ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৩ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

আদালতে আর হাজির হতে পারবো না: খালেদা জিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ বুধবার, ০১:৫০ পিএম
আদালতে আর হাজির হতে পারবো না: খালেদা জিয়া

কারান্তরীণ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া আজ কারাগারে বসা আদালতের বলেছেন, ‘এ মামলার ন্যায় বিচার নিয়ে সংশয় রয়েছে, যা খুশি সাজা দিন। আমি আর আদালতে হাজির হতে পারবো না।’

আজ বুধবার আদালত মুলতবি শেষে কারাগার থেকে বেরিয়ে আসা বিএনপিপন্থী একজন আইনজীবী একথা বলেন। ওই আইনজীবী বলেন, বেগম জিয়া আদালতে বলেছেন, আমার শরীর খারাপ। আপনারা যা খুশি শাস্তি দিন। আমি থাকলেও যে শাস্তি হবে না থাকলেও হবে। আমি আর এই আদালতে হাজির হতে পারবো না।

আজ বেলা ১২ টার দিকে পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত বিশেষ আদালতে জিয়া চ্যারিটেবল মামলার কার্যক্রম শুরু হয়। এসময় খালেদা জিয়াকে তাঁর কক্ষ থেকে হুইল চেয়ারে করে পাশের আদালত কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় আদালতে অপর দুই আসামি মনিরুল ইসলাম ও জিয়াউল ইসলাম মুন্না উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু বেগম জিয়ার আইনজীবীরা উপস্থিত না হওয়ায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার পরবর্তী শুনানি ১২ ও ১৩ সেপ্টেম্বর ধার্য করেছে আদালত।

বেগম জিয়ার আইনজীবীদের অনুপস্থিতের বিষয়ে বাদিপক্ষের আইনজীবী মোশারফ হোসেন কাজল বলেছেন, ‘বিবাদীর আইনজীবীদের আদালতে অনুপস্থিত দু:খজনক।’

জিয়া এতিমখানা মামলায় দণ্ডিত হয়ে গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে আছেন বেগম জিয়া। গত কয়েকমাস ধরে অসুস্থতার কথা বলে জিয়া চ্যারিটেবল মামলার শুনানিতে উপস্থিত হচ্ছিলেন না বিএনপি চেয়ারপারসন। এ কারণে জিয়া চ্যারিটেবল মামলার কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছিল। তাই এই মামলার বিচার সম্পন্ন করতে ঢাকার পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারকে অস্থায়ী আদালত হিসেবে ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করে আইন মন্ত্রণালয়। আজ কারাগারে আদালত বসার কথা জানানো হয়। গতকালের ওই ঘটনা দেশজুড়ে মিডিয়াতে ফলাও করে প্রচার করা হয়। আজ প্রতিটি পত্রিকা ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার শীর্ষ সংবাদ ছিল দেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো কারাগারে আদালত বসার ঘটনা এবং দেশের ইতিহাসে প্রথম হিসেবে বেগম জিয়ার সেখানে মামলার শুনানি। তবে বেগম জিয়ার আইনজীবীরা আদালতে হাজির না হওয়ার কারণ হিসেবে বলা হয়েছে তাঁরা বিষয়টি জানেন না। এমনটাই জানিয়েছেন কারাগারের আদালত থেকে বেরিয়ে আসা বিএনপিপন্থী একজন আইনজীবী।


বাংলা ইনসাইডার/জেডএ