ঢাকা, রোববার, ৩১ মে ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Bangla Insider

প্রতিদিন কি ব্যবহার করছি, তার ক্ষতিকর দিকগুলো জেনে নিন

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩ জানুয়ারি ২০২০ শুক্রবার, ০১:১৯ পিএম
প্রতিদিন কি ব্যবহার করছি, তার ক্ষতিকর দিকগুলো জেনে নিন

ঠান্ডার দিন। সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাতাসে বয়ে চলা হিমেল বাতাস। শীত এসে পড়েছে। আর শীত মানেই তো পিকনিকের মেজাজ, পাহাড়ে ঘুরতে যাওয়া, বাইরে গিয়ে সব্বাই মিলে মজা করা। এক আলাদাই আনন্দ। তবে তার আগে, এই সময়ে দাঁড়িয়ে পিকনিকে ব্যবহৃত জিনিসপত্র নিয়ে আমাদের কয়েকটি বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখা প্রয়োজন।

প্যাকেটজাত খাবার কিংবা পানীয়, এগুলো ছাড়া কি পিকনিক জমে? যখন আমরা স্টোরগুলিতে এ সব কিনতে যাই, তখন মাত্র কয়েকটি বিকল্পই আমাদের চোখে পড়ে- যেমন প্লাস্টিক, কাচ বা স্টিলের বোতল, অ্যালুমিনিয়ামের ক্যান, কাগজের ব্যাগ ইত্যাদি। এই প্রতিটি জিনিস পরিবেশের উপর কী ভাবে প্রভাব ফেলে, সে বিষয়টি কিন্তু বেশ জটিল। এর মধ্যে ওই প্যাকেজজাত দ্রব্যের উৎপাদন, উপকরণ, পরিবহণ, ওজন, পুর্নব্যবহারযোগ্যতা এবং শেষ অবস্থা- এই সমস্ত কিছু নির্ভর করে।

কোনও দোকানে গেলেই আমরা বিভিন্ন ধরনের প্যাকেজজাত খাবার বা পানীয় দেখতে পাই। কিন্তু এগুলি সেখানে আসে কী ভাবে। এ বার চোখ রাখা যাক, প্যাকেজজাত দ্রব্যগুলির উপরে। এগুলি তৈরি হয় কী ভাবে?

প্লাস্টিক

প্লাস্টিক উৎপাদন প্রক্রিয়া শুরু হয় তেল এবং প্রাকৃতিক গ্যাসের বর্জ্য দিয়ে। এই কাঁচামালগুলি ছোট ছোট টুকরোতে ভেঙে ফেলা হয়, যাকে বলা হয় মনোমার। এই মনোমারগুলি রাসায়নিক ভাবে একে অপরের সঙ্গে আবদ্ধ হয়ে দীর্ঘ একটি চেইন তৈরি করে। যেটিকে বলে পলিমার। এই পলিমারই হল প্লাস্টিক, যেগুলি বোতল বা প্যাকেজজাত দ্রব্য হিসেবে আমরা বাজারে দেখতে পাই।

গ্লাস:

তরল বালি, সোডা অ্যাশ (প্রাকৃতিক ভাবে তৈরি সোডিয়াম কার্বোনেট), চুনাপাথর, পুনর্ব্যবহৃত কাচ এবং বিভিন্ন যৌগ যোগ করে নতুন কাচ তৈরি করা হয়। এর পরে এগুলিকে বোতল আকারে বাজারে সরবরাহ করা হয়।

অ্যালুমিনিয়াম ক্যান:

অ্যালুমিনিয়াম ক্যানগুলি তৈরি হয় বক্সাইট নামে এক ধরনের খনিজ পদার্থ থেকে। শ্রমিকেরা খনি থেকে কাঁচা বক্সাইট উত্তোলন করেন যা জল দূষণ, মাটি ক্ষয় ইত্যাদির মতো পরিবেশের ক্ষতি করে।

ইনসুলেটেড স্টিল বোতল:

ছাঁচের মধ্যে, প্লাস্টিক রেজিনের ছোট ছোট বলকে উত্তপ্ত করে একটি পছন্দসই আকার দেওয়া হয়। যদি বাইরের মোড়কটি স্টেইনলেস স্টিল দিয়ে তৈরি হয়, তবে বাইরে থেকে স্টেইনলেস স্টিলের একটি পাত দিয়ে মুড়িয়ে দেওয়া হয়।

এগুলির পরিবহণ করা হয় কী ভাবে?

