ঢাকা, রোববার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ , ৪ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

শেখ হাসিনাঃ রূপকথার নায়ক

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৭ মে ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০৭:৩১ এএম
শেখ হাসিনাঃ রূপকথার নায়ক

১৭ মে ১৯৮১। বাংলাদেশ সন্ধ্যা নামলেই কারফিউ। একসঙ্গে পাঁচজন হাঁটলেই গ্রেপ্তার। পার্কে বান্ধবীর সঙ্গে আলতো হাত ছুঁয়ে দিলেই পুলিশের লাঠি। সংবাদপত্র যেন সামরিক জান্তার প্রেসনোট। আর রাষ্ট্রীয় নিয়ন্ত্রিত একমাত্র টেলিভিশন যেন স্বৈরাচারের অবিরাম গর্জন প্রচারের যন্ত্র। কথায় কথায় মানুষ গ্রেপ্তার হয়। কলমের এক খোঁচায় মানুষের চাকরি চলে যায়। স্বাধীন দেশে ‘জয় বাংলা নিষিদ্ধ’, নিষিদ্ধ ‘মুক্তিযুদ্ধ‘, জাতির পিতার নাম উচ্চারণ মহাপাপ। রাজাকার আর যুদ্ধাপরাধীরা ক্ষমতার মসনদে বসে বানরের মতো ভেংচি কাটে। পাকিস্তান যেন বাংলাদেশ আবার। এমন একটি দেশ যে দেশের মানুষের মুখে কোনো হাসি নেই। চোখে নেই কোনো স্বপ্ন। আতঙ্ক আর অবিশ্বাসের এক গাঢ় অন্ধকার দীর্ঘ রাতের দখলে যেন বাংলাদেশ।

১৭ মে ২০১৮। বাংলাদেশ যেন ঘুমায় না। চাঞ্চল্যের এক সুখী দেশ। যে দেশের মানুষ উল্লাস করে প্রাণভরে। টেলিভিশনের সংখ্যা কত জানে না অনেক মানুষ। সংবাদপত্র, অনলাইন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক, ইউটিউবে যেন কোটি কলতান। সকাল বিকাল সরকারকে কথার চাবুকে রক্তাক্ত করছে টেলিভিশনের টকশোতে পণ্ডিত সুশীলরা। কথা বলার উপর নিষেধাজ্ঞা নেই, নেই কোনো কর। অফুরন্ত সম্ভাবনায় এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। এদেশের মানুষ এখন নবান্ন উৎসবের মতো বিনির্মাণের উৎসবে মেতেছে। স্যাটেলাইট যুগে বাংলাদেশ, ডিজিটাল বাংলাদেশ কিংবা বাংলাদেশের সাগর জয়-প্রতিটি প্রাপ্তিই উন্মোচন করছে একেকটি নতুন সম্ভাবনা। এদেশের শিশুরা এখন নতুন বই নিয়ে উৎসব করে। এদেশের মেয়েরা আজ পুরুষের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কাজ করে। এদেশের মানুষ আজ স্বপ্ন বোনে আগামীর। শিক্ষা থেকে খেলা, বিজ্ঞান থেকে কৃষি, শিল্প থেকে বাণিজ্য কোথায় নেই বাংলাদেশের সাফল্য গাঁথা। বিশ্বে আজ সম্ভাবনাময় দেশের নাম বাংলাদেশ।

এই বদলে যাওয়ার গল্পটা রূপকথা মতো। কিংবা তা রূপকথাকেও হার মানায়। আর এই বদলে যাওয়ার নায়কের নাম শেখ হাসিনা।

১৯৮১ সালের এই দিনে তিনি ফিরে এসেছিলেন প্রিয় মাতৃভূমিতে।

তারপর এক দীর্ঘ সংগ্রামের পথ ধরে বাংলাদেশকে নিয়েছেন অনন্য উচ্চতায়।

এই দিনটি তাই বাংলাদেশের ঘুরে দাঁড়াবার দিন।

অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার সূচনার দিন।

বাঙালির চেতনার দিন।



বাংলা ইনসাইডার/জেডএ

বিষয়: শেখ-হাসিনা