ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

নিউইয়র্কে ৪৪ জন আরোহী নিয়ে গভীর খাদে পড়ল স্কুল বাস, নিহত ২

প্রকাশ: ০৪:৪২ পিএম, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২৩


Thumbnail

৪৪ আরোহী নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে একটি স্কুল বাস। এ দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া গুরুতর আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন। বাসের সামনের টায়ারে ত্রুটি দেখা দেওয়ার পর বাসটি রাস্তা থেকে ছিটকে খাদে পড়ে যায় বলে মনে করা হচ্ছে।

শুক্রবার (২২ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভাড়া করা বাসটি শিক্ষার্থীদের নিয়ে লং আইল্যান্ড থেকে একটি ব্যান্ড ক্যাম্পে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে চলন্ত অবস্থায় সামনের টায়ারে ত্রুটি দেখা দেওয়ার পর বাসটি রাস্তা থেকে ছিটকে যায় এবং ওয়াওয়ায়ান্ডা শহরের কাছে একটি খাদে পড়ে যায়। এই ঘটনার তদন্ত চলছে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

কর্মকর্তারা বলছেন, বাসে ৪৪ জন আরোহী ছিলেন। তাদের উদ্ধার করার পর চিকিৎসার জন্য ছয়টি আঞ্চলিক হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে দুর্ঘটনায় নিহত দুই ব্যক্তি হচ্ছেন- জিনা পেলেটিয়ের (৪৩) এবং বিট্রিস ফেরারি (৭৭)।  

স্কুলের ওয়েবসাইট অনুসারে, নিহত জিনা পেলেটিয়ের কাজ করতেন স্কুলের মিউজিক প্রোগ্রামে। নিউইয়র্ক শহর থেকে উত্তর দিকে প্রায় দুই ঘণ্টার দূরত্বে স্থানীয় সময় প্রায় দুপুর ১টা ১০ মিনিটের দিকে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। পরে দুর্ঘটনাস্থলে উদ্ধার কাজ চালানোর জন্য পুলিশ হাইওয়ে বন্ধ করে দেয়।

বিবিসি বলছে, ফার্মিংডেল হাই স্কুল থেকে ৩০০ জন শিক্ষার্থীকে পেনসিলভেনিয়ার গ্রিলিতে একটি সঙ্গীত শিবিরে নিয়ে যাওয়ার জন্য ছয়টি বাস ভাড়া করা হয়েছিল। দুর্ঘটনাকবলিত এই বাসটি ছিল সেগুলোরই একটি।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, দুর্ঘটনার পর বাসটির পাশের জানালা ভাঙ্গা এবং ভেতরে আটকে পড়া লোকদের উদ্ধার করতে সেখানে একটি মই লাগানো রয়েছে।

নিউইয়র্কের গভর্নর ক্যাথি হচুল স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের বহন করা ওই বাসটি কয়েক মিনিটের মধ্যে আক্ষরিক অর্থে ৫০-ফুট গভীর (১৫ মিটার) গিরিখাতে পড়ে যায়। এটি বিস্ময়কর ঘটনা।

তিনি বলেছেন, যদিও প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে সম্ভবত বাসের ত্রুটিপূর্ণ সামনের টায়ারের কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। তারপরও এই বিষয়টি এখনও তদন্তাধীন রয়েছে। বাসে থাকা বেশিরভাগ শিক্ষার্থীর বয়স ছিল ১৪ বা ১৫ বছর।

এদিকে ধ্বংসস্তূপ থেকে তাদের সবাইকে উদ্ধার করতে ৪৫ মিনিট সময় লেগেছে বলে জানিয়েছে গভর্নর বলেন।


যুক্তরাষ্ট্র   সড়ক দুর্ঘটনা   নিহত   আহত   বিশ্ব সংবাদ  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

রক্তাক্ত ট্রাম্পের ছবি দিয়ে টি-শার্ট বানিয়ে চীনাদের রমরমা ব্যবসা

প্রকাশ: ০৪:১৭ পিএম, ১৫ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়ায় গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর ডোনাল্ড ট্রাম্পের রক্তাক্ত ছবি দিয়ে চীনের একটি সংস্থা টি-শার্ট ছাপিয়েছে। এই টি-শার্টগুলো বাজারে আসার পর ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

এই টি-শার্টে ট্রাম্পের ওপর হামলার মুহূর্তের একটি ছবি রয়েছে এবং তাতে লেখা রয়েছে, ‘গুলি আমাকে আরও শক্তিশালী করেছে।’ এই ঘটনায় অনেকেই অবাক হয়েছেন। কারণ, ট্রাম্পের ওপর হামলার ঘটনার মাত্র দুই ঘণ্টার মধ্যেই টি-শার্টগুলো তৈরি করা হয়েছে।

এই বিষয়ে কথা বলেছেন টি-শার্ট প্রস্তুতকারী সংস্থার অন্যতম কর্ণধার লি জিনওয়েই। তিনি জানান, তারা ট্রাম্পের ওপর হামলার ছবি ডাউনলোড করে ডিজিটাল প্রিন্টিং টেকনোলজির মাধ্যমে দ্রুত টি-শার্টে ছাপিয়েছেন। ট্রাম্পের ওপর হামলার পরেই যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের প্রায় ২ হাজার জন এই টি-শার্টের জন্য আবেদন করেন। এগুলো দ্রুত প্রস্তুত করা হয় এবং অনলাইনে বিক্রির জন্য ছাড়ার পর হু হু করে বিক্রি হতে থাকে।

 

শনিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ২ মিনিটে ট্রাম্প একটি মঞ্চে বক্তৃতা দিচ্ছিলেন। তিনি অভিবাসন নীতি নিয়ে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের সমালোচনা করছিলেন। ৬টা ১৫ মিনিটের দিকে গুলির আওয়াজ শোনা যায়। গুলি ট্রাম্পের ডান কানের ওপর দিয়ে চলে যায়। সিক্রেট এজেন্টরা দ্রুত মঞ্চে এসে তাকে ঘিরে ফেলেন।

এ সময় ট্রাম্পকে বলতে শোনা যায়,‘আমাকে জুতা নিতে দাও, আমাকে জুতা নিতে দাও।’ তিনি হাত মুষ্ঠিবদ্ধ করে আরও বলেন, ‘অপেক্ষা করো, অপেক্ষা করো, অপেক্ষা করো।’ তার ডান কানের পাশ থেকে রক্ত বের হচ্ছিল এবং মুখেও রক্ত ছিল। তিনি হাত দিয়ে কান চেপে ধরেন। সভায় উপস্থিত সবাই নিচু হয়ে বসে পড়েন এবং ট্রাম্পকে দ্রুত সরিয়ে নেওয়া হয়। সভাস্থলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

হোয়াইট হাউস থেকে জানানো হয়েছে, এই হামলার মূল অভিযুক্ত নিহত হয়েছে। সভায় উপস্থিত একজন দর্শকও মারা গেছেন এবং আরও দুজন আহত হয়েছেন।


ট্রাম্প   চীন   যুক্তরাষ্ট্র   ব্যবসা  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

অস্থায়ী মসজিদে ইসরায়েলি হামলায় নিহত ২২

প্রকাশ: ০৪:০৪ পিএম, ১৫ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

ফিলিস্তিনের পশ্চিম গাজা নগরীতে এক অস্থায়ী মসজিদে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। এতে অন্তত ২২ জন নিহত হয়েছে। হামলায় আহতদের চিকিৎসা দিচ্ছেন এমন একজন কর্মকর্তা এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। খবর সিএনএনের।  

আল-আহলি হাসপাতালের জরুরি বিভাগের প্রধান আমজাদ আল-আহলি সিএনএনকে বলেন, আল শাতি ক্যাম্পের অস্থায়ী মসজিদে হামলায় ২০ জন নিহত হয়েছে। এরপর রোববার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। 

এই হামলা নিয়ে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনীর (আইডিএফ) কাছে মন্তব্য জানতে চেয়েছিল সিএনএন। তবে এতে কোনো সাড়া দেয়নি ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনী।

গাজার সিভিল ডিফেন্সের মুখপাত্র মাহমুদ বাসাল সিএনএনকে বলেছেন, জোহরের নামাজের সময় বোমা হামলা চালানো হয়েছে। তিনি জানান, আহত সবার অবস্থা গুরুতর। বিভিন্ন ভিডিওতে দেখা যায়, নামাজের জন্য রাখা 'মাদুরে' লাশ পড়ে আছে। বহু হতাহতদের শরীর ছিন্নভিন্ন হয়েছে।

মসজিদে হামলা চালানো নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে জাতিসংঘের মানবাধিকার কার্যালয়। গত শনিবার ইউএনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পশ্চিম গাজা নগরীর আল শাতি শরণার্থী ক্যাম্পের ভেতরে অস্থায়ী মসজিদে হামলা চালিয়েছে আইডিএফ।


মসজিদ   ইসরায়েল   হামলা   নিহত   ফিলিস্তিন  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

রিপাবলিকান কনভেনশনে, আগেই পৌঁছেছেন ট্রাম্প

প্রকাশ: ০৩:৪৭ পিএম, ১৫ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান পার্টির ন্যাশনাল কনভেশনে যোগ দিতে উইসকন্সিন অঙ্গরাজ্যে পৌঁছেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। একদিন আগেই পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের বাটলারে হামলার শিকার হন ট্রাম্প। তার কানে গুলি লেগেছিল। তবে অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পান এই রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট প্রার্থী।

এই সম্মেলনের পরিকল্পনা আগে থেকেই নির্ধারিত ছিল। হামলায় আহত হওয়ার পরেও ট্রাম্প এই সম্মেলন পেছাতে চাননি। তাই পূর্বনির্ধারিত সময়েই এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

ট্রাম্প সামাজিক মাধ্যমে এক পোস্টে জানান, তিনি এই সম্মেলন দুদিন পিছিয়ে দেওয়ার কথা ভেবেছিলেন। কিন্তু পরবর্তীতে তিনি আবার সিদ্ধান্ত নেন যে একজন হামলাকারী বা আততায়ীর জন্য পূর্ব নির্ধারিত পরিকল্পনা তিনি পরিবর্তন করবেন না।

স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যায় পেনসিলভানিয়ার বাটলারে এক নির্বাচনী প্রচারণার সময় হামলার শিকার হন ট্রাম্প। তার ওপর ওই হামলার কারণে সোমবার আয়োজিত সম্মেলনের সুরক্ষার বিষয়ে আরও কঠোর অবস্থান নিতে হচ্ছে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের একাধিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ট্রাম্পকে গুলি করে হত্যাচেষ্টাকারী থমাস ম্যাথিউ ক্রুকস রিপাবলিকান পার্টিরই নিবন্ধিত ভোটার ছিলেন।

ক্রুকসের অঙ্গরাজ্য পর্যায়ের একটি ভোটসংক্রান্ত নথি অনলাইনে ছড়িয়ে পড়েছে। তাতে দেখা গেছে, তার জন্ম ২০০৩ সালের ২০ সেপ্টেম্বর। ওই নথি অনুযায়ী, তিনি ট্রাম্পের রিপাবলিকান পার্টির নিবন্ধিত একজন ভোটার। সেই সঙ্গে ভোটার স্ট্যাটাসের ঘরে ক্রুকসকে ‘সক্রিয়’ উল্লেখ করা হয়েছে।

স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর তথ্যানুযায়ী, ক্রুকস ২০২২ সালে বেথেল পার্ক হাই স্কুল থেকে স্নাতক পাস করেন। তিনি রিপাবলিকান হিসেবে ভোট দেওয়ার জন্য নিবন্ধিত হয়েছিলেন। পেনসিলভানিয়ার ভোটার তালিকার তথ্যে তার যে নাম, বয়স ও বেথেল পার্কের ঠিকানা মিলেছে, তার সঙ্গে পাবলিক রেকর্ডে থাকা ক্রুকসের তথ্যের মিল পাওয়া গেছে।

হামলার ঘটনায় দর্শক সারিতে থাকা একজন নিহত ও দুজন গুরুতর আহত হন। আর সিক্রেট সার্ভিস সদস্যদের গুলিতে নিহত হন হামলাকারী ক্রুকস। হামলাকারী এই যুবক পেনসিলভানিয়ার বেথেল পার্ক এলাকার বাসিন্দা। ঘটনাস্থল বাটলার থেকে এই শহরের দূরত্ব ৭০ কিলোমিটার।



মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

মেলানিয়া ট্রাম্পকে ফোন করেছিলেন জিল বাইডেন

প্রকাশ: ০৩:৩০ পিএম, ১৫ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

সাবেক মার্কিন ফার্স্ট লেডি- ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্ত্রী মেলানিয়াকে ফোন করে খোঁজখবর নিয়েছেন বর্তমান ফার্স্ট লেডি জো বাইডেনের স্ত্রী জিল।

ট্রাম্পের ওপর বন্দুক হামলার ঘটনার পর স্থানীয় সময় রোববার মেলানিয়াকে ফোন করেন জিল। হোয়াইট হাউসের বরাত দিয়ে এনবিসি নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই হামলার সময় যারা নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট প্রার্থীকে বাঁচিয়েছেন সেসব সাহসী কর্মকর্তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন মেলানিয়া ট্রাম্প। এছাড়া তিনি বন্দুকধারীকে ‘দানব’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

