কালার ইনসাইড

‘প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন বাঙ্গালি নারীদের অনুপ্রেরণার নাম’

প্রকাশ: ০৭:০২ পিএম, ২২ জুন, ২০২২


Thumbnail ‘প্রধানমন্ত্রী হচ্ছে বাঙ্গালি নারীদের অনুপ্রেরণার নাম’

বহুল প্রতীক্ষিত স্বপ্নের পদ্মা সেতু আগামী ২৫ জুন সকাল ১০ টায় উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পদ্মা নদীর নামেই এই সেতুর নামকরণ করা হয়েছে। পদ্মা সেতুকে ঘিরে সবার মাঝেই একধরণের আনন্দ-উৎসব বিরাজ করছে। দেশের সাধারণ জনগণের মতো পদ্মা সেতু নিয়ে উচ্ছ্বাসিত শোবিজ তারকারাও। স্বপ্নযাত্রার শুভক্ষণে শোবিজ তারকাদের অনুভূতি বাংলা ইনসাইডারের এই আয়োজনে কথা হয়েছে চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ও নির্মাতা অরুণা বিশাসের। 

অরুণা বিশাস বলেন,পদ্মা সেতু আমাদের সেতু, আমাদের আত্মমর্যাদার সেতু, বাঙ্গালির মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার সেতু। সারা বিশ্বের মানুষ আজ দেখছে, বুঝছে পদ্মা সেতু আমাদের পৃথিবীর বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে শিখিয়েছে।আমাদের জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর বাঙালির যে আত্মমর্যাদা তৈরি করে দিয়েছিলেন সবার সামনে তাঁর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেখিয়েছেন মাথা কিভাবে উঁচু করে দাঁড়াতে হয়।

তিনি আরও বলেন, বাঙালির অভিধানে পারি না, পারবো না এমনটি আর কোনদিন কেউ শুনবে না, দেখবে না। পৃথিবীতে বাঙ্গালিরা যত দিন থাকবে তত দিন প্রধানমন্ত্রীর নাম স্বর্ণাক্ষরে লিখা থাকবে। বিশেষ করে মেয়েরা আজকে যে সাহসী হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি তিনি হচ্ছে বাঙ্গালি নারীদের অনুপ্রেরণার নাম। 

উল্লেখ্য, সেতুর অভাবে এত বছর দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে বড় কোনো শিল্পকারখানা গড়ে ওঠেনি। জীবন-জীবিকার তাগিদে ঢাকামুখী স্রোত ছিল সেখানকার মানুষের। পর্যটন খাতও বেশ পিছিয়ে আছে। পদ্মা সেতু চালুর মধ্য দিয়ে দক্ষিণ উপকূলের কৃষি, পর্যটন ও শিল্প বিকাশের অবারিত সম্ভাবনা দেখছেন এ অঞ্চলের মানুষ। যোগাযোগের ব্যবস্থা সহজ হওয়ায় সুফল মিলবে সামগ্রিক অর্থনীতি ও মানুষের জীবনযাত্রায়।





মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

ঢাকাই সিনেমায় নয়া ভিলেনের কেতন

প্রকাশ: ১০:০০ পিএম, ১৯ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail ঢাকাই সিনেমায় নয়া ভিলেনের কেতন

চলচ্চিত্রে একজন খলনায়ক অভিনেতা একজন নায়ক বা নায়িকাদের চেয়ে কোন অংশে কম নয়। শুধু বাংলাদেশের সিনেমাতেই নয়, বিশ্বের সব ধরণের ভাষার চলচ্চিত্রের একটা বড় অংশ জুড়ে থাকে খলনায়কের অভিনয়। ঢালিউডের  সূচনালগ্ন থেকে বাংলা সিনেমায় খলনায়কদের খুব গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে দেখা হতো। কিন্তু নির্মম সত্য যে বেশ লম্বা সময় ঢাকাই সিনেমাতে আর তেমন ভালো মানের খলনায়ক দেখা যায় না।

