ঢাকা, শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

সিলেটে জামাতের ভোট কত?

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৯ জুলাই ২০১৮ রবিবার, ১১:৪৫ এএম
সিলেটে জামাতের ভোট কত?

আগামীকাল সোমবার (৩০ জুলাই) অনুষ্ঠেয় তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে একমাত্র সিলেটেই মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে জামাত। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটভুক্ত হলেও জোটের বাইরে গিয়ে সিলেট জামাত নির্বাচনে। আর জামাতের অংশগ্রহণে সিলেটে ভোটের সমীকরণ অন্য দুই সিটি রাজশাহী, বরিশালের চেয়ে ভিন্ন। এখন ভোটের মাত্র একদিন আগে সিলেটে জামাতের ভোট ব্যাংক নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

সিলেট জামাত দাবি করছে আসছে নগরে তাঁদের ভোট অন্তত ৫০ হাজার। তবে জামাতের এমন দাবি মানতে নারাজ বিএনপি। দলটির দাবি সিলেটে জামাতের ভোট ২৫ থেকে সর্বোচ্চ ৩০ হাজার। এর বেশি জামাতের ভোট নেই সিলেটে। তবে সিলেটের সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে জামাতের ভোট ৩০ থেকে ৪০ হাজার হতে পারে। এই পরিপ্রেক্ষিতে সিলেটে জামাত ২০ হাজার থেকে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার ভোট আছে বলে মনে করা হচ্ছে। এছাড়া ইসলাম পছন্দ দল হিসেবে সিলেট সিটিতে নির্বাচনে অংশ নেওয়া ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের ভোট ৮ থেকে ১০ হাজার বলে ধারণা করা হয়।

সিলেট সিটি নির্বাচনে জামাতের উল্লিখিত ভোট বড় একটি ফ্যাক্টর হিসেবে দেখা হচ্ছে। একই সঙ্গে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের প্রশ্ন, বিএনপির পাওয়ার কথা থাকলেও সিলেট জামাতের ভোট পাচ্ছে কে?

সিলেটের রাজনীতি সম্পর্কে যারা জ্ঞাত তাঁদের অজানা নয়, সেখানে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমেদ কামরানের সঙ্গে জামাতের বেশ ভালো সম্পর্ক। অনেকের মতে, সিলেট সিটিতে জামাত নির্বাচনে দাঁড়ালেও তাদের ভোটটা পড়বে কামরানের ব্যালটে। এরই মধ্যে সিলেট জামাতের সঙ্গে কামরানের কোনো ধরনের বোঝাবুঝি হয়েছে বলেও মনে করা হচ্ছে। অনেকের মতে, নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য নয়, বরং বিএনপি প্রার্থীকে বেকায়দায় ফেলতেই সিলেট সিটি নির্বাচনে প্রার্থী দিয়েছে জামাত। এজন্য সিলেটের আওয়ামী লীগ প্রার্থীও কোনোভাবে প্রভাব ফেলেছেন বলে ধারণা করা হয়।

সিলেটে গত সিটি নির্বাচনে দুটি কাউন্সিলর পদে জামাত জিতেছিল। ওই নির্বাচনে কামরান হেরে যাওয়ার পর দলের মধ্যেই অভিযোগ উঠেছিল, জামাতের সঙ্গে কোনোভাবে বোঝাবুঝি হয়েছিল কামরানের। এবারও সেই বোঝাবুঝি হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আর এ কারণেই নির্বাচনে দাঁড়ালেও নিজেদের ভোট ব্যাংক সমৃদ্ধ নয় বরং কামরানের পক্ষেই জামাতের ভোট পড়বে বলে ধারণা করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

বাংলা ইনসাইডার/জেডএ