ঢাকা, রোববার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বির্তকিতরা এবার ঠাঁই পাচ্ছেন না আওয়ামী লীগে

ওয়াহিদ মিল্টন
প্রকাশিত: ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯ মঙ্গলবার, ১২:২২ পিএম
বির্তকিতরা এবার ঠাঁই পাচ্ছেন না আওয়ামী লীগে

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আসন্ন কাউন্সিলকে ঘিরে দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দিপনা থাকলেও কালো মেঘের ছাঁয়া পড়েছে কতিপয় নেতার বিতর্কিত কর্মকান্ডকে ঘিরে। বিশেষ করে স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও যুবলীগে এর প্রভাব পড়েছে সবচেয়ে বেশি। আগামী কাউন্সিলে যারা পদ প্রত্যাশী ছিলেন তারা বর্তমানে চিন্তিত। দলের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার টেবিলে এসব বির্তকিত নেতাদের আমলনামা থাকার কারণে দলের হাইকমান্ডের কাছেও তারা বেশি উচ্চবাচ্য করতে পারছেনা। ইতিমধ্যে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এসব বির্তকিত নেতাদের ব্যাপারে হুসিয়ারী উচ্চারণ করেছেন। আর এরপর থেকে নড়েচড়ে বসেছেন এসব বির্তকিত নেতারা।

জানা গেছে, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের বিতকিতরা আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে পদ পাচ্ছেন না এটি নিশ্চিত। তবে সদ্য সমাপ্ত বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কংগ্রেস শেষ হয়েছে। যারা যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য পদে রয়েছেন তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন বিভিন্ন কর্মকান্ডে বিতকিত হওয়ায় তাদের বাদ দেয়া হবে বলে জানা গেছে। এর মধ্যে সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন। ইতিমধ্যে শাওন ও তার স্ত্রীর সম্পদের হিসাব বিবরণী চেয়েছে দুদক। এছাড়া সিরাজুল ইসলাম, মাহবুবুর রহমান হিরন ও বেসিক ব্যাংকের সাবেক পরিচালক আনোয়ারুল ইসলাম অন্যতম।

আনোয়ারুল ইসলাম আনোয়ার, যুবলীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বেসিক ব্যাংকের সাবেক পরিচালক।
মাহবুবুর রহমান হিরন, যুবলীগের সাবেক প্রেসিয়াম সদস্য এবং রুপালী ব্যাংকের সাবেক পরিচালক।আনোয়ারুল ইসলাম আনোয়ার যুবলীগের সাবেক চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচিত। যিনি যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন। ওমর ফারুক চৌধুরী চেয়ারম্যান হওয়ার পর আনোয়ারকে এক লাফে পদোন্নতি দিয়ে প্রেসিডিয়াম মেম্বার করা হয়। দুদকের তদন্তে বেসিক ব্যাংক কেলেংকারিতে আনোয়ারের নাম রয়েছে।

বির্তকিত কর্মকান্ডের কারণে সদ্য বাদ পড়া আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা আবু কাউসার। যার বিরুদ্ধে ক্যাসিনো কেলেংকারীর অভিযোগ উঠায় ইতিমধ্যে দুদক তার সম্পদের হিসাব বিবরনী চেয়েছে। ইতিমধ্যে তার সকল ব্যাংক হিসাব জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ বিভিন্ন অর্থনৈতিক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে তাকেও পদচ্যুত করা হয়। আগামী কাউন্সিলে যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের বির্তকিত নেতাদের কোনভাবেই আওয়ামী লীগের কোন পদে রাখা হচ্ছেনা বলে দলের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।