হুমায়ুন ফরিদী, রাজীব,নাসির খান,মিজু আহমেদ, খলিল, এটিএম শামসুজ্জামান, আহমেদ শরীফ, সাদেক বাচ্চু,  ডিপজল,মিশা সওদাগর, যারা একটা লম্বা সময় চলচ্চিত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। তবে তাদের মাঝে আজ অনেকেই পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে চলে গিয়েছেন। হাতে গোনা কয়েকজন চলচ্চিত্রকে টেনে নিয়ে যাচ্ছিলেন অনেক দিন ধরে।  তিন দশক ধরে মিশা সওদাগর, ডনসহ আরও কয়েকজনকে খল চরিত্রে অভিনয়ে দেখা গেলেও ইদানীং নতুন কয়েকজন খল চরিত্রে ভালো করছেন।

রাশেদ মামুন অপু

সিনেমা কিংবা ওয়েব কনটেন্টে নতুন খল অভিনেতা হিসেবে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন রাশেদ অপু। ‘নবাব এলএলবি’তে প্রথম তাঁকে খল চরিত্রে দেখা গেছে। এর পর ‘জানোয়ার’, ‘দামাল’, ‘কসাই’, ‘অমানুষ’ ছবিতে তিনি খল চরিত্রে নজর কাড়েন। তাঁর অভিনীত আরও আট থেকে দশটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। এখন নেতিবাচক চরিত্রে নির্মাতাদের ভরসার নাম তিনি। অভিনয়ের প্রথম দিকে আঞ্চলিক ভাষায় কমেডি চরিত্রে দর্শকদের হাসির খোরাক জুগিয়েছেন। এখন পর্দায় ‘খারাপ মানুষ’ হয়ে প্রশংসা কুড়াচ্ছেন। খল চরিত্রে অভিনয় বেশ উপভোগ করেন বলেই জানালেন তিনি। এ ধরনের চরিত্রে বৈচিত্র্য বেশি, দর্শকের প্রতিক্রিয়াও ভালো। তাই তিনিও বেশ আশাবাদী। ভিলেনদের দর্শকেরা যে জায়গা থেকে দেখে এসেছেন, সেখানে নতুন কিছু করে তাঁদের মনে জায়গা করে নেওয়া কঠিন বলেও মনে করছেন অপু। তিনি বলেন, ‘নতুনত্ব আনার চেষ্টা করছি। দীর্ঘদিন নাটকে পার্শ্ব অভিনেতার চরিত্র করেছি। যখন “নবাব এলএলবি” সিনেমায় প্রধান খল চরিত্রে সুযোগ পেলাম, অভিনয় করলাম, মনে হলো, এটাই আমার জায়গা।’

নাসির উদ্দিন খান

ওয়েব কনটেন্টের কল্যাণে নাসির উদ্দিন খান এখন পরিচিত মুখ। চট্টগ্রামের তীর্যক নাট্যগোষ্ঠীর সদস্য নাসির মঞ্চনাটকেই কাটিয়ে দিয়েছেন জীবনের বেশির ভাগ সময়। একসময় চাকরি করেছেন। কিন্তু অভিনয়ের ধ্যান তাঁকে এতটাই আচ্ছন্ন করে রেখেছিল, চাকরি ছেড়ে চলে আসেন ঢাকায়। চট্টগ্রামে থাকা অবস্থায় ২০১৪ সালে ওয়াহিদ তারিকের ‘আলগা নোঙর’ সিনেমায় অভিনয় করেন, আর দুটি টিভি নাটক ও পাঁচ-ছয়টি টেলিফিল্ম। ঢাকায় এসে ধীরে ধীরে নাসিরের ব্যস্ততা বাড়তে থাকে। ‘মহানগর’ ওয়েব সিরিজে অভিনয় করে পরিচিতি পান। এরপর নেতিবাচক চরিত্রে বড় চমক দেখান ‘বলি’ সিরিজে। ঈদে মুক্তি পাওয়া ‘পরাণ’ ও মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘হাওয়া’ সিনেমায়ও আছেন তিনি। শান্ত অথচ ভীষণ নিষ্ঠুর—দেশের শোবিজে খল চরিত্রে অন্য মাত্রা যোগ করেছেন নাসির।

