ঢাকা, বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

হম্বি-তম্বিতেই ব্যস্ত গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী!

বিশেষ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ১১ জুন ২০১৯ মঙ্গলবার, ১১:৪৯ এএম
হম্বি-তম্বিতেই ব্যস্ত গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী!

মন্ত্রীসভার সদস্য হিসেবে দায়িত্ব নেবার পর থেকেই হম্বি-তম্বি করেই সময় পার করছেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী এডভোকেট শ ম রেজাউল করিম। নিজ মন্ত্রণালয়কে দুনীতির উর্দ্ধে রাখার ঘোষণা দিয়ে তা রুখতে পারছেন না কোনভাবেই। বিশেষকরে রাজউকের রাঘব-বোয়াল দুনীতিবাজরা এখনো ধরা-ছোঁয়ার বাইরে। মন্ত্রীর হম্বি-তম্বিকে কোনভাবেই পাত্তা দিচ্ছেন না তারা। বিশেষকরে বিজেএমসি ভবন ভাঙ্গা নিয়ে মন্ত্রী যে হুংকার দিয়েছিলেন তাতে অনেকেই নড়েচড়ে বসেছিলেন। অনেকেরই ধারনা ছিলো দুর্নীতি করে হয়তোবা পার পাওয়া যাবে কিন্তু পরক্ষনেই তা ভূল প্রমাণিত হয়। প্রতিদিনই মন্ত্রী কোন না কোন সভা-সমাবেশ কিংবা সেমিনারে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করছেন। 

সম্প্রতি জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের এক সভায় তিনি কঠিন হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘হয় দুর্নীতিবাজরা থাকবে, না হয় আমি থাকব।’ এনিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির উপর জিরো টলারেন্স। দুর্নীতি দূর করতে তিনি সরকার গঠন করেছেন। আমি সেই সরকারের একজন মন্ত্রী। আমার অধীনে কেউ দুর্নীতি করতে পারবে না।শ. ম. রেজাউল করিম বলেন, ‘আমি নিজে ঘুষ খাই না। কমিশন খাই না। আমার অধীনস্থ কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারীকেও ঘুষ খেতে দেব না। কমিশন বাণিজ্য ও সিন্ডিকেট করতেও দেব না। সিন্ডিকেট বাণিজ্য বন্ধ।’মন্ত্রী আরও বলেন, ‘রাজউকে এক হাজারের বেশি ফাইল পাওয়া যাচ্ছিল না। আমরা ইতোমধ্যে ৭০০ ফাইল উদ্ধার করেছি। অনেক ডেস্কের তালা ভেঙে ফাইল বের করেছি। ফাইল বের হতে হবে। হয় ফাইল বের হবে, না হয় অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বের হয়ে যেতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ ও রাজউকের বেশকিছু কর্মকর্তা কর্মচারীর বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ আমার কাছে রয়েছে। সবাইকে ভালো হতে হবে। ভালো যদি না হয় খুব শিগগিরই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সিন্ডিকেট আমি ভাঙবই। এটা আমি করতে না পারি তাহলে আমি হারিয়ে যাব। অন্যথায় যাদের দুর্নীতির কারণে মানুষ ভুগছে তারাই হারিয়ে যাবে।’