ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ড. কামালের কাছে ক্ষমা চাইলেন তারেক

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০১৮ শনিবার, ০১:১১ পিএম
ড. কামালের কাছে ক্ষমা চাইলেন তারেক

নির্বাচনের জন্য আসন ভাগাভাগি নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মূল দল বিএনপি ও জোটের অন্যান্য শরিক দলগুলোর মধ্যে জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাতে নির্বাচনের আসন চূড়ান্ত করা নিয়ে বিএনপির মনোনয়ন বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সে সভায় লন্ডন থেকে নেতৃত্ব দেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়া। ওই সভায় সিদ্ধান্ত হয়, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলের জন্য সর্বোচ্চ ৫০টি আসন ছাড়বে বিএনপি। বিএনপির এমন সিদ্ধান্তে ঐক্যফ্রন্ট ক্ষুব্ধ হওয়ায় ভাঙ্গনের মুখে পড়েছে জোটটি।

জানা গেছে,  আসন্ন নির্বাচনে ২০ দলীয় জোটের শরিকদের জন্য ২৫টি এবং ঐক্যফ্রন্টের শরিক দলগুলোর জন্য ২৫টি আসন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। বিএনপির সিদ্ধান্ত জানার সঙ্গে সঙ্গেই ঐক্যফ্রন্টের শরিকদের মধ্যে বিদ্রোহ দেখা দিয়েছে। এই সিদ্ধান্তে ২০ দলের মধ্যে তেমন কোনো প্রতিক্রিয়া দেখা না দিলেও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক দলগুলো তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে।

একথা জানতে পেরে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মান ভাঙাতে শেষ পর্যন্ত তারেক জিয়াই লন্ডন থেকে ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে কথা বলেন এবং নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত ঐক্য অটুট রাখতে এবং যে কোনো মূল্যে নির্বাচনী ঐক্যকে টিকিয়ে রাখতে অনুরোধ করেন। তারেক ড. কামাল হোসেনকে অভিভাবক সম্বোধন করে বলেন, ‘আপনি ছাড়া ঐক্য অসম্ভব ব্যাপার।’

কিন্তু ড. কামাল জবাবে বলেন, ‘আমাকে বাদ দিয়ে আপনারাই সবকিছু করছেন। বাকিটাও আপনারা করেন।’ ড. কামালের ক্ষোভ বুঝতে পেরে তারেক জিয়া ক্ষমা প্রার্থনা করে বলেন, ‘আমি আপনার সন্তানের মতো। আমার কোনো ভুল-ত্রুটি হলে ক্ষমা করে দেবেন। কিন্তু আপনারা ঐক্যের মধ্যে আসেন।’

তারেক জিয়া এ সময় আরও বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্টের কতগুলো আসন দরকার সরাসরি আমাকে সে তালিকা দিলে আমি ব্যবস্থা করবো।’ তারেকের এই কথার পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরীক দলগুলোর একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আজ শনিবার বিকেলে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠকে শরীক দলগুলো বিএনপির কাছে প্রত্যাশিত আসনের একটি সর্বনিম্ন তালিকা দেবে। এই তালিকা মেনে না হলে ঐক্যফ্রন্টের দলগুলো বিএনপির সঙ্গে ঐক্যের থাকবে না বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো।

বাংলা ইনসাইডার/এসএইচটি/জেডএ