ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ড. কামালের নেতৃত্বে নতুন দল?

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ শুক্রবার, ০৬:০০ পিএম
ড. কামালের নেতৃত্বে নতুন দল?

৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনে বিপর্যয়ের পর ড. কামাল হোসেন রাজনীতিতে নতুন মেরুকরণের চেষ্টা করছেন। এই মুহূর্তে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে নানারকম সমস্যা ও টানাপোড়েন চলছে। তাছাড়া জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে বিএনপির অবস্থান নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে নানা প্রশ্ন রয়েছে। একারণেই ড. কামাল হোসেন একটা নতুন রাজনৈতিক দলের চিন্তাভাবনা করছেন। যে দলে স্বাধীনতা বিরোধী, যুদ্ধাপরাধীরা  থাকবে না। একটা সেক্যুলার শক্তি হিসেবে আবির্ভূত হওয়ার চেষ্টা করছেন ড. কামাল। এ ব্যাপারে তাঁকে সহযোগিতা করছে এবং পরামর্শ দিচ্ছে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সম্প্রদায় এবং বাংলাদেশের সুশীল সমাজের একাংশ।
ড. কামাল হোসেনের আকাঙ্ক্ষা ছিল যে ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনে ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে বর্তমান সরকারের অবসান ঘটানো। কিন্তু জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট জনগণের মধ্যে তেমন কোনো দাগ ফেলতে পারেনি। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে ড. কামাল হোসেনের দল গণফোরাম নিজেরা বিশ্লেষণ করেছে তাতে মনে হয়েছে এবং তাঁরা বলছে সুনির্দিষ্ট রাজনৈতিক কর্মসূচি, জামাতের সঙ্গে সম্পর্কের অবস্থান, তারেক জিয়া নিয়ে বিতর্ক এই তিন কারণে তাঁদের প্রতি জনগণ মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। তাই নির্বাচনের পর এখন আন্দোলন সংগ্রামের আগে এখন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে ড. কামাল হোসেন এবং তাঁর সহযোগীরা। এই উদ্যোগে একটি প্রস্তাব এসেছে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে নতুন দল।

৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের পর বিএনপিতে টালমাটাল অবস্থা। বিএনপি ভাঙনের মুখোমুখি দাড়িয়ে আছে। বিএনপিতে একটি পক্ষ জামাতের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগে আগ্রহী, অন্য একটি পক্ষ জামাতের সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে আগ্রহী। তারেকের নেতৃত্ব নিয়েও বিএনপি এখন দ্বিধাবিভক্ত অবস্থায় আছে। এরকম পরিস্থিতিতে বিএনপিতে উদারপন্থী এবং জামাত বিরোধী অংশকে ঐক্যফ্রন্টে নিয়ে এসে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যান্য দলগুলোকে একীভূত করে একটি নতুন রাজনৈতিক দলের মেরুকরণ শুরু হয়েছে বলে একাধিক রাজনৈতিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। এখানে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে বিএনপির একটি উদারপন্থী অংশকে নিয়ে আসা, ঐক্যফ্রন্টের যে দলগুলো আছে সেগুলোকে একীভূত করা এবং ১৪দলের যে শরীকগুলো আছে যারা এখন নানা কারণে অসন্তুষ্ট ও বিক্ষুব্ধ তাঁদেরকে নিয়ে এসে একটি নতুন রাজনৈতিক কাঠামো করাই হলো সাম্প্রতিক সময়ে  ড. কামাল হোসেনদের রাজনৈতিক লক্ষ্য। তবে গণফোরামের একাধিক সূত্র বলেছে যে, এই রাজনৈতিক লক্ষ্যটি একা ড. কামাল হোসেনের নয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মহল এরকম একটি নতুন রাজনৈতিক দলের জন্য ড. কামাল হোসেনকে সহযোগিতা করছেন। একাধিক সূত্র বলছে, যেহেতু জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ব্যর্থ হয়েছে সেজন্য জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট না রেখে  ঐক্যফ্রন্টের আদলে ছোট ছোট রাজনৈতিক দলগুলোকে আলাদা না রেখে একটি অভিন্ন রাজনৈতিক দলের অবয়ব দেওয়ার চিন্তাভাবনা চলছে। যেটি হবে রাজনীতিতে আওয়ামী লীগের প্রধান বিরোধী শক্তি। বিএনপির একাধিক নেতা বলেছেন, বিএনপি এখন যে পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে তাতে বিএনপি ভাঙন এখন সময়ের ব্যাপার। এরকম পরিস্থিতিতে বিএনপির অনেকেই জামাতের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগ করে আলাদা একটি প্লাটফর্মে দাঁড়াতে চাইছে। তবে এই নতুন রাজনৈতিক দল হবে না জোট হবে সেটি এখনও নিশ্চিত নয়।

বাংলা ইনসাইডার/এসআর