ঢাকা, সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১১ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে এতো অভিযোগ কেন?

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ রবিবার, ০৫:৫৯ পিএম
ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে এতো অভিযোগ কেন?

 

সিলেটে এমসি কলেজে ধর্ষণের ঘটনায় আবার আলোচনায় ছাত্রলীগ। ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্তরা ছাত্রলীগ কর্মী। গত এক দশক ধরেই ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ। কোথাও চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজির, কোথাও শিক্ষককে পেটানো, কোথাও নারীকে উত্যক্ত করার। আর এসব অভিযোগের আড়ালে হারিয়ে যাচ্ছে তাদের ভালো কাজগুলোর।

কৃষকদের সহায়তায় করোনাকালে ছাত্রলীগের ধান কাটা, ত্রাণ বিতরণের মতো ভালো কাজগুলো আলোচনায় আসছে না, অথচ ধর্ষণ, চাঁদাবাজির ঘটনাগুলো ঐতিহ্যবাহী এই সংগঠনকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে। আওয়ামী লীগের নেতারাও ছাত্রলীগের কর্মকাণ্ডে নাখোশ। তারা বলছেন ‘ছাত্রলীগকে ঢেলে সাজানো প্রয়োজন।’ কিন্তু প্রশ্ন হলো, কেন একের পর এক অপকর্মে জড়িয়ে পড়ছে ছাত্রলীগ। অনুসন্ধান করলে খুঁজে পাওয়া যায়, এর পেছনে সুনির্দিষ্ট কিছু কারণ:-

১. অনুপ্রবেশকারীরা: আওয়ামী লীগের মধ্যে এটা এখন ওপেন সিক্রেট যে, অনুপ্রবেশকারীরা ছাত্রলীগকে ঘিরে ফেলেছে। বিএনপি-জামাত থেকে শুরু করে সন্ত্রাসী, দূবৃত্তরা অবাধে ঢুকে পড়ছে ছাত্রলীগে। এরাই নানা অপকর্ম করছে। যেসব অপকর্ম নিয়ে আলোচনা হচ্ছে, তার ৯০ শতাংশই করছে অনুপ্রবেশকারীরা।

২. প্রভাবশালী নেতারা ব্যবহার করছেন ছাত্রলীগকে: ছাত্রলীগকে বিতর্কিত করতে আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতাদের ভূমিকাও কম না। প্রভাবশালী নেতারা তাদের লাঠিয়াল হিসেবে ব্যবহার করেন ছাত্রলীগকে। তাদের দিয়ে নানা অপকর্ম করান। এক সময় এসব করতে করতে দুর্বীনিত হয়ে ওঠে অনেকে। এর সবচেয়ে বড় উদাহরণ ফরিদপুর।

৩. শিক্ষকদের রাজনীতি:- ছাত্রলীগকে নিয়ে এতো বিতর্কের পেছনে শিক্ষক রাজনীতিও কম দায়ী নয়। শিক্ষকরা সরকারে সুদৃষ্টি পাবার জন্য, ভালো পদ পেতে, ভিপি হতে, ছাত্রলীগের ওপর ভর করেন। তাদের প্রশ্রয় দেন। ছাত্রলীগকে টেন্ডারের প্রলোভন দেখান। এভাবে ছাত্রলীগ আস্তে আস্তে লোভে পড়ে নষ্ট হয়।

৪. আদর্শিক চর্চার অভাব:- এক সময় ছাত্রলীগে আদর্শিক চর্চা হতো। পাঠচক্র হতো। নেতারা ছাত্রলীগের কর্মীদের বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, রাজনীতি সম্পর্কে জ্ঞান দিতেন। এসব এখন অতীতের বিষয়। ছাত্রলীগের মধ্যে এখন পাঠচক্র নেই, আদর্শ চর্চাও নেই। আদর্শহীন একজন কর্মী ক্ষমতা পেলে ন্যায়-অন্যায়ের পার্থক্য করতে পারে না।

৫. গণমাধ্যমের অতি প্রচারণা:- ছাত্রলীগের ব্যাপারে গণমাধ্যম যেন সব সময় নেতিবাচক। ছাত্রলীগের ছোট অপকর্মও যেন গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচার হয়। ছাত্রলীগ যা করে, প্রচার হয় তার চেয়েও বেশি।