ঢাকা, শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কেন চয়ন ইসলাম?

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২০ অক্টোবর ২০১৯ রবিবার, ১০:১৩ পিএম
কেন চয়ন ইসলাম?

যুবলীগের নবম কংগ্রেস যে ওমর ফারুক চৌধুরীর নেতৃত্বে হবে না সেটা নির্ধারিত ছিল। কিন্তু এটা নিয়ে গুঞ্জন ছিল কার নেতৃত্বে যুবলীগের কংগ্রেস হবে। এই নিয়ে নানারকম জল্পনা কল্পনা ছিল। যখন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যুবলীগ নেতৃবৃন্দের বৈঠক চলছিল তখন এই নিয়ে নানারকম গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ছিল। কিন্তু এইসমস্ত গুজব গুঞ্জনের কোনকিছুতেই ছিলেন না চয়ন ইসলাম। এমনকি চয়ন ইসলামের নাম যখন ঘোষনা করা হয় তখন সেখানে উপস্থিত যুবলীগের প্রায় ৩৫জন সদস্যই চমকে ওঠেন এবং তাদের জন্য এটা ছিল অপ্রত্যাশিত।

যুবলীগের চেয়ারম্যান সরে যাচ্ছেন। সরে যাওয়ার পর কার নেতৃত্বে হবে যুবলীগের কংগ্রেস এটা নিয়ে যুবলীগের নেতৃবৃন্দের মধ্যে নানারকম প্রতিযোগিতা ছিল। এই প্রতিযোগিতায় সবার অগোচরেই শেখ ফজলে নূর তাপসের নাম উঠে এসেছিল। শেখ ফজলে নূর তাপস হলেন শেখ ফজলুল হক মনির ছোট ছেলে। যখন এই বৈঠক চলছিল তখন তাপসের নাম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছিল। আবার যুবলীগের সাবেক চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির নানক শহীদ সেরনিয়াবাতকে আহ্বায়ক করার জন্য যারপনাই লবিং করেছিলেন। কিন্তু তাঁর এই লবিংয়ে কাজ হয়নি। অন্যদিকে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ চৌধুরীও। কিন্তু এদের সবাইকে টপকিয়ে চয়ন ইসলাম কীভাবে হলেন সেটাই প্রশ্ন সবার। 

অনুসন্ধানে জানা যায় যে, চয়ন ইসলাম ২০০৮ সালের নির্বাচনে এমপি হলেও পরবর্তী নির্বাচনে মনোনয়ন পাননি। মনোনয়ন না পেলেও তিনি আওয়ামী লীগ সভাপতি বা আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে কোন কাজ করেননি। সংস্কৃতিমনস্ক এই লোকটি সবসময় বঙ্গবন্ধুর আদর্শের অনুসারি ছিলেন এবং কখনও চাওয়া পাওয়ার হিসেব করেননি। এই জন্যই আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা তাকে মূল্যায়ন করেছেন। এর মাধ্যমে শেখ হাসিনা একটি স্পষ্ট দিলেন যারা দলের জন্য নিবেদিত প্রাণ, যারা দলের দুঃসময়ের সাথী এবং যারা চাওয়া পাওয়ার হিসেব করে না তাঁদেরকে তিনি সবসময় মূল্যায়ন করেন। চয়ন ইসলামকে কগ্রেস প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক করার মধ্যদিয়ে শেখ হাসিনা আরেকবার তিনি যে সৎ নেতৃত্বকে সামনে আনতে চান তাঁর জানান দিলেন।

বাংলা ইনসাইডার