সুমন আনোয়ার

টিভি নাটক নির্মাণ করে পরিচিতি পেয়েছেন সুমন আনোয়ার। তবে তাঁর শুরুটা হয়েছিল মঞ্চে অভিনেতা হিসেবে। পরবর্তী সময়ে কিছু টিভি নাটকেও অভিনয় করেন। নির্মাতা হিসেবে ব্যস্ত হওয়ায় অভিনয়ে আর পাওয়া যায়নি সুমন আনোয়ারকে। ইদানীং আবারও অভিনয়ে সরব হয়েছেন সুমন। বিশেষ করে খল চরিত্রে প্রশংসা পাচ্ছে তাঁর অভিনয়। রায়হান রাফীর ওয়েব ফিল্ম ‘খাঁচার ভেতর অচিন পাখি’ ও ‘সাত নাম্বার ফ্লোর’ সিরিজ ছাড়াও সুমন আনোয়ার দেখা দিয়েছেন সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া ‘কাইজার’ সিরিজে। মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘হাওয়া’ সিনেমায়ও গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে আছেন তিনি। নেতিবাচক চরিত্রে তাঁর স্বতঃস্ফূর্ত অভিনয় দর্শকদের প্রশংসা পাচ্ছে।

শাহেদ আলী

মঞ্চ, টিভি নাটক ও চলচ্চিত্রে দীর্ঘদিন ধরে অভিনয় করছেন শাহেদ আলী। চিত্রনাট্যে খানিকটা অন্য রকম চরিত্র এলেই নির্মাতারা খোঁজেন তাঁকে। দীর্ঘ অভিনয়জীবনে অনেক ধরনের চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাহেদ আলী। পেয়েছেন প্রশংসা। তবে গত কয়েক বছর তিনি আরও ব্যাপকভাবে পরিচিতি পেয়েছেন নেতিবাচক চরিত্রে অভিনয় করে। ‘মহানগর’, ‘দৌড়’ ও ‘রিফিউজি’ ওয়েব সিরিজগুলোতে তাঁর অনবদ্য অভিনয়ের প্রমাণ পাওয়া যায়। এ ছাড়া শাহেদ আলী নেতিবাচক চরিত্রে কাজ করেছেন ‘এবার তোরা মানুষ হ’, ‘চিৎকার’, ‘প্যারাসাইকোলজি’, ‘অমানুষ’, ‘পাষাণ’ ও ‘কালের পুতুল’ সিনেমায়। ‘পুনর্জন্ম’সহ অনেক নাটকেও এ ধরনের চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। শাহেদ আলী বলেন, সব ধরনের চরিত্রে তো সব সময় কাজ করার সুযোগ হয় না। ডিফরেন্ট কোনো ক্যারেক্টর হলে নির্মাতারা আমাকে ডাকেন। ডার্ক শেড বা অলটারনেটিভ চরিত্রের মধ্য দিয়ে নিজেকে ভাঙার সুযোগ হয়। এটা বেশ এনজয় করি।

ফারহান খান রিও

মডেলিংয়ের মাধ্যমে শোবিজে ক্যারিয়ার শুরু করেন রিও। অভিনয় করেছেন মিউজিক ভিডিও ও টিভি নাটকে। অনন্য মামুনের পরিচালনায় ‘কসাই’ সিনেমায় খল চরিত্রে প্রথম দেখা যায় রিওকে। এরপর তিনি অভিনয় করেন একই নির্মাতার ‘অমানুষ’ ও ‘সাইকো’ সিনেমায়। দরাজ কণ্ঠস্বর ও স্বতঃস্ফূর্ত পর্দা উপস্থিতির কারণে তরুণ ভিলেন হিসেবে প্রশংসা পাচ্ছেন রিও। তিনি নিজেও চান ভার্সেটাইল অভিনেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে। ঈদে মুক্তি পাওয়া ‘সাইকো’ সিনেমায় তাঁর অনবদ্য পারফরম্যান্স দর্শকদের মন জয় করেছে। নির্মাতারাও নতুন করে ভাবছেন রিওকে নিয়ে।

রোজী সিদ্দিকী

ঢাকাই সিনেমায় পুরুষদের পাশাপাশি ছিল নারী ভিলেনদেরও আধিপত্য। রওশন জামিল, মায়া হাজারিকা, সুমিতা দেবী, রিনা খান কিংবা শবনম পারভীন—একসময় পর্দায় ছিলেন মূর্তিমান আতঙ্কের নাম। এখন বাংলা সিনেমার গল্পের নারী ভিলেনরা অনেকটাই নিষ্প্রভ। তবে এ ধরনের চরিত্রে অভিনয় করে সম্প্রতি তাক লাগিয়েছেন রোজী সিদ্দিকী। ঈদে মুক্তি পাওয়া ‘পরাণ’ ও ‘সাইকো’ সিনেমায় প্রশংসিত হচ্ছে তাঁর অভিনয়। রোজী সিদ্দিকী বলেন, খল চরিত্রে আরও বেশি কাজ করতে চাই। ৩২ বছর ধরে অভিনয় করছি। আমার মনে হয়, খল ও কমেডি চরিত্রের মতো কঠিন অভিনয় আর হয় না।

