লিট ইনসাইড

ভাস্কর চৌধুরী'র প্রেমের কবিতা

প্রকাশ: ১২:০৪ পিএম, ০৫ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail ভাস্কর চৌধুরী'র প্রেমের কবিতা

ভালোবাসা

তোমাকে ভালোবাসতে আমার ভালো লাগে

তাই আমি তোমাকে ভালোবাসি।

এ আমার একার ব্যাপার।


না গেলে ফিরে আসা হয় না কখনো

ফেরার অর্থ আগে যাওয়া।

আমি তাই তোমার কাছে যাই

যাই বলেই ফেরার কাল ঘটে।


জলের সূত্র ছাড়াও জল চোখে থাকে।

তোমাকে পাবার আগে বাসনায় তুমি থাকো।


কারণ অকারণ

অকারণে ঘুঘু ডাকে

ক্যানো ডাকে তাকে জিজ্ঞেস কোরো না।


অকারণেই কারণ ঘটে

কেউ কারণের কারণ খুঁজে যদি

মানুষের ক্ষেত্রে বোকামি।


অকারণে বৃষ্টি হলো আজ

হিমেল বাতাস।


তুমি অকারণ এদিকে তাকালে।

আমার ভালো বোধ হলো।

 


কবি ভাস্কর চৌধুরী। বরেন্দ্রের “লাল মাটি কালো মানুষ” আর গ্রামীণ পরিবেশে বেড়ে ওঠার কারণে তার ভেতরের জীবনদর্শন, ভাবনার দীপশিখা ও সাহিত্যকর্মের বিশাল অংশজুড়ে রয়েছে বরেন্দ্র মাটি ও মানুষের শত বছরের উপকথাবহুল জীবনযাপন ও আদিবাসী সংস্কৃতি। 


আলোকচিত্রী: অরুণাভ বিলে 


ভাস্কর চৌধুরী   কবিতা   প্রেম   শিল্প   সাহিত্য  


মন্তব্য করুন


লিট ইনসাইড

বঙ্গমাতা

প্রকাশ: ০৬:৩৬ পিএম, ০৮ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail বঙ্গমাতা




মন্তব্য করুন


লিট ইনসাইড

‘দুপুরের রবি পড়িয়াছে ঢলে অস্ত-পথের কোলে’


Thumbnail ‘দুপুরের রবি পড়িয়াছে ঢলে অস্ত-পথের কোলে’

‘দুপুরের রবি পড়িয়াছে ঢলে অস্ত-পথের কোলে
বাংলার কবি শ্যাম বাংলার হৃদয়ের ছবি তুমি চলে যাবে বলে
শ্রাবণের মেঘ ছুটে এলো দলে দলে।’

রবি ঠাকুরের প্রয়াণের খবর পেয়ে, ঠিক এইভাবেই তাঁকে শ্রদ্ধা জানিয়েছিলেন কবি কাজী নজরুল ইসলাম।

আজ ২২শে শ্রাবণ। নোবেলজয়ী বিশ্বকবি কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ৮১তম প্রয়াণ দিবস। মহাকালের চেনা পথ ধরে প্রতি বছর ২২শে শ্রাবণ আসে। এই ২২শে শ্রাবণ বিশ্বব্যাপী রবীন্দ্রনাথ ভক্তদের কাছে একটি শোকের দিন।

১৯৪১ সালের ৬ আগস্ট, ১৩৪৮ বঙ্গাব্দের ২২ শ্রাবণ কলকাতার জোড়াসাঁকোর ঠাকুরবাড়িতে ৮০ বছর বয়সে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর পরলোকগমন করেন। প্রবল অনুরাগ ও অকুণ্ঠ শ্রদ্ধার আসনে অধিষ্ঠিত রবীন্দ্রনাথ বাঙালির প্রাণের মানুষ। যত দিন যাচ্ছে, রবীন্দ্রদর্শন উজ্জ্বল থেকে উজ্জ্বলতর হচ্ছে মানুষের মননে-মস্তিষ্কে আর জীবনাচারে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এক জীবনে সাহিত্যের এমন বিচিত্র এক জগৎ রচনা করেছেন, যা বাংলা ভাষাকে সমৃদ্ধ করার পাশাপাশি বিশ্বসাহিত্যের আসর করেছে মহিমান্বিত। তিনি যেখানে হাত দিয়েছেন সেখানেই ফলেছে রাশি রাশি সোনা। কবিতা, গল্প, উপন্যাস, নাটক, প্রবন্ধ, সংগীত, ভ্রমণ কাহিনী, চিঠিপত্র, সমালোচনা, চিত্রকলা সমৃদ্ধ হয়েছে তার অজস্র অনন্য সৃষ্টিতে।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরমাত্র ৮ বছর বয়সে তিনি কবিতা লেখা শুরু করেন। ১৮৭৪ সালে ‘তত্ত্ববোধিনী পত্রিকা’য় তার প্রথম লেখা কবিতা ‘অভিলাষ’ প্রকাশিত হয়। অসাধারণ সৃষ্টিশীল লেখক ও সাহিত্যিক হিসেবে সমসাময়িক বিশ্বে তিনি খ্যাতিলাভ করেন। লিখেছেন বাংলা ও ইংরেজি ভাষায়। বিশ্বের বিভিন্ন ভাষায় তার সাহিত্যকর্ম অনুদিত হয়েছে। বিভিন্ন দেশের পাঠ্যসূচিতে তার লেখা সংযোজিত হয়েছে। ১৮৭৮ সালে তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘কবি কাহিনী’ প্রকাশিত হয়। এ সময় থেকেই তার বিভিন্ন ঘরানার লেখা দেশ-বিদেশে পত্র-পত্রিকায় প্রকাশ পেতে থাকে। ১৯১০ সালে প্রকাশিত হয় তার কাব্যগ্রন্থ ‘গীতাঞ্জলী’। এই কাব্যগ্রন্থের জন্য ১৯১৩ সালে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন তিনি।

১৯০১ সালে শিলাইদহ থেকে সপরিবারে কবি বোলপুরে শান্তি নিকেতনে চলে যান। ১৯০৫ সালে বঙ্গভঙ্গ বিরোধী আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন। ১৯২১ সালে গ্রামোন্নয়নের জন্য ‘শ্রীনিকেতন’ নামে একটি সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯২৩ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে ‘বিশ্বভারতী’ প্রতিষ্ঠিত হয়। এখানে জমিদার বাড়িতে তিনি অসংখ্য কবিতা ও গান রচনা করেন।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রকাশিত মৌলিক কবিতাগ্রন্থ হচ্ছে ৫২টি, উপন্যাস ১৩, ছোটগল্প’র বই ৯৫টি, প্রবন্ধ ও গদ্যগ্রন্থ ৩৬টি, নাটকের বই ৩৮টি। কবির মৃত্যুর পর ৩৬ খণ্ডে ‘রবীন্দ্র রচনাবলী ’ প্রকাশ পায়। এ ছাড়া ১৯ খণ্ডের রয়েছে ‘রবীন্দ্র চিঠিপত্র।’ ১৯২৮ থেকে ১৯৩৯ পর্যন্ত কবির আঁকা চিত্রকর্ম’র সংখ্যা আড়াই হাজারেরও বেশি। এর মধ্যে এক হাজার ৫৭৪টি চিত্রকর্ম শান্তিনিকেতনের রবীন্দ্রভবনে সংরক্ষিত আছে। কবির প্রথম চিত্র প্রদর্শনী দক্ষিণ ফ্রান্সের শিল্পীদের উদ্যোগে ১৯২৬ সালে প্যারিসের পিগাল আর্ট গ্যালারিতে অনুষ্ঠিত হয়।

রবি ঠাকুর   রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর   প্রয়াণ দিবস  


মন্তব্য করুন


লিট ইনসাইড

অভাগা বাঙ্গালি

প্রকাশ: ০৪:০৯ পিএম, ০৩ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail




মন্তব্য করুন