ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ৯ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

তারেককে ফেরত চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ মঙ্গলবার, ০৭:৫২ পিএম
তারেককে ফেরত চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্র ও কমনওয়েলথ বিষয়ক মন্ত্রী জেরেমি হান্ট। বৈঠকে তারেক জিয়াকে বাংলাদেশের কাছে ফিরিয়ে দিতে ব্রিটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রীকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার অনুরোধ জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলেন, বাংলাদেশের নেওয়া সন্ত্রাসবিরোধী পদক্ষেপ বিশ্বজুড়ে প্রশংসিত হয়েছে। এখন তারেক জিয়ার মতো সন্ত্রাসী ও জঙ্গিরা যদি লন্ডনে আশ্রয় পায় তাহলে সেটি বিশ্বজুড়েই জঙ্গিবাদের হুমকি বাড়িয়ে দেবে। হুমকিতে পড়বে বিশ্ববাসী। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা আশা করিনা যুক্তরাজ্য সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের অভয়ারণ্যে পরিণত হোক।

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্টের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। আসন্ন নির্বাচন নিয়ে জেরেমি হান্ট বলেন, তারা বাংলাদেশে একটি অংশগ্রহণমূলক অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন আশা করেন। এর জবাবেই প্রধানমন্ত্রী বলেন, একটি অংশগ্রহণমূলক অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন করার জন্য তাঁর সরকার সব ধরনের কাজ করে যাচ্ছে।

সৌজন্য সাক্ষাৎকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এবং মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক বৈঠকের কথা নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে জানান, ব্রিটিশ মন্ত্রীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর এই বৈঠকে রোহিঙ্গা পরিস্থিত নিয়েও আলোচনা হয়েছে। তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের নিজ ভূমিতে ফিরে যেতে সমস্যার কারণ প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানতে চান জেরেমি হান্ট। রোহিঙ্গা প্রত্যার্বাসনে চুক্তি হওয়ার কথা মনে করিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী তখন তাঁকে উত্তরে বলেন, চুক্তি করলেও মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না।

মিয়ানমারে গণহত্যা চলছে বলে অভিযোগ আছে, এই পরিস্থিতিতে রোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়া উচিত হবে কিনা তা নিয়েও প্রশ্ন করেন জেরেমি হান্ট। প্রধানমন্ত্রী তাকে জানান, রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ পরিবেশ তৈরি করতে পারলে তারা নিজ দেশে ফিরে যেতে পারে। এরপর রোহিঙ্গাদের জন্য ভাসানচরে অস্থায়ী আবাসস্থল নির্মাণের কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে যুক্তরাজ্যসহ অন্যান্য দেশের সহযোগিতা কামনা করেন।


বাংলা ইনসাইডার/জেডএ