খান সীমান্ত

‘নবাব এলএলবি’র খল চরিত্রে অভিনয় করে নজর কাড়েন এল আর খান সীমান্ত। ছিলেন মডেল। কিন্তু টার্গেট ছিল সিনেমা, চেয়েছিলেন ভিলেন হতে। ইচ্ছা পূরণ হয়েছে। অনন্য মামুনের ‘সাইকো’তেও তাঁকে খল চরিত্রে দেখা গেছে। তাঁকে খল চরিত্রে দারুণ মানায় বলে মনে করছেন তাঁর সঙ্গে কাজ পরিচালকেরা। সীমান্ত সময়ের ব্যস্ততম খল অভিনেতাদের একজন। মুক্তির অপেক্ষায় আছে তাঁর ছবি ‘আনন্দ অশ্রু’, ‘ক্যাসিনো’, ‘লিডার: আমিই বাংলাদেশ’, ‘রিভেঞ্জ’, ‘মাসুদ রানা’ ইত্যাদি। সীমান্ত বললেন, ‘সব কটি ছবিতে নেগেটিভ চরিত্রে কাজ করেছি। শুরু থেকেই ভিলেন চরিত্র টানত। অনেক আগে একটা নাটকে কাজ করেছি। সেখানেও নেগেটিভ চরিত্র ছিল। ছোটবেলা থেকে সিনেমা দেখলে নেগেটিভ চরিত্রগুলো বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে হতো। তাই খল চরিত্রে অভিনয় করে আনন্দ পাচ্ছি।


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

‘এফডিসি'র শ্রদ্ধেয় নেতারা,আপনারা কোথায়?’

প্রকাশ: ০৬:৫৭ পিএম, ১৯ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail ‘এফডিসি'র শ্রদ্ধেয় নেতারা,আপনার কোথায়?’

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএফডিসি) ভেতর থেকে অভিনেত্রী অরুণা বিশ্বাসের ব্যাগ চুরি হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) এফডিসির ৭ নাম্বার ফ্লোরে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে নিজের ব্যাগ খোয়ান এই অভিনেত্রী। শুক্রবার (১৯ আগস্ট) সকালে নিজের ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে এমন অভিযোগ করেন তিনি।

অরুণা বিশ্বাস জানান, চুরি হওয়া ব্যাগের ভেতের ছিল, আইফোন ১১, স্যামসাং এ৭৫ মডেলের আরেকটি মুঠোফোন, ক্রেডিট কার্ড, ডেবিট কার্ড, জাতীয় পরিচয়পত্র, ঘরের চাবিসহ গুরুত্বপুর্ণ জিনিস। এফডিসির ভেতরে বসানো সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে কর্মকর্তারা তার ব্যাগ উদ্ধারের চেষ্টা করছেন বলেও জানান তিনি।

এদিকে এত সময় পার হয়ে গেলেও এফডিসির নেতারা কেনো চুপ আছেন তা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অরুণা বিশ্বাস। তিনি তার ফেসবুকে শুক্রবার সন্ধ্যায় একটি স্ট্যাটাসে লিখেন, আমাদের এফ,ডি,সি এর শ্রদ্ধেয় নেতারা,আপনার কোথায়? আপনাদের সহকর্মীর এতোবড় ক্ষতি হয়ে গেলো,আপনারা জানার পরোও এখনো কেউ আমাকে কল করে জানতে চান নি। আমি কি অবস্থায় আছি? অথচ ভক্ত অনুরাগী,বন্ধু বান্ধব, সাংবাদিক,পরিবারের আত্মীয় স্বজন সবাই জিজ্ঞাসা করছে। মনের সংকীর্নতার উপরে উঠুন,শিল্পী হয়ে শিল্পীর পাশে দাঁড়ান। মানবতাও ধর্ম। সহমর্মিতা জানালে বড়ই হবেন, ছোট হবেন না।

