ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০, ৩০ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

হোম অফিস কীভাবে করবেন

শাহরিনা হক
প্রকাশিত: ২৪ মার্চ ২০২০ মঙ্গলবার, ০৭:৫৭ এএম
হোম অফিস কীভাবে করবেন

করোনা আতঙ্কের মাঝে সারাবিশ্বে নতুন একটি ধারণা বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে, সেটি হলো হোম অফিস। এরই মধ্যে অনেক দেশেই যেমন যুক্তরাষ্ট্রের অনেক অঞ্চলেই হোম অফিসের ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। এই ব্যবস্থায় একজন কর্মী তার বাড়িতে থেকেই যাবতীয় অফিসিয়াল কর্মকাণ্ড চালাতে পারবেন। মূলত তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে বাড়িতে বসেই অনেকটা নির্বিঘ্নেই অফিসিয়াল কাজকর্ম চালিয়ে যাওয়া যায়।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া এবং ক্রমশ করোনা রোগী বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষিতে দেশেও হোম অফিসের বিষয়টি নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু হয় এবং অনেক প্রতিষ্ঠানেই এরই মধ্যে শুরু হয়েছে হোম অফিস।

অফিস টাইম মানে সেটা অফিস টাইম। আপনি একেবারে সময়মতো ঘুম থেকে উঠে মানসিক প্রস্তুতি নিয়ে বসে পড়বেন টেবিল চেয়ারে। মনোনিবেশ করবেন অফিসের কাজে। আর বাসায় পরিবারের সঙ্গে থাকছেন বিধায় যে শুয়ে বসে আড্ডার ফাঁকে অফিস করবেন, এটাও কিন্তু নয়।

অফিসে যে নির্দিষ্ট সময়ে আপনি কাজ করতেন, ঠিক সেই সময়টিই আপনি ল্যাপটপ বা কম্পিউটারের সামনে থাকবেন। এক্ষেত্রে আপনার যে যে জিনিসগুলো প্রয়োজন, সেগুলোরও ব্যবস্থা করে ফেলুন যত দ্রুত সম্ভব।

সবার আগেই আপনার কাছে একটি ল্যাপটপ, কম্পিউটার বা আইপ্যাড থাকতে হবে। তারপর সবসময়ের জন্য প্রয়োজন নিরবিচ্ছিন্ন ইন্টারনেট সংযোগ। আপনাকে ই-মেইলে সবসময় চোখ রাখতে হবে, স্কাইপে যোগাযোগ করতে হবে, হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জারে সবসময় সক্রিয় থাকতে হবে যাতে ভয়েস কল এবং ভিডিও কলে কথাবার্তা বলা যায়। আপনার কাজকর্মগুলোর যাবতীয় কিছু আপনার উর্ধ্বতম বা সহকর্মীর কাছ থেকে জেনেবুঝে নিন।

আপনার অফিস সময়ে কাজের অগ্রাধিকার ঠিক করুন। কোন কাজটি জরুরি সেটা আগেই সেরে ফেলুন। আজকের দিনে আপনার হাতে কি কি কাজ আসতে পারে তা বুঝে নিন ভালোভাবে।

কাজের ব্যাপারে কার কার সঙ্গে আপনাকে টেলিফোনে বা ই-মেইলে যোগাযোগ করতে হবে সেটা আপনি জানুন। আপনার সহকর্মীদের সঙ্গে সবসময় সংযুক্ত থাকুন যাতে সব কাজের ভালো সমন্বয় হয়।

আপনি স্বশরীরে যেভাবে উপস্থিত থেকে অফিস করতেন, হোম অফিসেও সেভাবে অফিস করুন। শুয়ে-বসে, আরামদায়ক আলস্যে অফিস না করে অফিসিয়াল একটা পরিবেশ তৈরি করে নিন। একটি নির্দিষ্ট চেয়ার-টেবিলের ব্যবস্থা করুন। পোশাক আশাকেও ফরমাল থাকার চেষ্টা করুন।

সবচেয়ে বড় কথা হলো, তথ্য আদান-প্রদান করা যায় এমন সমস্ত মাধ্যমগুলোর দিকে যতক্ষণ হোম অফিস করবেন, ততক্ষণ খেয়াল রাখবেন। মনে করবেন আমরা সবাই এখন সংকটে। অফিসিয়াল জরুরি কাজগুলোও উপেক্ষা করার মতো নয়। তাই হোম অফিসেও মন দিন।

এই হোম অফিসের কিছু সুবিধাও রয়েছে, আবার কিছু চ্যালেঞ্জও রয়েছে। সুবিধা হলো আপনি বাড়িতে বসেই স্বাচ্ছন্দ্যে অফিস করতে পারছেন। চ্যালেঞ্জও রয়েছে কিছু। সারাদিন পরিবারের মধ্যে থেকে, সবার মধ্যে যোগাযোগ বজায় রেখে অফিস করাটা বেশ কঠিন তো বটেই। তারপরেও সংকট বিবেচনায় এই হোম অফিসটাই আপনার জন্য হয়ে উঠুক স্বাচ্ছন্দ্যের।