি পানি পান করা উচিৎ না

অনেকে বলেন, মোটা মানুষ পানি খেলেও নাকি আরও মোটা হবে। কথাটা মজাদার হলেও, এর কোনো সত্যতা নেই। পানি খাওয়া কমিয়ে দিলে আপনার ওজন কমবে না। বরং যারা ওজন কমাতে চান, তাদের উচিত পর্যাপ্ত পানি পান করা। পানি খাওয়া কমিয়ে দিলে বরং আপনার ওজন বেড়ে যেতে পারে। আবার, শরীরে পানির অভাব দেখা গেলে, তা আমাদের বিপাক প্রক্রিয়ার ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে থাকে।

ঝাল খাবার ওজন কমানোর জন্য সহায়ক কিনা

অনেকের ধারণা, ঝাল খাবার খেলে যেহেতু আমাদের ঘাম উত্পন্ন হয়, তাই ঝাল খাবার শরীরের ওজন কমাতে সাহায্য করে। কিন্তু, এ ধারণা ঠিক নয়। দীর্ঘকাল ধরে ঝাল খাবার খেলে বরং আমাদের পাকস্থলী ক্ষতিগ্রস্ত হবে। এমন কি, পেটব্যথা ও পেটে রক্তক্ষরণ হতে পারে। আরেকটি কথা, অতিরিক্ত ঝাল খাবার আমাদের ত্বকের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে থাকে।

খালি পেটে শরীরচর্চা শরীরের জন্য খারাপ

শরীরের ওজন কমাতে শরীরচর্চার বিকল্প নেই। শরীরের ওজন ঠিক রাখতে এবং শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকতেও নিয়মিত শরীরচর্চা অপরিহার্য। কিন্তু অনেকে মনে করেন, খালি পেটে শরীরচর্চা করা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নয়। এটা ভুল ধারণা। যারা ওজন কমাতে চান বা ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান, তারা নির্ভয়ে খালি পেটে শরীরচর্চা করতে পারেন। গবেষণা মতে, খাবার খাওয়ার এক থেকে দুইঘন্টা আগে পর্যাপ্ত শরীরচর্চা শরীরকে সুস্থ রাখতে এবং ওজন কমাতে সাহায্য করে। তাই নিয়মিত খালিপেটে হাঁটাহাঁটি করুন, নাচুন; জগিং ও সাইক্লিং করুন। কোনো সমস্যা নেই।

সকালের নাস্তা না খেলে ওজন কমে

নিঃসন্দেহে সকালের নাস্তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু অনেকের ভুল ধারণা আছে যে, ওজন কমাতে চাইলে সকালের নাস্তা না খাওয়া উচিত। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সকালে নাস্তা না-করলে দিনের অন্যান্য সময়ে খাবার গ্রহণের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। এতে বরং হিতে বিপরীত হতে পারে।

খুব কম করে খাওয়া

অনেকেই দ্রুত ওজন কমানোর জন্য স্বল্পমেয়াদী ক্রাস প্রোগ্রাম অনুসরণ করেন এবং এর জন্য খুবই স্বল্প খাবার গ্রহণ করেন। এভাবে হয়তো অল্প সময়ে অনেকটা ওজন কমানো যায়, কিন্ত এটা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নয়। ক্রাস প্রোগ্রাম বলতে হলো কম সময়ের মধ্যে খুব কম পরিমাণ খেয়ে ওজন কমানোর চিন্তা করা। এ ধরনের ক্রাস প্রোগ্রামে স্বাধারণত খুবই কম খাবার গ্রহণ করা হয়। এই প্রক্রিয়া দীর্ঘমেয়াদী হলে মানুষ নানান শারীরিক জটিলতার সম্মুখীন হতে পারে। তাই, ওজন কমানোর দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনাই ভালো এবং স্বাস্থ্যসম্মত। পরিমিত খাদ্যগ্রহণ ও পর্যাপ্ত ব্যায়ামের সমন্বয়ে সে প্রক্রিয়া হতে হবে সার্বিক ধরনের।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