ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

পূজোয় নানা পদের নিরামিষ

শাহরিনা হক
প্রকাশিত: ০৩ অক্টোবর ২০১৯ বৃহস্পতিবার, ০৮:১৮ এএম
পূজোয় নানা পদের নিরামিষ

আজ দিন পেরোলেই কাল মহা সমারোহে শুরু হচ্ছে শারদীয় দুর্গাপূজা। এই সময়ে খাওয়া-দাওয়াও অনেকটাই বেড়ে যায়। এই বেশি পরিমাণে খাওয়াদাওয়ার মাঝে স্বাস্থ্যকর নিরামিষের দিকে আপনার উচিৎ নজর দেওয়া। এতে আপনার শরীর ভাল থাকবে। আনন্দ আর মজা করতেও শক্তি পাবেন।

আর তাই আপনাদের জন্য থাকছে নিরামিষের কয়েকটি সুস্বাদু পদ-

দই পটল 
নিরামিষ খাবারের মধ্যে অনেকের দই পটল খুব পছন্দের। এজন্য পটল অবশ্যই বিচি ছাড়া কচি হতে হবে।

যা যা লাগবে

টাটকা কচি পটল ৫০০ গ্রাম, দই ২০০ গ্রাম, আদাবাটা বড় আধা চামচ,
মরিচবাটা আধা চা চামচ, হলুদ বাটা আধা চা চামচ, তেজপাতা দুটি, সামান্য হিং, পরিমাণমতো লবণ, সামান্য চিনি, তেল, ঘি বড় ১ চামচ, বাটা গরম মশলা (৩-৪টি এলাচ, দারুচিনি ছোট টুকরো ৪-৫টি), ফোড়নের জন্য জিরা।

বানাবেন কীভাবে

পটলের পাতলা খোসা ছাড়িয়ে দু’দিকের মুখ একটু করে কেটে ধুয়ে রেখে দিন। কড়াইতে তেল নিন। তেল গরম হলে পটলগুলো লবণ হলুদ মাখিয়ে লালচে করে ভাজুন। এবার অন্য একটি পাত্রে একটু ঘি, হিং, গোটাজিরা, তেজপাতা ও ফোড়ন দিন। হালকা গন্ধ বের হলে আদাবাটা, মরিচবাটা, অল্প হলুদবাটা চিনি ও পরিমাণমতো লবণ দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন। মশলা কষা হয়ে গেলে দই, অল্প চিনি দিয়ে ভালো করে ফেটিয়ে নিন। একটু নাড়াচাড়া করে ভাজা পটলগুলো দিয়ে দিন। প্রয়োজন হলে সামান্য পানির ছিটাও দিতে পারেন। নেড়েচেড়ে নামিয়ে ঢেকে দিন।

আলুর তরকারি

যা লাগবে

সিদ্ধ আলু ৬ টি, সিদ্ধ টমেটো  ৪ টি, কাঁচামরিচ ৫ টি, আদাবাটা ১ চা চামচ, ধনেগুড়া ১/২চা চামচ, তেজপাতা ২ টি, গরম মশলা ১ চামচ , হলুদ গুড়া ১/২ চা চামচ, জিরা গুড়া ১/২ চা চামচ, মরিচগুড়া ১/২ চা চামচ, ধনেপাতা কুঁচি  ৩ টেবিল চামচ, আস্ত ধনে ও সরষে ১ চা চামচ, তেল, লবণ পরিমানমত।

প্রণালি

সিদ্ধ টমেটো পেস্ট করে নিন। কড়াইতে তেল গরম করে তাতে আস্ত ধনে ও সরষে দিয়ে ফোড়ন দিন। আদাবাটা, সব গুড়ামশলা আর সামান্য পানি দিয়ে কষিয়ে নিন। মশলা কষান হলে টমেটো পেস্ট দিয়ে ৬-৮ মিনিট রান্না করুন। আলু কিউব করে কেটে টমেটোর সঙ্গে আলু ও ১/৪ কাপ পানি দিয়ে ঢেকে দিন। টমেটো গ্রেভি ফুটে উঠলে ধনেপাতা দিয়ে অল্প ঝোল থাকতে নামিয়ে নিন।

