কালার ইনসাইড

কোকাকোলার বিজ্ঞাপন নিয়ে ক্ষমা চাইলেন জীবন-শিমুল

প্রকাশ: ০৫:১৮ পিএম, ১১ জুন, ২০২৪


Thumbnail

সম্প্রতি ফিলিস্তিন-ইসরায়েল ইস্যুতে সারাবিশ্বের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে কোমল পানীয় 'কোকাকোলা' বয়কটের ডাক দেয় দেশের একটি মহল। কোকাকোলা ইসরায়েলের একটি কোম্পানি এমন একটি  ধারণা দীর্ঘদিন ধরে সামাজিক মাধ্যমে প্রচলিত থাকায় কোকাকোলা বাংলাদেশ বারবার বোঝানোর চেষ্টা করেছে যে এটি ইসরায়েলি কোম্পানি নয়। বাংলাদেশে উৎপাদিত কোকাকোলা দেশীয় প্রক্রিয়ায় তৈরি হয়। তবে, কোকাকোলার এই বার্তা জনগণ তেমনভাবে গ্রহণ করেনি।

তাই কোম্পানিটি এবার সরাসরি একটি বিজ্ঞাপন নির্মাণ করেছে, যেখানে তারা বোঝানোর চেষ্টা করেছে, কোকাকোলা ১৯৩টি দেশে তৈরি হয় এবং ফিলিস্তিনেও তাদের একটি ফ্যাক্টরি রয়েছে। এই প্রচেষ্টায় প্রতিষ্ঠানটি প্রমাণ করতে চেয়েছে যে, কোকাকোলার ইসরায়েলি মালিকানাধীন বলে যে তথ্যটি ছড়ানো হচ্ছে তা পুরোপুরি মিথ্যা ও গুজব। আর কোকাকোলা বাংলাদেশের এই বিজ্ঞাপনটি নিয়েই এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয়েছে তীব্র বিতর্ক, চলছে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা। 

বিজ্ঞাপনটিতে মডেল হয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেতা শরাফ আহমেদ জীবন ও শিমুল শর্মা। আর তাই কোকাকোলা বয়কটের পাশাপাশি এবার এই দুই অভিনয়শিল্পীকে বয়কটের হুমকি দিয়েছেন নেটিজেনরা। বিভিন্ন গ্রুপ থেকে শুরু করে অনেকে নিজের ফেসবুক আইডিতেও পোস্ট দিয়ে এমন বয়কটের ডাক দিচ্ছেন। 

 এমন পরিস্থিতিতে তোপের মুখে পড়ে কোকাকোলার বিজ্ঞাপনে কাজ করার বিষয়ে অবশেষে মুখ খুলেছেন অভিনেতা শরাফ আহমেদ জীবন। সোমবার (১০ জুন) রাতে এ অভিনেতা তার ফেসবুক আইডিতে দেয়া এক পোস্টে দাবি করেছেন, তিনি ইসরায়েলের পক্ষে কোন কাজ করেননি।

পোস্টে শরাফ আহমেদ জীবন বলেন, ‘আমি একজন নির্মাতা এবং অভিনেতা হিসেবে সবার কাছে পরিচিত। বিগত দুই দশক ধরে আমি নির্মাণ ও অভিনয়ের সাথে জড়িত। ব্যক্তিগত জীবনে আমি সবসময় মানবাধিকারবিরোধী যেকোনো আগ্রাসনের বিপক্ষে দাঁড়িয়েছি এবং আপনাদের অনুভূতি ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকেছি।’

এ অভিনেতা আরও দাবি করেন, বিজ্ঞাপনটিতে তিনি কোথাও ইসরায়েলের পক্ষ নেননি, এমনকি অতীতেও তিনি ইসরায়েলের পক্ষ নিয়ে কোন মন্তব্য করেননি। পাশাপাশি তার হৃদয় সবসময়  ন্যায়ের পক্ষে এবং মানবতার পাশে আছে, থাকবে বলেও আশা প্রকাশ করেছেন তিনি। 

