ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

‘দেশে ফিরছি, প্রস্তুতি নিন’

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৫ মার্চ ২০১৯ সোমবার, ০৮:৩৯ পিএম
‘দেশে ফিরছি, প্রস্তুতি নিন’

বিএনপির একাধিক নেতার সঙ্গে তারেক জিয়া আজ কথা বলেছেন। সবাইকে বলেছেন, ‘দেশে ফিরছি, প্রস্তুতি নিন। আমি দেশে ফেরার ঘোষণা দিবো দুই সপ্তাহের মধ্যে। দেশে ফিরলে সারাদেশ থেকে যেন জনজাগরণ হয় সেটার প্রস্তুতি নিন এবং দলকে শক্তিশালি করুন।’ তারেকের এই টেলিফোন বার্তায় অনেকেই বিস্মিত হয়েছেন , অনেকে হতবাকও হয়েছেন। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানতে চেয়েছেন যে, ‘সত্যি দেশে ফিরবেন না এটা স্রেফ একটা প্রপাগান্ডা?’

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, তখন তারেক বলেছেন, ‘আমি দেশেই ফিরবো। দুই সপ্তাহের মধ্যে আমি তারিখ জানাবো।’ মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়াও বিএনপির যে সমস্ত নেতার সঙ্গে তারেক জিয়া দেশে ফেরার কথা বলেছেন, তাদের মধ্যে রয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু এবং বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহামুদ চৌধুরি। ধারনা করা হচ্ছে যে, বিএনপিতে যে সাংগঠনকিভাবে কোন্দল মত বিরোধ এবং দলের তৃনমূলের মধ্যে হতাশা সেই হতাশা কাটানোর জন্য এবং দলের কোন্দল মেটানোর জন্য তারেক আকস্মিকভাবে দেশে ফেরার ঘোষণা দিয়েছেন। এ ব্যাপারে কূটনৈতিক সূত্রগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা বলেন যে, তারেক এই মুহূর্তে চাইলেও দেশে ফিরতে পারবেন না। কারণ তিনি পাসপোর্ট ব্রিটিশ হোম ডিপার্টমেন্টে জমা দিয়েছেন। ব্রিটিশ হোম ডিপার্টমেন্ট তার পাসপোর্ট বাংলাদেশ দূতাবাসে পাঠিয়েছে এবং তার মেয়াদউত্তীর্ণ হয়েছে। তারেক জিয়া বর্তমানে রাজনৈতিক আশ্রয়ে লন্ডনে অবস্থান করেছেন। তবে ব্রিটিশ দূতাবাসের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, যেকোন রাজনৈতিক আশ্রয় প্রাপ্ত ব্যক্তি যদি দেশে ফিরতে চান সেক্ষেত্রে পাসপোর্টের প্রয়োজন হয় না। একটি পারমিট পাস দিয়ে তাকে সেদেশে ফেরানো যায়।

উল্লেখ্য যে তারেক জিয়াকে দেশে ফেরানোর জন্য বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে তিনটি লিখিত আবেদন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে দেওয়া হয়েছে এবং হোম ডিপার্টমেন্ট সেটা তদন্ত করছে বলে জানা গেছে। সর্বশেষ তারেককে দেশে ফেরানোর ক্ষেত্রে যে অগ্রগতি সেটি হলো, তারেকের সঙ্গে বিভিন্ন জঙ্গী সংগঠনের সম্পৃক্ততার ব্যাপারে সরকার যে অভিযোগ করেছে সেই অভিযোগ খতিয়ে দেখে ব্রিটিশ হোম ডিপার্টমেন্ট তারেক জিয়াকে একটি লিখিত নোটিশ দিয়েছিল যে নোটিশে বলা হয়েছে, তাকে নব্বই দিনের মধ্যে এই অভিযোগ খন্ডানোর সময় দেওয়া হয়েছে। আগামী ১৫ জুনের মধ্যে তারেককে এই নোটিশের জবাব দিতে হবে।

তবে তারেক জিয়া দেশে ফিরুক বা না ফিরুক, খুব শীঘ্রই যে তারেকের দেশে ফেরার বার্তা বিএনপি দিবে সেটা বিএনপির নেতাদের সঙ্গে কথা বলে স্পষ্ট হওয়া গেছে।


বাংলা ইনসাইডার/এমআরএইচ