নারকেল দিয়ে ছোলার ডাল

উপকরণ

ছোলার ডাল সেদ্ধ ১বাটি, তেজপাতা ২ টি, গোটা শুকনো মরিচ ৪ টি, জিরে গুঁড়ো ২ চামচ, নারকেল কোরানো ৫ চামচ, কাঁচামরিচ ৫ টি, গোটা সরষে ১ চামচ, শুকনো মরিচ গুঁড়ো ২ চামচ, ঘি ৪ চামচ, আদাবাটা ২ চামচ, হলুদ গুঁড়ো ২ চামচ, চিনি ২ চামচ, নারকেল টুকরো করে কেটে ভেজে রাখা ১/২ বাটি, সরষের তেল, জল, লবণ পরিমাণমতো।

প্রণালি

কড়াইয়ে তেল গরম করে তাতে গোটা সরষে, তেজপাতা, শুকনো মরিচ ফোড়ন দিয়ে কড়াইয়ে আদাবাটা দিয়ে কিছুক্ষণ কষিয়ে সিদ্ধ করে রাখা ছোলার ডাল দিয়ে একে একে হলুদ গুঁড়ো, শুকনো মরিচ গুড়ো, জিরে গুড়ো, লবণ, কাঁচামরিচ আর সামান্য পানি দিয়ে নাড়াচাড়া করুন। ডাল ফুটে উঠলে কড়াইয়ে ভেজে রাখা নারকেলের টুকরো দিয়ে নাড়তে থাকুন। ভালোভাবে ডাল নাড়াচাড়া করে নিয়ে সামান্য ঘি ছড়িয়ে দিন। নামানোর আগে চিনি দিয়ে দিন। তৈরি, নারকেল দিয়ে ছোলার ডাল।

কুমড়ো পাতার বড়া

উপকরণ

আতপ চাল ও মসুরের ডাল এক মুঠো করে, ধনেপাতা, রসুনবাটা ১/২ চা চামচ, আদার রস ১/২ চা চামচ, কাঁচামরিচ কুচি এক চা চামচ, হলুদগুঁড়ো সামান্য, জিরাগুঁড়ো ১/২ চা চামচ, কুমড়ো পাতা, লবণ, তেল পরিমাণমতো।

প্রণালী

প্রথমে আতপ চাল ও মসুরের ডাল ১ ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে ভাল করে ধুয়ে বেটে কুমড়ো পাতা ও তেল বাদে বাকি সব উপকরণ এর সঙ্গে ভালোভাবে মাখিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার কচি দেখে কুমড়ো পাতা বেছে ধুয়ে পরিষ্কার করে পানি ঝেড়ে মাঝখানে মিশ্রণটি দিয়ে মুড়ে নিন। এরপর ওপর নীচ দুপিঠেই মিশ্রণটি লাগান। একটি ননস্টিক প্যানে সামান্য তেল দিয়ে গরম করে বড়াগুলো দিয়ে এপিঠ-ওপিঠ বাদামী করে ভেজে তুলুন।

নিরামিষ বিরিয়ানি

উপকরণ

বাসমতি চাল, মাঝারি সাইজের আলু, পনির (বড় টুকরো করে কাটা), কাজুবাদাম, জিরা, মরিচ, জয়ত্রি, জায়ফল গুঁড়ো, কাশ্মিরী লঙ্কাগুড়ো, লবণ, কেওড়াজল, তেল ও ঘি।

প্রণালি

সামান্য দুধে জাফরান ভিজিয়ে তার সঙ্গে কেওড়াজল মিশিয়ে নিন। বাসমতি চাল ধুয়ে, পানি ঝরিয়ে নিন। তেলে গোটা গরমমশলা ফোড়ন দিয়ে পনিরের টুকরোগুলো হাল্কা আঁচে সোনালি রং আসা পর্যন্ত ভেজে নিন। আলু সেদ্ধ করে দু’ টুকরো করে কেটে হাল্কা আঁচে ভেজে তেলে জিরে, মরিচ, জয়িত্রি, জায়ফলগুঁড়ো, সামান্য কাশ্মিরী লঙ্কাগুঁড়ো দিয়ে তার সঙ্গে চাল দিয়ে ভাল করে নাড়াচাড়া করতে হবে। এবার যত পরিমাণ চাল, তার দ্বিগুণ পরিমাণ জল দিয়ে চাল ফুটিয়ে নিন। ফুটে চাল ও পানি সমান হলে আলু ও পনির মিশিয়ে জাফরানের মিশ্রণ ঢেলে দিন। ঘি ও কাজুবাদাম ছড়িয়ে গ্যাসের আঁচ নিভিয়ে দিন। পাত্রের মুখ বন্ধ করে ঢাকনার ওপরে ভারী কিছু দিয়ে রেখে দিন।

 

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচ