ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শুরুতেই নিষ্ক্রিয় ড. কামাল

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৮ অক্টোবর ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ১২:৩৯ পিএম
শুরুতেই নিষ্ক্রিয় ড. কামাল

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনের মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যেই পিছুটান দিলেন ড. কামাল হোসেন। এরই মধ্যে ফ্রন্টে অরুচি ধরে গেছে তাঁর। ফ্রন্ট গঠনের পর এর দুটি বৈঠকের একটিতে উপস্থিত হননি তিনি। গতকাল বুধবার বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে ফ্রন্টের বৈঠক বসেছিল। সেখানে অনুপস্থিত ছিলেন ড. কামাল হোসেন।

গতকালের বৈঠক থেকেই ড. কামালকে ফোন করেন ঐক্যের নেতা ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বলেন, ফ্রন্টের প্রত্যেক দল থেকে সর্বোচ্চ একজন নিয়ে একটি নীতি নির্ধারণী সংস্থা গঠনের বিষয়ে তাঁদের সিদ্ধান্তের কথা জানান। এই নীতি নির্ধারণী সংস্থাই ফ্রন্টের কর্মকাণ্ডের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। এই নীতি নির্ধারণী সংস্থায় গণফোরাম থেকে ড. কামাল হোসেনকে রাখার প্রস্তাব দেন। তবে ফোনেই মির্জা ফখরুলকে নীতি নির্ধারণী সংস্থায় থাকতে পারবেন না বলে জানান ড. কামাল। বলেন, আমার শরীর ভালো না। তাই এমন কোনোকিছুতে আমি থাকতে পারবো না।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, গত কয়েকদিন ধরেই ড. কামাল সব ধরনের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে দূরে রয়েছেন। ড. কামাল ঘনিষ্ঠ সূত্রগুলো বলছে, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হওয়ার পরপরই এর বিভিন্ন নেতাদের কথাবার্তা নিয়ে প্রচণ্ড বিরক্ত হয়েছেন তিনি। তাঁকে নিয়ে বিভিন্ন মহলে সমালোচনার বিষয়টিও ড. কামালের অজানা নয়। এসব বিষয় নিয়ে হতাশ হয়ে পড়েছেন তিনি। এই হতাশা থেকেই ঐক্যফ্রণ্টের কর্মকাণ্ডে নিষ্ক্রিয় ড. কামাল।

ড. কামাল হোসেনের পারিবারিক সূত্রগুলো বলেছেন, তিনি প্রচণ্ড অসুস্থ। চিকিৎসার জন্য শিগগিরই আবারও তিনি দেশের বাইরে যেতে পারেন।

বাংলা ইনসাইডার/জেডএ