ঢাকা, সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Bangla Insider

প্রেমের প্রস্তাব দিবেন যেভাবে

লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৮ জুন ২০২০ রবিবার, ১২:০১ পিএম
প্রেমের প্রস্তাব দিবেন যেভাবে

প্রেম ভালোবাসা নতুন কিছু নয়। বাঙালির রয়েছে দীর্ঘ প্রেম ভালবাসার ইতিহাস। এবং এই ইতিহাসে নজির করার রেকর্ডও রয়েছে। বিখ্যাত সঙ্গীত রচয়িতা অতুল প্রসাদ সেন তার মামাতো কিংবা ফুফাতো বোনের প্রেমে পড়ে। কিন্তু তৎকালীন উপমহাদেশে প্রচলিত হিন্দু বিবাহ রীতিতে রক্তের সম্পর্কে বিয়ের রীতি ছিল না। অতুল প্রসাদ সেনও থেমে যাওয়ার পাত্র নয়। তিনি তার প্রেমিকাকে নিয়ে ছুটলেন ব্রিটেনে। কিন্তু ইংল্যান্ডের তৎকালীন বিবাহ আইনেও এমন বিবাহ বৈধ ছিলো না। তাতেও হার মানলেন না। পরে তিনি খোঁজ নিয়ে জানতে পারলেন স্পেনের একটি আদিবাসী সমাজে এমন বিয়ে প্রচলিত রয়েছে। আর দেরি না করে সেখানে গিয়ে সেরে নিলেন বিয়ে। অত আগে এভাবেই রীতি প্রথার বিরুদ্ধে গিয়েও প্রেম ভালোবাসার অনন্য নজির স্থাপন করলেন তারা। কিন্তু এখনকার প্রেমিকদের দেখা যায় প্রেম প্রস্তাব দিতে গিয়ে উল্টো ঝামেলা বাধিয়ে ফেলে। তাই চলুন জেনে নেই প্রেম প্রস্তাব দেওয়ার শালীন ও ভদ্রোচিত উপায় সম্পর্কে।

বন্ধুত্ব তৈরি করা

প্রেম প্রস্তাব দেওয়ার জন্য অনেকেই নানা রকম হিরোইজম আচরণ করে থাকে। কেউ কেউ তো প্রেম প্রস্তাব দিতে গিয়ে ইভটিজিং এর দায়ে গণধোলাইও খায়। পরে আবার নতুন করে বেছে নেয় মাস্তানির পথ। কিন্তু এভাবে জীবনমরণ পণ না করে সবার আগে পছন্দের মেয়েটির সাথে বন্ধুত্ব করতে চেষ্টা করুন। তাকে সময় দিন।

অনুভূতি শেয়ার

বন্ধুত্ব তৈরির পর আপনারা নিজেদের ভালো মন্দ দিকগুলো জেনে নিন। এতে করে একজন আরেকজনকে বুঝতে একটু সুবিধা হবে। একে অপরকে ভালো করে চিনতে পারবেন। উভয়ের ভালো মন্দ দিকগুলো জানার পাশাপাশি রুচিবোধ ও আগ্রহের বিষয়েও জানতে পারবেন। এভাব নিজেদের মধ্যে আলোচনার একটি সাধারণ বিষয় খুঁজে বের করুন। নিজেদের ভালো লাগা মন্দ লাগা নিয়ে বিস্তর গল্প করুন।

টুকটাক উপহার

নিজের সামর্থ্যের মধ্যে টুকটাক ছোটখাট উপহার দিন। আশেপাশেই কোথাও ঘুরতে যান। একসাথে একটা দীর্ঘ সময় কাটান আস্থা ও বিশ্বাস তৈরি করেন একে অন্যের প্রতি। এতে করে যে জিনিসটা হবে তা হল, একে অপরকে ভালো করে বুঝতে পারবেন। একে অপরের জন্য কতটা দরকার বা আপনারা সঙ্গী হতে পারেন কিনা তা দেখতে পারবেন।

মনের কথা বলা

এভাবে একটা বন্ধুত্ব তৈরির পর একটা সময় নিজের মনে কথা খুলে বলুন। এতে জড়তার দরকার নেই। এমনভাবে বলুন যাতে করে সে এই সম্পর্কের গুরুত্বটা বুঝতে পারে। আর একটা বিষয় সবসময় খেয়াল রাখবেন, যদি বিপরীত দিক থেকে তেমন সাড়া বা ইতিবাচক রেসপন্স না পান। উত্তেজিত হওয়ার কিছু নেই, একটা জিনিস মনে রাখবেন, আপনি আপনার মনের মতো যোগ্য সঙ্গী হয়তো একটা সময় ঠিকই খুঁজে পাবেন। তাই প্রথমবারেই ভেঙে পড়ার দরকার নেই। দরকার নেই সবকিছু শেষ হয়ে গেছে ভেবে হৈ হুল্লোড় করা।

তাই মাস্তানি, হিরোইজম কিংবা ইভটিজিং ছেড়ে মনের মানুষকে কিংবা পছন্দের মানুষটিকে ভদ্র ও শালীনভাবে প্রেমের প্রস্তাব দিন। এতে করে নেতিবাচক নয় বরং ইতিবাচক সাড়া পাবার সম্ভাবনাই বেশি। সেইসাথে প্রেম না হলেও হয়তো বন্ধুত্ব গড়ে উঠবে। একটা জিনিস মনে রাখবেন, আপনার যেমন কাউকে পছন্দ হতে পারে। তেমনি ঐ মানুষটিরও হয়তো অন্য কেউ থাকে পারে। যাকে সে ভালোবাসে কিংবা মন থেকে পছন্দ করে।