ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

বিক্ষুব্ধ এরশাদ থাকবেন না ভোটের মাঠে

বিশেষ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ২৩ ডিসেম্বর ২০১৮ রবিবার, ০৪:০৪ পিএম
বিক্ষুব্ধ এরশাদ থাকবেন না ভোটের মাঠে

সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন জাপা চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ আগামীকাল সোমবার দেশে ফিরছেন। তবে দেশে ফিরলেও তিনি ভোটের মাঠে সরব হচ্ছেন না। সিঙ্গাপুরের ডাক্তারেরা জানিয়েছেন জাপা চেয়ারম্যানকে পূর্ণ বিশ্রামেই থাকতে হবে। তবে ক্ষমতাসীন সরকারের উপর অনেকটা বিক্ষুব্ধ হয়ে নীরব থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এরশাদ এমনটাই জানিয়েছেন এরশাদের ঘনিষ্ঠজনেরা।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসন বন্টন নিয়ে জাতীয় পার্টির সঙ্গে আওয়ামী লীগের বিরোধ তৈরী হয়। জাতীয় পার্টির ধারণা ছিল মহাজোট থেকে তারা কাঙ্ক্ষিত আসন নিয়ে সারাদেশে লাঙলের প্রার্থী দেবেন। তাছাড়া এরশাদের নেতৃত্বাধীন একটি সম্মিলিত জোটও গঠন করা হয়েছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে অনেক দরকষাকষির মাধ্যমে জাপার ভাগ্যে জুটে মাত্র ২৬টি আসন। মহাজোটে মাত্র ২৬ আসন নিয়ে জাপাকে সন্তুষ্ট থাকতে হয়। জাপাকে সম্মানজনক আসন বরাদ্দ না দেয়ায় এরশাদ হঠাৎ করেই নিজেকে গুটিয়ে নেন। পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মশিউর রহমান রাঙ্গাকে দায়িত্ব দেন মহাসচিবের। আর নয়া মহাসচিবকে দায়িত্ব দেয়া হয় সরকারের সঙ্গে দরকষাকষি করে আসন সংখ্যা বৃদ্ধির জন্য।

নয়া মহাসচিব রাঙ্গা সারারাত দেন দরবার করেও কাঙ্ক্ষিত আসন আনতে পারেননি ঘরে। আর পরের প্রেক্ষাপট ভিন্ন সরকারের নীতি-নির্ধারকদের সাথে ভিন্নমত পোষণ করে দেড় শতাধিক আসনে মহাজোটের বাইরে জাতীয় পার্টি প্রার্থিতা ঘোষণা করে। শুরুতে সরকার বিষয়টি স্বাভাবিকভাবে নিলেও যতই দিন যাচ্ছে জাপার এসব উন্মুক্ত প্রার্থীরা আওয়ামী লীগের জন্য চরম মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। একাধিক সূত্র জানায়, প্রায় ৫০টিরও অধিক আসনে জাপা প্রার্থীর সঙ্গে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর জোরালো প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। আর যতই দিন যাচ্ছে ঐসব আসনে জাপা-আওয়ামী লীগ সংঘাতে জড়িয়ে পড়ছে। তবে এসব বিষয় নিয়ে জাপার কোনস্তরের নেতা-কর্মীদের কোন মাথাব্যথা নেই। কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের নেই কোন দিক নির্দেশনা। এরশাদবিহীন জাপার প্রার্থীরা অন্ধকারে হাবুডুবু খাচ্ছেন বলে অনেকেই খেদোক্তি প্রকাশ করেছেন।

এদিকে, সিঙ্গাপুর থেকে এরশাদ দেশে ফিরে আসলেও কোন আশার আলো দেখছেন না জাপার দেড় শতাধিক আসনের উন্মুক্ত প্রার্থীরা। শতাধিক আসনের প্রার্থীরা নিজেদের মত করে কাউকে না কাউকে সমর্থন দিয়ে নীরবেই মাঠ ছাড়ছেন। সিঙ্গাপুর থেকে এরশাদের ব্যক্তিগত সহকারী আব্দুল ওয়াহাব মিয়া বাংলা ইনসাইডারকে জানান, স্যার পুরোপুরি সুস্থ নন, দেশে ফিরলেও তাঁকে বেশ কিছুদিন বিশ্রামে থাকতে হবে। ভোটের মাঠে উপস্থিত থাকা নিয়েও রয়েছে চরম অনিশ্চয়তা। মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা জানান, স্যার (এরশাদ) দেশে ফেরার পরই অবস্থা বুঝে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তবে তিনি জানান, কিছু করার জন্য হাতে যে সময় থাকা প্রয়োজন ছিল তা নেই।

বাংলা ইনসাইডার/এমআর