কোকাকোলার বিজ্ঞাপনের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি কোকা-কোলা বাংলাদেশ তাদের একটি বিজ্ঞাপন নির্মাণ এবং এতে অভিনয়ের জন্য আমাকে প্রস্তাব দেয়। আমি শুধুমাত্র তাদের দেয়া তথ্য ও উপাত্তই কাজটিতে তুলে ধরেছি। বিজ্ঞাপনটি প্রচার হবার পর থেকে আমি আপনাদের অনেক মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করছি এবং আপনাদের প্রতি সম্মান জানিয়ে আমি আবারো বলতে চাই কাজটি শুধুই আমার পেশাগত জীবনের একটি অংশমাত্র।’

এদিকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দিয়ে বিজ্ঞাপনটিতে মডেল হওয়ার জন্য দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন আরেক অভিনেতা শিমুল শর্মা। মঙ্গলবার (১১ জুন) সকালে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেইজে একটি স্ট্যাটাস দেন তিনি। স্ট্যাটাসটিতে তিনি লিখেছেন,

‘আমি শিমুল শর্মা যদিও পরিচয় দেবার মত একজন অভিনেতা এখনও হয়ে উঠতে পারিনি কারণ একজন অভিনেতা হবার জন্য যে অধ্যবসায় এবং দূরদর্শিতা দরকার সেটা এখনো আমার হয়ে উঠেনি, আমি চেষ্টা করছি মাত্র। তাই হয়ত না বুঝে করা আমার কাজ আজ আমার দর্শক, তথা আমার পরিবার ও দেশের মানুষকে কষ্ট দিয়েছে। আমি ভবিষ্যতে কোন কাজে অভিনয় করতে গেলে অবশ্যই আমাদের দেশের মূল্যবোধ, মানবাধিকার, মানুষের মনোভাবকে যথেষ্ট সম্মান দিয়ে বিবেচনা করে তারপর কাজ করব। আমি মাত্র আমার জীবনের পথচলা শুরু করেছি, আমার এই পথচলায় ভুল ত্রুটি ক্ষমা সুলভ দৃষ্টিতে দেখবেন এবং আমাকে ভবিষ্যতে একজন বিবেকবান শিল্পী হয়ে ওঠার জন্য শুভ কামনায় রাখবেন। ধন্যবাদ সবাইকে।’

এর আগে শিমুল বলেছিলেন,  বাংলাদেশে কোকাকোলা নিয়ে প্রোপাগান্ডামূলক একটি তথ্য ছড়িয়ে আছে। কোনো প্রোডাক্টকে যদি ধর্মীয় মোড়কে মুড়িয়ে ফেলা হয়, তাহলে কিছু করার নেই। সবাই  নিজেদের জায়গা থেকে স্টেটমেন্ট  দিতে পারে। মূলত সেই জায়গা থেকেই  বিজ্ঞাপনটি নির্মাণ করা হয়েছে।

তবে কোকাকোলার বিতর্কিত বিজ্ঞাপনটি বয়কটের ডাক দেওয়ার পরে তার ফেসবুক পেজ ডিএক্টিভেট করে রেখেছিলেন শিমুল। এরপর আজ সকালে পেইজটি পুনরায় অ্যাক্টিভ করে বিজ্ঞাপনের বিষয়ে পোস্ট দিয়ে ক্ষমা চাইলেন এই অভিনেতা।

এদিকে, বিজ্ঞাপনটি নিয়ে যেহেতু বিতর্ক হচ্ছে- স্বাভাবিকভাবেই এর নির্মাতাকে নিয়েও আলোচনা হচ্ছে। অনেকেই জানতে চাইছেন বিজ্ঞাপনটির নির্মাতা 'ব্যাচেলর পয়েন্ট' খ্যাত কাজল আরেফিন অমি কিনা। আর তাই এ বিষয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন অমি নিজেই। ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে তিনি দাবি করেন,  এটি তার বানানো নয়। কাজল আরেফিন অমি তার ফেসবুকে লিখেছেন, আমি কখনো বিজ্ঞাপন বানাই নি, আমি নাটক, ওয়েব ফিল্ম, ওয়েব সিরিজ নিয়েই কাজ করেছি, ভবিষ্যতে সিনেমা বানাবো। ধন্যবাদ।

এদিকে, আসন্ন ঈদুল আযহায় কাজল আরেফিন অমি নির্মিত 'ফিমেল' সিরিজের নতুন সংস্করণ 'ফিমেল ৪' আসছে। যা প্রথমবারের মতো ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পাবে।


কোকাকোলা   ইসরায়েল   ফিলিস্তিন   শরাফ আহমেদ জীবন   শিমুল শর্মা   বয়কট  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

দর্শক জনপ্রিয়তার তুঙ্গে বিজয় সেতুপতির 'মহারাজা'

প্রকাশ: ০৬:৫০ পিএম, ১৮ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

জনপ্রিয় দক্ষিণী অভিনেতা বিজয় সেতুপতি অভিনীত 'মহারাজা' সিনেমাটি দর্শক ও সমালোচকদের মন জয় করেছে। গত বৃহস্পতিবার নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই সিনেমাটি প্রশংসায় ভাসছে।

নিথিলান স্বামীনাথন পরিচালিত এই অ্যাকশন থ্রিলার চলচ্চিত্রটি গত ১৪ জুন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিল। মাত্র ২০ কোটি টাকার বাজেটে নির্মিত এই সিনেমাটি এক মাসেরও কম সময়ে বক্স অফিসে ১১৩ কোটি টাকা আয় করে।

সমালোচকরা স্বামীনাথনের চিত্রনাট্য ও পরিচালনা, বিজয় সেতুপতির অভিনয় এবং ফিলোমিনের সম্পাদনার প্রশংসা করেছেন। রেডিফ ডটকমের অর্জুন মেনন সিনেমাটিকে ৫ এর মধ্যে ৪ রেটিং দিয়ে বলেছেন, "রিভেঞ্জ ঘরানার সিনেমায় এক নতুন মাত্রা যোগ করেছে এই ছবি। শেষের এক ঘণ্টা আপনাকে চমকে দেবে এবং একই সাথে দর্শক হিসেবে আপনার পরীক্ষাও নেবে।"

টাইমস নাউয়ের সমালোচক মনিকানদান ৫ এর মধ্যে ৩.৫ রেটিং দিয়ে বলেছেন, "চিত্রনাট্যের গাঁথুনি মজবুত। সিনেমাটিতে কিছু দুর্বলতা থাকলেও অভিনয়শিল্পীদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের কারণে সেগুলো মনে থাকে না।"

"মহারাজা" চলচ্চিত্রে বিজয় সেতুপতির পাশাপাশি অভিনয় করেছেন অনুরাগ কশ্যপ, মমতা মোহনদাস প্রমুখ। এটি বিজয় সেতুপতির ক্যারিয়ারের ৫০তম চলচ্চিত্র। ক্যারিয়ারের এই মাইলফলক স্পর্শ করার জন্য তিনি বেছে নিয়েছেন একটি স্মরণীয় ছবি।

নেটফ্লিক্সে মুক্তির পর অনেক বাংলাদেশি দর্শক ও সমালোচকও "মহারাজা" এর প্রশংসা করছেন।  


মহারাজা   বিজয় সেতুপতি   নেটফ্লিক্স   সিনেমা  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

থামছেই না ‘কল্কি’ ঝড়, ২০ দিনে আয় কত?