স্বল্প দূরত্বের ক্ষেত্রে প্লাস্টিক বোতলের পরিবহণ খরচ কম। প্লাস্টিক বোতল প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলি এমন ভাবে ডিজাইন তৈরি করে, যাতে এগুলিকে একসঙ্গে শক্ত ভাবে প্যাক করা যায়। এগুলি হালকা ওজনের, ফলে জ্বালানির খরচও কম হয়।

যেখানে কাচের বোতলগুলি বেশ ভারী এবং জ্বালানির খরচও বেশি হয়। কাচের বোতল ভঙ্গুর হওয়ার কারণে, প্লাস্টিক বা অ্যালুমিনিয়ামের মতো এগুলিকে পাশাপাশি, শক্ত ভাবে বেঁধেও রাখাও যায় না। ফলে বেশি জায়গার প্রয়োজন হয়।

অ্যালুমিনিয়াম ক্যানগুলি ছোট এবং হালকা হওয়ার ফলে একসঙ্গে একটি ছোট জায়গায় এঁটে যেতে পারে।

টেট্রা প্যাকগুলিও সাধারণত হালকা হয় এবং অন্যান্য প্যাকেজিং-এর তুলনায় কম জায়গা লাগে। কিন্তু আবারও টেট্রা প্যাক তৈরি করতে যে কাঠের প্রয়োজন হয় তা কিন্তু অরণ্য বিনাশের দিকই ইঙ্গিত করে।

তবে  অন্য দিকে, স্টেইনলেস স্টিল বা অন্য ধাতব বোতলগুলি ভারী হয় এবং পরিবহণের ক্ষেত্রে বেশি শক্তি এবং জায়গার প্রয়োজন হয়।

সব শেষে এগুলির ঠাঁই হয় কোথায়?

প্লাস্টিক

প্লাস্টিক বোতল ১০০ শতাংশ পুনর্ব্যবহারযোগ্য। প্লাস্টিক আসলে খারাপ নয়। বরং আমরা যে ভাবে প্লাস্টিক ব্যবহার করি, যে ভাবে এটি ব্যবহারের পরে ফেলে রাখি, তা পরিবেশের জন্য ক্ষতিকারক।

কাচ এবং স্টিল বোতল:

কাচের বোতল কিংবা ধাতব বোতলগুলি ১০০ শতাংশ পুনর্বব্যহারযোগ্য। প্রায় ৮০ শতাংশ কাচের বোতল বা পাত্র ভেঙে নতুন কাচের বোতল তৈরি করা হয়। এবং স্টিলের বোতলগুলি নিজেই পুনরায় ব্যবহারযোগ্য।

তবে সমস্যা হল, পুনর্ব্যবহারযোগ্য পানির বোতলগুলি থেকে একটি সময়ের পরে বায়োফিল্ম (এক ধরনের জীবাণু যার মধ্যে ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাক, ইত্যাদি থাকে) তৈরি হয়। বোতলগুলিকে প্রতি দিন ২০-৩০ মিনিট ধরে গরম পানিতে না ফোটালে তা সঠিক ভাবে পরিষ্কার হয় না। এই বোতলগুলিতে পরিষ্কার পানি ভরা হলেও বায়োফিল্মগুলি ওই পানিকে পুনরায় দূষিত করে কারণ পরিষ্কার পানিতে থাকে জৈব কার্বন ওই ব্যাকটেরিয়াদের খাদ্য। এর ফলে ডাইরিয়া, বমি, পেট খারাপ ইত্যাদির মতো রোগ দেখা যায়।

অ্যালুমিনিয়াম ক্যান:

অ্যালুমিনিয়ামের ক্যানগুলি কোনও সীমা ছাড়াই বার বার পুনর্ব্যবহার করা যায়। তবে, অ্যালুমিনিয়াম অ্যাসিডিক তরলগুলির সঙ্গে প্রতিক্রিয়াশীল। সুতরাং, অ্যালুমিনিয়ামের ক্যানগুলিকে একটি এনামেল বা ইপোক্সির প্রলেপ দিয়ে ঢেকে রাখা হয়, যা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে উঠে যায়।

টেট্রা ব্যাগ:

প্লাস্টিকের মতো টেট্রা ব্যাগও ১০০ শতাংশ পুনর্ব্যবহারযোগ্য। তবে দুর্ভাগ্যবশত, ৬০ শতাংশ টেট্রা ব্যাগই শেষ ভাগে ঠাঁই পায় মাটিতে। অক্সিজেনের অভাবে এগুলি প্রায় ১০ বছর থেকে কয়েকশো বছর অবধি মাটির সঙ্গে মিশে যেতে পারে না। কখনও কখনও এই ধরনের ব্যাগগুলির ওজন এবং আয়তন প্লাস্টিকের থেকে বেশি হওয়ার কারণে এগুলিকে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়ার খরচও প্লাস্টিকের থেকে অনেক বেশি হয়।


বাংলা ইনসাইডার/এমআরএইচ