এফডিসির ভেতরে ইউটিউবার ও সাধারণ মানুষের অবাধ বিচরণ বেড়েছে।এফডিসিতে কারা প্রবেশ করছে,কাদের সহায়তায় ঢুকছে এসব তদারকি প্রয়োজন। নাহলে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা আরো ঘটতে পারে বলে মনে করেন অরুণা বিশ্বাস।

এফডিসি   অরুণা বিশ্বাস  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

আমির-অক্ষয়কে পেছনে ফেলে রাজত্ব করছে ‘কার্তিকেয়া ২’

প্রকাশ: ০৬:৫২ পিএম, ১৯ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail আমির-অক্ষয়কে পেছনে ফেলে রাজত্ব করছে ‘কার্তিকেয়া ২’

আমির খান অভিনীত ‘লাল সিং চাড্ডা’ এবং অক্ষয় কুমার অভিনীত ‘রক্ষা বন্ধন’ বক্স অফিসে ঝড় তুলে নেবে বলে আশা করা হলেও দুর্ভাগ্যবশত তা ঘটেনি এবং দুটি সিনেমাই বক্স অফিসে বিপর্যয়ের মুখে পড়ে। তবে ভারতের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিকে অবাক করে দিয়ে একটি তেলুগু সিনেমা ব্যাপক সাড়া ফেলেছে বলিউড মার্কেটে।  

টলিউডের নিখিল সিদ্ধার্থের ‘কার্তিকেয়া ২’ বক্স অফিসে পেছনে ফেলে দিয়েছে ‘লাল সিং চাড্ডা’ এবং ‘রক্ষা বন্ধন’-এর মতো সিনেমাকে। নিখিল সিদ্ধার্থ, অনুপমা পরমেশ্বরন এবং বিখ্যাত বলিউড অভিনেতা অনুপম খের অভিনীত তেলুগু সিনেমা ‘কার্তিকেয়া-২’ তেলুগু রাজ্যে ভালো ব্যবসার পর হিন্দি সংস্করণেও বিপুল পরিমাণে সাড়া পেয়েছে।

চলচ্চিত্র বাণিজ্য বিশ্লেষকদের মতে, প্রথম দিন থেকেই ‘কার্তিকেয়-২’ সিনেমার শোয়ের সংখ্যা বাড়ছে। প্রথম দিনে শোয়ের সংখ্যা ছিল ৫৩টি, দ্বিতীয় দিনে এটি ১৮১টি, তৃতীয় দিনে এটি ৭১১টি, চতুর্থ দিনে এটি ছিল ১২২৮টি এবং একক পর্দায় শোগুলোর সংখ্যা ১৫৭৫টি পর্যন্ত বেড়েছে। উত্তর ভারতে বেড়েই চলেছে সিনেমাটির শোয়ের সংখ্যা।

সিনেমাটি মূলত ভগবান কৃষ্ণের দর্শনের ওপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছিল। দ্বারকা এবং মথুরারও উল্লেখ রয়েছে সেখানে। ভগবান কৃষ্ণ তাঁর জীবনের বেশির ভাগ সময় ছিলেন উত্তরে, ফলে উত্তরের দর্শকদের কাছে এটি ভীষণ চেনা গল্প। আসন্ন শ্রীকৃষ্ণ জন্মাষ্টমীর দিন সিনেমাটি বক্স অফিসে আরো বেশি অর্থ উপার্জন করতে পারে বলে ধারণা সিনেমা বিশ্লেষকদের।

হিন্দি সংস্করণে ‘কার্তিকেয়-২’ মুক্তির প্রথম দিনে সাত লাখ টাকা অর্জন করেছে। এটি দ্বিতীয় দিনে ২৮ লাখ টাকা সংগ্রহ করেছে। তৃতীয় দিনে ১.১০ কোটি এবং চতুর্থ দিনে এক কোটি টাকা। এ ছাড়া হিন্দি মার্কেটে মুক্তির পর ছয় দিন শেষে ভারতে এই সিনেমাটির মোট সংগ্রহ ৩৪ কোটি রুপিতে গিয়ে দাঁড়িয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘কার্তিকেয়া’ সিনেমাটি। দীর্ঘ আট বছর পর ২০২২ সালে মুক্তি পেল সিনেমাটির দ্বিতীয় পর্ব। প্রথম পর্বের মতো দ্বিতীয় পর্বেও সাফল্য ধরে রেখেছে সিনেমাটি। বলিউডের বড় বড় বিশ্লেষক ও অভিনেতারা সবাই মিলে অবাক হয়ে উঠতি নায়কের এই তেলুগু সিনেমার সফলতা দেখছেন! 


