ঢাকা, বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

মনোনয়ন দৌড়ে বাদ পড়লেন আওয়ামী লীগের ২৬ জন সংসদ সদস্য

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৬ নভেম্বর ২০১৮ সোমবার, ১১:৪২ এএম
মনোনয়ন দৌড়ে বাদ পড়লেন আওয়ামী লীগের ২৬ জন সংসদ সদস্য

আওয়ামী লীগ আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য মনোনীত প্রার্থীদেরকে চিঠি দিতে শুরু করেছে দলটি। এপর্যন্ত পাওয়া খবরে ২৬ টি আসনে নতুন মুখ দেখা গেছে। এর ফলে ২৬ জন বর্তমান সংসদ সদস্য বাদ পড়ছেন এই মনোনয়নের দৌড়ের যুদ্ধে।

গতকাল রোববার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে এই কার্যক্রম শুরু করে দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, দল মনোনীত ২৩০ প্রার্থীকে চিঠি দেওয়া হচ্ছে।কোনও কোনও আসন বিকল্প হিসাবে ২ জন অথবা ৩ জনকেও চিঠি দেওয়া হচ্ছে। তবে, প্রত্যাহারের সময় এ ধরনের আসনগুলোয় প্রার্থী নির্দিষ্ট হবে।

এদিকে, ঢাকা-১৩ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান আর বাদ পড়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক।

টাঙ্গাইল-৩ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন আতাউর রহমান খান আর বাদ পড়েছেন তার ছেলে আমানুর রহমান রানা।

টাঙ্গাইল-৬ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন আহসানুল ইসলাম টিটু বাদ পড়েছেন আব্দুল বাতেন। টিটু আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও সাবেক সাংসদ সদস্য মকবুল হোসেনের ছেলে।

নওগাঁ-৫ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত আব্দুল জলিলের ছেলে নিজামুদ্দিন জলিল জন। এর আগে ছিলেন আব্দুল মালেক।

নেত্রকোনা-২ আসনে বাদ পড়েছেন যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় আর মনোনয়ন পেয়েছেন আশরাফ আলী খান খসরু।

নীলফামারী-৩ আসন জোটের শরীকদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। আর বাদ পড়েছেন গোলাম মোস্তফা।

মাগুরা-১ আসন থেকে বাদ পড়েছেন এ টি এম আব্দুল ওয়াহাব আর মনোনয়ন পেয়েছে প্রধানমন্ত্রীর এপিএস সাইফুজ্জামান শিখর।

খুলনা-২ আসনে বাদ পড়েছেন মিজানুর রহমান আর মনোনয়ন পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর চাচাতো ভাই শেখ সালাউদ্দিন জুয়েল।

খুলনা-৬  আসন থেকে বাদ পড়েছেন শেখ মোহাম্মদ নুরুল হক এবং মনোনয়ন পেয়েছেন আক্তারুজ্জামান বাবু।

বাগেরহাট-২ আসনে সংসদ সদস্য মীর শওকাত আলীর বাদশার পরিবর্তে মনোনয়ন পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর ভাতিজা শেখ তন্ময়।

পটুয়াখালী-৩ আসন থেকে সাবেক বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসেইন এর স্থানে মনোনয়ন পেয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশানারের ভাগিনা এ এস এম শাহাজাদা।

পিরোজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম এ আউয়ালের স্থানে মনোনয়ন পেয়েছেন স ম রেজাউল করিম।

মাদারীপুর-৩ আসনে সাংসদ আ ফ ম বাহার উদ্দিন নাছিমের পরিবর্তে মনোনয়ন পেয়েছেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ।

শরীয়তপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক এর পরিবর্তে মনোনয়ন পেয়েছেন দলের কার্য নির্বাহী সদস্য ইকবাল হোসেন অপু।

শরীয়তপুর-২ আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন আওয়ামী লীগের সম্পাদক এনামুল হক শামীম আর সাবেক ডেপুটি স্পিকার শওকত আলী বাদ পড়ে গেছেন।

পাবনা -২ আসনে খন্দকার আজিজুল হক আরজুর পরিবর্তে মনোনয়ন পেয়েছেন আহমেদ হক শামীম।

কিশোরগঞ্জ-২ আসনে সোহরাব উদ্দিনের পরিবর্তে পুলিশের সাবেক আইজি নূর মোহাম্মদকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

কক্সবাজার-৪ আসনে আলোচিত সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদির স্থানে তার স্ত্রী শাহীন আক্তারকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

ফরিদপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান এর পরিবর্তে মনোনয়ন পেয়েছেন সাবেক সচিব মঞ্জুর হোসেন বুলবুল।

নরসিংদী-৩ আসনে সংসদ সদস্য সিরাজুল ইসলাম মোল্লাকে বাদ দিয়ে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে জহিরুল হক ভূঁইয়াকে।

নড়াইল-২ আসনে ওয়ার্কাস পার্টির শেখ হাফিজুর রহমানের বদলে মনোনয়ন পেয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

সিরাজগঞ্জ-৩ আসন থেকে সংসদ সদস্য গাজী আমজাদ হোসেন মিলনের বদলে মনোনয়ন পেয়েছেন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আজিজ।

কুষ্টিয়া-৩ থেকে আব্দুর রুউফের পরিবর্তে মনোনয়ন পেয়েছেন সেলিম আলতাফ জর্জ।

চট্টগ্রামের-৯ আসনে জাতীয় পার্টির জিয়াউদ্দিন বাবলুর পরিবর্তে মনোনয়ন পেয়েছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুর রহমান নওফেল।

সিলেটে-১ আসনটিতে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের পরিবর্তে তার ছোট ভাই এ কে এম আবুল মোমেনকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

মৌলভীবাজার-৩ আসনে সায়মা মহসিনের বদলে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে নেছার আহমেদকে।

বাংলা ইনসাইডার/বিকে/জেডএ