ঢাকা, রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ক্ষোভের আগুনে জ্বলছে জাপা

বিশেষ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৫ জানুয়ারি ২০১৯ শনিবার, ০১:২০ পিএম
ক্ষোভের আগুনে জ্বলছে জাপা

জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা এবং উপনেতা এবং চীফ হুইপ নিয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদের আচমকা ঘোষণায় জাপার অভ্যন্তরে চলছে গৃহযুদ্ধ। এরশাদ আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন সব কিছু সামাল দিয়ে জাতীয় পার্টিকে একাদশ সংসদে বিরোধী দলের ভূমিকায় থাকতে। তবে এরশাদের আচমকা এমন সিদ্ধান্তে চটেছেন বেশ কয়েকজন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য। এসব প্রেসিডিয়াম সদস্য এরশাদের এমন সিদ্ধান্ত স্বৈরাচারী মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ বলে অভিমত দিয়েছেন।

এদিকে, জাতীয় পার্টি সরকার এবং বিরোধী দলে থাকবে এমন পরিকল্পনায় যারা ছিলেন তারা এখন দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন বিভিন্ন মহলে। সম্পতি কোনঠাসা হওয়া বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদকে ম্যানেজ করে কীভাবে সরকারে থাকা যায় সে বিষয়ে কাজ করছেন কয়েকজন প্রেসিডিয়াম সদস্য। এদের মধ্যে বর্তমান মন্ত্রিসভায় থাকা বন ও পরিবেশ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু এবং এলজিইডি প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা এবং প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা চাচ্ছেন মহাজোটের শরীক হিসেবে সরকারের মন্ত্রিসভায় স্থান পেতে। তবে কৌশলী এরশাদ ইতিমধ্যেই দলের মহাসচিব এবং এলজিইডি প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গাকে বিরোধী দলীয় চীফ হুইপ নিয়োগ দিয়েছেন।

রাঙ্গার আচমকা নিয়োগ নিয়েও জাপা অভ্যন্তরে শুরু হয়েছে বির্তক। পার্লামেন্টারি কমিটির কোন রকম বৈঠক ছাড়া বিরোধী দলীয় নেতা, উপনেতা এবং চীফ হুইপ নিয়োগ কতটা যুক্তিযুক্ত তা নিয়ে সরাসরি এরশাদের দিকে আঙ্গুল তুলেছেন জাপার বেশ কয়েকজন নির্বাচিত সংসদ সদস্য। একাধিক সূত্র জানিয়েছে, আজ সকালে বেশ কয়েকজন সংসদ সদস্য বেগম রওশন এরশাদের সঙ্গে সাক্ষাত করতে গিয়ে ফিরে এসেছেন। তিনি সরাসরি কারো সঙ্গে সাক্ষাত করছেন না বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, বিরোধী দলের নেতা কে হবেন তা নিয়ে বেগম রওশন এরশাদ আজ বা কাল কথা বলবেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে। প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি পেলেই বেগম রওশন এরশাদ জাপার সংসদীয় কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত নেবেন।

বাংলা ইনসাইডার/এমআর