প্রকাশ: ০৫:২৫ পিএম, ১৮ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

গত ২৭ জুন মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই নাগ অশ্বিন পরিচালিত ‘কল্কি ২৮৯৮ এডি’ সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে ঝড় তুলেছে। ছবিটি মুক্তির ২০ দিন পেরিয়েছে এবং এরই মধ্যে আয়ের নতুন রেকর্ড গড়েছে।

বক্স অফিস সূত্রে জানা গেছে, ২০ দিনে সিনেমাটি ভারত থেকে ৫৮৯ কোটি রুপি আয় করেছে। ‘কল্কি ২৮৯৮ এডি’ প্রথম দিনেই ভারতীয় বক্স অফিসে ৯৫ কোটি রুপি আয় করে। এর মধ্যে কেবল তেলেগু সংস্করণ থেকেই আয় হয়েছে ৬৪ কোটি ৫০ লাখ রুপি, আর হিন্দি সংস্করণে ২৪ কোটি রুপি আয় হয়েছে।

মুক্তির প্রথম সপ্তাহে ছবিটি মোট ৪১৪ কোটি ৮৫ লাখ রুপি আয় করেছে। এই সফল ছবিটি পরিচালনা করেছেন নাগ অশ্বিন এবং এতে অভিনয় করেছেন প্রভাস, দীপিকা পাড়ুকোন, অমিতাভ বচ্চন, কমল হাসান, দিশা পাটানি প্রমুখ। এছাড়াও ম্রুণাল ঠাকুর, দুলকার সালমান, বিজয় দেবেরাকোন্ডা, এস এস রাজামৌলি এবং রাম গোপাল ভার্মাকে অতিথি চরিত্রে দেখা গেছে।


কল্কি   রেকর্ড   প্রভাস   দীপিকা পাড়ুকোন   অমিতাভ বচ্চন  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

পতাকা হচ্ছে রক্তাক্ত, পুরো জাতি কি আজ অবুঝ : আফরান নিশো

প্রকাশ: ০৫:১০ পিএম, ১৮ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

কোটা সংস্কারের আন্দোলনে উত্তাল সারা দেশ। তারকারাও এই আন্দোলনে সক্রিয় সমর্থন জানাচ্ছেন। আন্দোলনকারীদের পক্ষে অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিচ্ছেন। এর মধ্যে অভিনয়শিল্পী আফরান নিশো কিছুটা নিরব ছিলেন, যা নিয়ে বিভিন্ন গ্রুপে আলোচনা ও সমালোচনা চলছিল। অবশেষে, আজ সন্ধ্যায় নিজের ফেসবুক আইডিতে একটি কবিতা পোস্ট করে নিশো নিজের মত প্রকাশ করেছেন।

কবিতার নিচে লেখা ছিল "আ/নি," যা থেকে ধারণা করা যায় যে কবিতাটি নিশোরই লেখা। কবিতায় তিনি প্রশ্ন তুলেছেন লাল-সবুজের পতাকায় কেন আজ এত লাল রঙ দেখা যাচ্ছে।

তিনি লেখেন: "আমার সোনার বাংলা,
আমাদের প্রাণ,
লাল-সবুজের পতাকা,
সবুজের মাঝে লাল...
বাবা মুক্তিযোদ্ধা,
চেতনা-
লড়ব যদি যাক প্রাণ...
লাল-সবুজের পতাকা...
তাদেরই প্রতিদান,
তাদের আত্মত্যাগের ঘ্রাণ...
তবে আজ...
কেন এত... লাল???"

তিনি আরও লেখেন: "সবুজে লাল খুঁজি...
লালে নয় সবুজ
পতাকা হচ্ছে রক্তাক্ত...
পুরো জাতি কি আজ অবুঝ?
বলেন না?
মা বলেন ...আর চাই না লাল...
ফিরিয়ে দাও... আমার সবুজ।
লাল-সবুজের পতাকায় আজ কেন এত লাল?
শান্তি চাই
হোক সংস্কার
অপমান চাই না
রক্তাক্ত রাজপথ চাই না
হোক সমাধান
লাল-সবুজের পতাকায় আর তো লাল চাই না..."