এর আগে সমাবেশে গুলিতে আহত হওয়ার পর ট্রাম্পের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এছাড়া পেনসিলভানিয়ার গভর্নর যশ শাপিরো ও বাটলার এবং মেয়র বব ডানডয়ের সঙ্গেও কথা বলেছেন বাইডেন।

হোয়াইট হাউসের এক কর্মকর্তা এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। হোয়াইট হাউসের ওই কর্মকর্তা বলেন, বাইডেন সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলেছেন। তবে তাদের মধ্যে কী কী কথা হয়েছে, তা নিয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি এই কর্মকর্তা।

যুক্তরাষ্ট্রের তদন্তকারী সংস্থা এফবিআই জানিয়েছে, ট্রাম্পকে হত্যার উদ্দেশ্যেই এ হামলা করা হয়। তবে তা সফল হয়নি। সন্দেহভাজন হামলাকারী পুলিশের গুলিতে নিহত হন।

যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান পার্টির ন্যাশনাল কনভেশনে যোগ দিতে উইসকন্সিন অঙ্গরাজ্যে পৌঁছেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই সম্মেলনের পরিকল্পনা আগে থেকেই নির্ধারিত ছিল। হামলায় আহত হওয়ার পরেও ট্রাম্প এই সম্মেলন পেছাতে চাননি। তাই পূর্বনির্ধারিত সময়েই এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

ট্রাম্প সামাজিক মাধ্যমে এক পোস্টে জানান, তিনি এই সম্মেলন দুদিন পিছিয়ে দেওয়ার কথা ভেবেছিলেন। কিন্তু পরবর্তীতে তিনি আবার সিদ্ধান্ত নেন যে একজন হামলাকারী বা আততায়ীর জন্য পূর্ব নির্ধারিত পরিকল্পনা তিনি পরিবর্তন করবেন না।

স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যায় পেনসিলভানিয়ার বাটলারে এক নির্বাচনী প্রচারণার সময় হামলার শিকার হন ট্রাম্প। তার ওপর ওই হামলার কারণে সোমবার আয়োজিত সম্মেলনের সুরক্ষার বিষয়ে আরও কঠোর অবস্থান নিতে হচ্ছে। সূত্র: এনবিসি নিউজ


মেলানিয়া ট্রাম্প   জিল বাইডেন   ফার্স্ট লেডি  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের প্রতি ঐক্যের ডাক ট্রাম্পের

প্রকাশ: ০৩:১৬ পিএম, ১৫ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

যুক্তরাষ্ট্রের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়েছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পেনসিলভানিয়ায় নির্বাচনী সমাবেশে কানে গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর রোববার (১৪ জুলাই) নিজের ট্রুথ সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মে প্রকাশিত দ্বিতীয় বিবৃতিতে এই আহ্বান জানান তিনি। 

ট্রাম্প জানান, চলতি সপ্তাহে উইসকনসিনে রিপাবলিকান ন্যাশনাল কনভেনশনে (আরএনসি) বক্তব্য রাখার অপেক্ষায় আছেন তিনি।

তিনি বলেছেন, ‘এই মুহূর্তে, আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকা এবং আমেরিকান হিসেবে আমাদের প্রকৃত চরিত্র প্রদর্শন করা, দৃঢ় ও সংকল্পবদ্ধ থাকা, খারাপকে জয়ী হতে না দেওয়া অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। সবার শুভকামনা ও প্রার্থনার জন্য ধন্যবাদ। কারণ, একমাত্র ঈশ্বরই এই অকল্পনীয় ঘটনাটি ঘটতে বাধা দিয়েছেন। আমরা ভয় পাবো না, বরং আমাদের বিশ্বাসে দৃঢ় থাকব। আমাদের ভালোবাসা অন্য ভুক্তভোগী এবং তাদের পরিবারের প্রতি। আমরা আহতদের দ্রুত সুস্থ্যতা কামনা করি।’

তিনি আরও বলেছেন, আমি সত্যিই আমাদের দেশকে ভালোবাসি এবং তোমাদের সবাইকে ভালোবাসি। আমি উইসকনসিন থেকে আমাদের মহান জাতির সঙ্গে কথা বলার জন্য অপেক্ষায় আছি।

রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ও সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যা ৬টা ১৫ মিনিটের দিকে পেনসিলভানিয়ায় একটি নির্বাচনী সমাবেশে অতর্কিত হামলার শিকার হন। হামলাকারীর গুলিতে ট্রাম্পের ডান কানের ওপরের অংশ ফুটো হয়ে গেছে। হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে তিনি সুস্থ্ হন। 


যুক্তরাষ্ট্র   নির্বাচন   আদালত   ট্রাম্প  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন