ঢাকা, সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

স্মৃতিশক্তি লোপ পাচ্ছে খালেদার

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৪ অক্টোবর ২০১৮ বুধবার, ১০:০০ পিএম
স্মৃতিশক্তি লোপ পাচ্ছে খালেদার

বেগম খালেদা জিয়ার স্মৃতিশক্তি লোপ পাচ্ছে। বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন এই সাবেক প্রধানমন্ত্রীর চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডের একজন সদস্য এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ঐ চিকিসক বলেন,‘ চিকিৎসা শাস্ত্রের পরিভাষায় একে বলে ‘ডিমেনসিয়া’। সাধারনত বার্ধক্য জনিত কারণে, স্নায়ুতন্ত্রের সমস্যার জন্য এ ধরনের রোগ হয়।’ তবে তিনি বলেন,‘ বেগম জিয়ার রোগটা সবে শুরু হয়েছে। আর কদিন পর তার নিউরো চিকিৎসা শুরু হলে, এটা কমে যাবে বলে আমাদের ধারনা।’ কি ধরনের স্মৃতিশক্তি লোপ জানতে চাওয়া হলে, ঐ চিকিৎসক বলেন,‘ছোটখাট, যেমন ঔষধ খেয়েছেন কিনা, রাতে কি খেয়েছেন ইত্যাদি। ঐ চিকিৎসক বলেন,‘ এমনিতেই তিনি কম কথা বলেন, তাই তার ডিমেনসিয়া কতটা গভীর তা এখনও স্পষ্ট নয়।

উল্লেখ্য, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া এতিমখানা দুর্নীতি মামলায় পাঁচবছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন বেগম জিয়া। এরপর থেকে তাকে নাজিমউদ্দিন রোডে পুরাতন কারাগারে রাখা হয়। ঐ কারাগারে তিনি অসুস্থ হযে পড়েন। এসময় বেগম জিয়া ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা উন্নত চিকিৎসার জন্য ইউনাইটেড হাসপাতালে যেতে চান। কিন্তু সরকার তাকে হয় বঙ্গবন্ধু মেডিকেল অথবা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসা করার প্রস্তাব দেয়। শেষ পর্যন্ত এ নিয়ে আদালতে যায় বিএনপি। হাইকোর্ট বেগম খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে নতুন মেডিকেল বোর্ডের মাধ্যমে চিকিৎসা দিতে সরকারকে নির্দেশ দেয়। ৬ অক্টোবর নাজিমউদ্দিন রোডের কারাগার থেকে বেগম জিয়াকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অধ্যাপক আবদুল জলিলের নেতৃত্বে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। ঐ মেডিকেল বোর্ডের অন্যান্য সদস্যরা হলেন, অধ্যাপক সৈয়দ আতিকুল হোক, ডা. সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জী, ডা. নুকুল কুমার দত্ত ও ডা. বদরুন্নেসা আহমেদ। বেগম জিয়ার চিকিৎসক দলের প্রধান, ডা. আবদুল জলিল বলেন, ‘ বেগম খালেদা জিয়া যে অবস্থায় এসেছিলেন, এখন তিনি আগের চেয়ে ভালো আছেন।’ তবে তিনি জানিয়েছেন বেগম জিয়ার মূল চিকিৎসা এখনও শুরু হয়নি। তাঁর বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে, এগুলোর রিপোর্ট পর্যালোচনার পরই মূল চিকিৎসা শুরু হবে। এখন বেগম জিয়ার প্রতিদিন একবার করে ফিজিও থেরাপী চলছে বলে তাঁর চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে আসার পর বেগম জিয়ার সঙ্গে কেবল তাঁর নিকটাত্মীয়রা দেখা করতে পারছেন। বেগম জিয়ার আইনজীবী এডভোকেট মোহাম্মদ আলী তাঁর সঙ্গে একদিন সাক্ষাৎ করেন। তবে দলীয় লোকজনকে তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে দেয়া হয়নি। তবে বাইরের খবর তিনি ঠিকই পাচ্ছেন এখন, সেটা কারাগারে তিনি পেতেন না।  

বাংলা ইনসাইডার/এমআরএইচ