উল্লেখ্য, আফরান নিশোর বাবা একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। কিছুদিন আগে তিনি মৃত্যুবরণ করেন এবং রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তার লাশ দাফন করা হয়।

কোটা আন্দোলন   আফরান নিশো   পোস্ট  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

৭৬তম এমি অ্যাওয়ার্ডস এর মনোনয়ন ঘোষণা

প্রকাশ: ০৪:৫১ পিএম, ১৮ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

টেলিভিশনের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কার এমি অ্যাওয়ার্ডের মনোনীতদের তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে। বুধবার (১৮ জুলাই) সকালে ঘোষণা করা হয় ৭৬তম এমি অ্যাওয়ার্ডের নমিনেশন। এবারের নমিনেশনে ২৫টি মনোনয়ন নিয়ে শীর্ষে রয়েছে এফএক্স-এর জনপ্রিয় সিরিজ ‘শোগুন’। সেরা ড্রামা, সেরা অভিনেতাসহ বিভিন্ন ক্যাটেগরিতে এই সিরিজটি মনোনীত হয়েছে। এছাড়া, এফএক্স-এর আরেকটি সিরিজ ‘দ্য বিয়ার’ ২৩টি মনোনয়ন পেয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে, যা কমেডি সিরিজ হিসেবে রেকর্ডসংখ্যক মনোনয়ন।

হুলুর ‘অনলি মার্ডারস ইন দ্য বিল্ডিং’ ২১টি মনোনয়ন পেয়েছে, এইচবিও/ম্যাক্সের ‘ট্রু ডিটেকটিভ: নাইট কান্ট্রি’ ১৯টি, এবং নেটফ্লিক্সের ‘দ্য ক্রাউন’ ১৮টি মনোনয়ন পেয়ে সেরা পাঁচে স্থান পেয়েছে।

সেরা অভিনেতার মনোনয়নে আছেন ইদ্রিস এলবা (হইজ্যাক), ডোনাল্ড গ্লোভার (মিস্টার অ্যান্ড মিসেস স্মিথ), ওয়ালটন গগিন্স (ফলআউট), গ্যারি ওল্ডম্যান (স্লো হর্সেস), হিরোয়ুকি সানাদা (শোগুন), এবং ডমিনিক ওয়েস্ট (দ্য ক্রাউন)।

অন্যদিকে সেরা অভিনেত্রীর মনোনয়ন পেয়েছেন ক্রিস্টিন বারানস্কি (দ্য গিল্ডেড এজ), নিকোল বেহারি (দ্য মর্নিং শো), এলিজাবেথ ডেবিকি (দ্য ক্রাউন), গ্রেটা লি (দ্য মর্নিং শো), লেসলি ম্যানভিল (দ্য ক্রাউন), কারেন পিটম্যান (দ্য মর্নিং শো) এবং হল্যান্ড টেলর (দ্য মর্নিং শো)।

সেরা ড্রামা সিরিজের জন্য লড়বে ‘দ্য ক্রাউন’ (নেটফ্লিক্স), ‘ফলআউট’ (প্রাইম ভিডিও), ‘দ্য গিল্ডেড এজ’ (এইচবিও), ‘দ্য মর্নিং শো’ (অ্যাপল টিভি+), ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস স্মিথ’ (প্রাইম ভিডিও), ‘শোগুন’ (এফএক্স), ‘স্লো হর্সেস’ (অ্যাপল টিভি+), এবং ‘থ্রি বডি প্রবলেম’ (নেটফ্লিক্স)।

এবারের নমিনেশনে নেটফ্লিক্স সর্বোচ্চ মনোনয়ন পেয়ে শীর্ষে রয়েছে। মোট ৩৫টি প্রোগ্রাম মিলিয়ে নেটফ্লিক্স পেয়েছে ১০৭টি মনোনয়ন, এফএক্স ৯৩টি, এইচবিও ৯১টি এবং অ্যাপল টিভি ৭২টি মনোনয়ন পেয়েছে।

বুধবার এল ক্যাপিটান থিয়েটারে একটি অনুষ্ঠানে টনি হেল, শেরিল লি রাল্ফ এবং টেলিভিশন একাডেমির চেয়ার ক্রিস অ্যাব্রেগো এবারের মনোনীতদের নাম ঘোষণা করেছেন। ৭৬তম এমি অ্যাওয়ার্ড ১৫ সেপ্টেম্বর লস অ্যাঞ্জেলেসের পিকক থিয়েটার থেকে সরাসরি সম্প্রচারিত হবে।


এমি অ্যাওয়ার্ড   মনোনয়ন   শোগুন  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

কোটা আন্দোলন নিয়ে যে বার্তা দিলেন স্বস্তিকা

প্রকাশ: ০৪:৩৩ পিএম, ১৮ জুলাই, ২০২৪


Thumbnail

কোটা সংস্কারের দাবিতে রাজপথে নেমেছে শিক্ষার্থীরা। দেশজুড়ে এই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়েছে। শিক্ষার্থীরা যেকোনো মূল্যেই কোটা সংস্কার চান এবং দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত রাজপথ ছাড়বেন না বলে জানিয়েছেন।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে যখন সারাদেশ উত্তাল, তখন শোবিজ তারকারাও একাত্মতা প্রকাশ করেছেন। সাধারণ জনগণের পাশাপাশি তারকারাও সরব এই ইস্যুতে। এবার কোটা আন্দোলন নিয়ে মুখ খুললেন ওপার বাংলার অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখার্জি। তিনি জানান, তার ভীষণ অস্থির লাগছে।

স্বস্তিকা নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক আবেগঘন পোস্টে লেখেন, "প্রায় এক মাস হলো আমি নিজের দেশে নেই। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের খবরের চ্যানেলে তৃতীয় বিশ্বের কোনো খবরই তেমন একটা চলে না। আর আমি খুব একটা ফোনের পোকা নই তাই এত খারাপ একটা খবর কানে আসতে দেরি হলো।"

বাংলাদেশের স্মৃতিচারণ করে তিনি লিখেন, "এই তো কয়েক মাস আগে বাংলাদেশে গিয়েছিলাম। খুব ইচ্ছে ছিল জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় যাওয়ার। চারুকলায় যাওয়ার সৌভাগ্য হয়েছিল, জীবনের একটা স্মরণীয় দিন হয়ে থাকবে। প্রতিবার আসি, ব্যস্ততায় যাওয়া হয় না, মা'ও খুব যেতে চাইতেন বাংলাদেশে, কিন্তু নিয়ে যাওয়া হয়নি। আজ একটি ভিডিও দেখলাম, গুলির ধোঁয়া। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা আক্রান্ত। ছাত্র বয়স গেছে সেই কবে, তবে জাহাঙ্গীরনগর আর আমার যাদবপুর খুব কাছাকাছি। কাঠগোলাপের গাছগুলোও কেমন এক রকম। মেঘগুলোও এক রকম। আজ ওখানে বারুদের গন্ধ। এমন এক আপ্যায়নপ্রিয় জাতি দেখিনি, খাবারের নিমন্ত্রণ যেন শেষ হতেই চায় না। সারা রাস্তা জুড়ে ভাষার আল্পনা আর কোথায় দেখব? নয়নজুড়ানো দেওয়াল লেখা? এটি সম্ভবত মুক্তিযুদ্ধের শপথ নেওয়া একটি জাতির পক্ষেই সম্ভব।"

অভিনেত্রী জানান, "আজ ভীষণ অস্থির লাগছে। আমিও তো সন্তানের জননী। আশা করব বাংলাদেশ শান্ত হবে। অনেকটা দূরে আছি, এই প্রার্থনাটুকুই করতে পারি। অন্ধকারের উৎস হতে উৎসারিত আলো—সেই আমাদের আলো...আলো হোক...ভাল হোক সকলের।"

কোটা আন্দোলন   স্বস্তিকা মুখার্জি   অভিনেত্রী  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন