ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

গ্রিন টির উপকারিতা

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ বুধবার, ০৮:১৯ এএম
গ্রিন টির উপকারিতা

চায়ের অনেক প্রকারভেদের মাঝে গ্রিন টি সারা বিশ্বে ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়। গ্রিন টি জনপ্রিয়তার পিছনে সবচেয়ে বড় কারণ এর ঔষধীয় গুণাবলি। অন্যান্য চায়ের তুলনায় এর ক্ষতিকর দিকের পরিমাণ খুবই কম বরং সারা বিশ্বে এটি নানা রোগের হাত থেকে বাঁচতে এবং শরীরকে সতেজ রাখতে ব্যাপক আকারে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তেঁতো স্বাদের কারণে অনেকেই পান করতে পছন্দ করেন না গ্রিন টি। তবে এর নানাবিধ গুণাবলির কারণে এর জনপ্রিয়তা এবং প্রচলন বাড়ছে। আগে এটি ওষুধ হিসাবে ব্যবহার হত। 

নানাবিধ অসুখ যেমন, হৃদরোগ, রক্তচাপ, ক্যান্সার, ত্বক সুন্দর ও চুল ধরে রাখতে, ওজন হ্রাসে এখন গ্রিন টির প্রচলন বৃদ্ধি পাচ্ছে। সকালে এক কাপ গ্রিন টি আপনার সারা দিনের কাজের চাপকে দূর করে শরীরকে চাঙ্গা রাখতে সহায়তা করবে। 

গ্রিন টি আনঅক্সিডাইজড পাতা থেকে তৈরি হয় এবং এই পাতা হলো সবচেয়ে কম প্রক্রিয়াজাত চায়ের মাঝে একটি। এই কারণে, এতে সর্বাধিক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং উপকারী পলিফেনল রয়েছে। এক জরিপে দেখা গেছে পৃথিবীতে মোট ব্যবহৃত চায়ের পরিমাণের প্রায় ২০ শতাংশই গ্রিন টি। হাজার হাজার বছর ধরে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এবং আয়ুর্বেদ চিকিৎসাবিদ্যায় চীন এবং জাপানের অধিবাসীরা গ্রিন টি ব্যবহার করে আসছেন। 

১. গ্রিন টি রক্তের গ্লুকোজ-এর মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। খাওয়ার পরে রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যায়। রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে গ্রিন টি প্রত্যক্ষ ভাবে সাহায্য করে। তাই এটি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে খুবই কার্যকরী।

২. দাঁত ভালো রাখতে হলে গ্রিন টি খেতে পারেন। কারণ, গ্রিন টি’র ‘ক্যাটেকাইন’ নামক অ্যান্টি অক্সিডেন্ট মুখের ভিতরের ব্যাকটেরিয়াকে বাড়তে দেয় না। যার ফলে গলার সংক্রমণ-সহ দাঁতের বিভিন্ন সমস্যা কমিয়ে আনতে সাহায্য করে। নিয়মিত গ্রিন টি খেলে তা মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

৩. গ্রিন টির সবথেকে বড় গুণ হল এটি যেকোনো ধরনের ক্যানসার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে এবং শরীরে ক্যানসার কে ছড়িয়ে পড়তে বাঁধা দেয়। যেমন স্কিন ক্যানসার, ব্রেস্ট ক্যানসার, লিভার ক্যানসার, প্রস্টেট ক্যানসার ইত্যাদি যেকোনো ক্যানসার প্রতিরোধ করতে পারে। এতে আছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আর মিনারেলস যা শরীরকে সতেজ ও সুস্থ রাখে ।

৪. আমরা প্রায় সবাই অতিরিক্ত ওজনের সমস্যায় কখনো না কখনো ভুগেছি । আর এই অতিরিক্ত ওজন কমাতে এর জুড়ি মেলাভার। শরীরের বিভিন্ন অংশের অতিরিক্ত মেদ ঝরিয়ে দেয় গ্রিন টি।

৫. গ্রিন টির আরেকটি অসাধারণ গুণ হল এটি আমদের ব্রেনে রক্ত সঞ্চালনকে ঠিক রাখে। তারফলে ব্রেন দ্রুত এবং ঠিকঠাক কাজ করে।

৬. অবসাদ বা ডিপ্রেশন দূর করতে গ্রিন টি খুবই কার্যকরী। চা পাতায় ‘থিয়ানিন’ নামের অ্যামাইনো এসিড থাকে। এই উপাদান অবসাদ কমাতে সাহায্য করে। তাই নিয়মিত গ্রিন টি পান করলে অবসাদ থেকে দ্রুত মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

৭. গ্রিন টি ত্বক ও চুল কে সুন্দর রাখতেও ভীষণ ভাবে উপকারী। তার সঙ্গে ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা যেমন ব্রন, ফাটা ত্বকের সমস্যা এছাড়াও খুশকির মতো কঠিন সমস্যা থেকে মুক্তি দেয় এই গ্রিন টি। এটি ত্বক ও চুলকে ভেতর থেকে উজ্জ্বল করে।

৮. জাপানে হওয়া একটি বৈজ্ঞানিক গবেষণার তথ্য অনুযায়ী, যারা তাদের খাদ্যতালিকায় দৈনিক গ্রিন টি রাখেন, তাদের মাঝে টাইপ টু ডায়াবেটিস হবার সম্ভাবনা প্রায় ৪২% কম।