ঢাকা, শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

মির্জা ফখরুলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সরব রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৩ আগস্ট ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০৬:০৫ পিএম
মির্জা ফখরুলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সরব রিজভী

আগামীতে সরকারকে শূন্য মাঠে খেলতে দেওয়া হবে না। সরকার ভোটারদের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। এই সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে এমনটা এখন আর কেউ ভাবে না।

ঈদুল আজহার পরদিন আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এসব কথা বলেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। আর এর মধ্যে দিয়েই একদিন পর হলেও ঈদে রাজনীতির মাঠে নিজের সরব উপস্থিতি ঘোষণা দিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের স্থায়ী এই বাসিন্দা।

এর আগে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে ঈদের দিনেও রাজনীতির মাঠে সরব দেখা যায়। অনুমতি নেওয়া ছাড়াই কারান্তরীণ দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে যান বিএনপি মহাসচিবসহ দলটির কয়েকজন সিনিয়র নেতা। নিয়ম অনুযায়ীই ঈদের দিন স্বজন ছাড়া বেগম জিয়ার সঙ্গে কারও দেখা করার সুযোগ ছিল না। তাই দুপুরে স্বজনরা দেখা করার সুযোগ পেলেও বিএনপির সিনিয়র নেতারা কারাগারের কাছেই যেতে পারেননি। তবে মিডিয়াতে বেশ প্রচার পায় বিএনপি নেতাদের ওই ব্যর্থ প্রচেষ্টা। কিন্তু ঈদের দিনে কোথাও পাওয়া যায়নি বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিয়মিত মুখ দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে। তবে ঈদের দিন পর্দার আড়ালে থাকলেও পরদিনই স্বরূপে রাজনীতির পর্দায় রিজভী।

আজ দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে গতকাল ঈদের দিনের ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন রিজভী। তিনি আরও বলেছেন, ‘নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে বিনা ভোটের প্রধানমন্ত্রী ও সরকারের মন্ত্রীরা প্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে জড়িয়ে নানা কথা বলে যাচ্ছেন।’

আর বিএনপির আর সবার মতোই নিজেদের ইস্যুর বাস্তবায়ন জনগণের হাতে ছেড়ে দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মত ‘একতরফা নির্বাচন’ আবারও করতে চাইলে  ‘জনগণ’ তা প্রতিহত করবেই মন্তব্য করে তিনি বলেছেন, আর জনগণ বসে থাকবে, জনগণ আঙ্গুল চুষবে- এটা ভাবার কোনো কারণ নেই।

বিএনপি গতবারের মতো নির্বাচনে না এসে সহিংসতার আশ্রয় নিলে’ দাঁতভাঙ্গা জবাব দেওয়া হবে বলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্যের নিন্দা জানিয়েছেন রিজভী। তিনি বলেছেন, শূন্য মাঠে আর খেলতে দেওয়া হবে না। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে এবং খালেদা জিয়ার নেতৃত্বেই বিএনপি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রিজভীর সংবাদ সম্মেলনে দলে তাঁর সমর্থক নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

অবশ্য ঈদের দিনের মতো ঈদের পরদিনও সরব বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আজ মির্জা ফখরুল সাংবাদিকদের বলেছেন, আওয়ামী লীগ কথা দিয়ে কথা রাখে না।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা থেকে ঠাকুরগাঁও যাওয়ার পথে নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমান বন্দর চত্বরে সাংবাদিকদের সামনে তিনি একথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ২০১৪ সালে আওয়ামী লীগ সরকার কথা দিয়েছিল, আলোচনার মাধ্যমে নির্বাচন পদ্ধতি বিষয়ে তারা সিদ্ধান্ত নেবে। কিন্তু তারা তা করেনি। আলোচনার মাধ্যমে দেশের সব সমস্যা সমাধানে বিএনপি আগ্রহী, তবে এই সরকার তা চায় না।

বাংলা ইনসাইডার/জেডএ