আমির   অক্ষয়   লাল সিং চাড্ডা   রক্ষা বন্ধন  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

জহির খানের নাটকে গান গাইলেন আমিনুল ইসলাম

প্রকাশ: ০৬:০৪ পিএম, ১৯ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail জহির খানের নাটকে গান গাইলেন আমিনুল ইসলাম

দর্শকপ্রিয় নাটকের নির্মাতা জহির খান। এবার মৌসুমী হামিদ ও এফ এস নাঈমকে জুটি করে তিনি নির্মাণ করেছেন একক নাটক  ‘কবি’। এই নাটকে একটি গান রয়েছে। গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন দর্শকপ্রিয় গায়ক আমিনুল ইসলাম।  

নির্মাতা জানান,গানটি নাটকের গল্পের সঙ্গে প্রাসঙ্গিক। এটি প্রকাশের পর শ্রোতা-দর্শকদের ভালো লাগবে বলেই আশা করছি। 

'তুমি তুমি ছাড়া' শিরোনামের গানটি লিখেছেন সোমেশ্বর অলি। গানটি নিয়ে আশাবাদী শিল্পী আমিনুল ইসলাম । তিনি বলেন, ভীষণ ভালো লাগছে জহির খানের পরিচালনায় একক নাটক ‘কবি’-এ নিজের কণ্ঠ ভাগ করে নিতে পেরে। আশা করি, গানটি প্রকাশ হলে সবার ভালো লাগবে। 

আজম খান এর রচনায় জহির খানের নাটকটি শুক্রবার  (১৯ আগস্ট ) রাত ৯.৩০ মিনিটে এনটিভির পর্দায় প্রচার হবে। 

নাটকটিতে আরও অভিনয় করেছেন আহসান হাবিব নাসিম , আহমেদ জিসান, জহির খান, সোহেল খান, তন্ময়া তানিয়া, লামিয়া লিপা প্রমুখ। 

গান   নাটক   মৌসুমী হামিদ  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

নতুন লুকে ধরা দিলেন ভাইজান

প্রকাশ: ০৫:৫৩ পিএম, ১৯ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail নতুন লুকে ধরা দিলেন ভাইজান

বলিউড সুপারস্টার সালমান খান। তার নতুন লুকের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। বর্তমানে এই অভিনেতার ঝুলিতে একাধিক সিনেমা রয়েছে। ‘টাইগার থ্রি’ ও ‘ভাইজান’ সিনেমার শুটিং করছেন তিনি। এরই মধ্যে ফটো ও ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেছেন এই অভিনেতা। এতে তাকে বড় বড় চুল, দাড়ি ও আকর্ষণীয় শারীরিক গড়নে দেখা গেছে।

জানা গেছে, বর্তমানে ‘ভাইজান’ সিনেমার শুটিংয়ের জন্য ভারতের লাদাখে অবস্থান করছেন সালমান। সেখান থেকেই ছবিটি পোস্ট করেছেন তিনি। মনোরম পরিবেশ ও সালমানের লুক দুই-ই ভক্তদের মুগ্ধ করেছে। রীতিমতো ভাইরাল ছবিটি। ছবিতে একজন মন্তব্য করেছেন, ‘অসাধারণ লুক, ভাইজান’। অপর একজন লিখেছেন, ‘ভাইজানের নতুন লুক চমৎকার।’

‘ভাইজান’ সিনেমাটিতে সালমানের বিপরীতে আছেন পূজা হেগড়ে। তারা ছাড়াও অভিনয় করছেন ‘বিগ বস’খ্যাত শেহনাজ গিল, পাঞ্জাবি গায়ক জাস্সি গিল, সিদ্ধার্থ নিগম, পলক নিগম, রাঘব জুয়াল, দক্ষিণী সুপারস্টার ভেঙ্কটেস, জাগপতি বাবু প্রমুখ। ফারহাদ সামজি পরিচালিত এই সিনেমা চলতি বছরে ডিসেম্বরে মুক্তির কথা রয়েছে।


সালমান খান  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন