ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তার ‘গোপন’ রহস্য

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ রবিবার, ১০:০০ পিএম
শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তার ‘গোপন’ রহস্য

 

ঘটনা-১
রোববার সকালে মেডিসিন সোসাইটির এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বক্তব্যের এক পর্যায়ে তিনি বললেন ‘করোনা সংকটে অনেকে সমালোচনা করেছেন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী সাহস, দিয়েছেন।’ করোনায় সমালোচনায় নাস্তানাবুদ স্বাস্থ্যমন্ত্রী যখন প্রস্থানের পথ খুঁজছিলেন। যখন কেবিনেট কলিগরাও তাকে এড়িয়ে যাওয়া শুরু করেন। সে সময় শেখ হাসিনা তার পাশে দাঁড়ান। তাকে অভয় দেন, তাকে পরামর্শ দেন। প্রধানমন্ত্রী নিজেই সব দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেন। এসময় চাইলেই শেখ হাসিনা জাহিদ মালেককে ছুঁড়ে ফেলতে পারতেন। এতে ক্ষণিকের জন্য হাততালিও পেতেন। কিন্তু সস্তা জনপ্রিয়তার পথে না গিয়ে, শেখ হাসিনা একজন কর্মীকে ভুল থেকে শিক্ষা নিতে সাহায্য করছেন। সস্তা জনপ্রিয়তা নয় দীর্ঘস্থায়ী অর্জনের পথে হেটেছেন শেখ হাসিনা।

ঘটনা-২
সরকারের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানালেন, বেগম জিয়ার ছোট ভাই ও বোন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে চান। ওই কর্মকর্তা ইতস্তত ও বিচলিত। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী এতোটুক অবাক না হয়ে, সময় দিলেন। তারা দেখা করলেন। প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে নির্বাহী আদেশে জামিন দিতে আইনমন্ত্রীকে নির্দেশ দিলেন। তথ্য প্রমাণ বলে ২০০৪ সালের ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার সঙ্গে জড়িত ছিলেন বেগম জিয়া। ওই হত্যার আলামত নষ্টের জন্য তিনি রাষ্ট্রীয় প্রভাব খাটিয়েছিলেন। যিনি তাকে হত্যা করতে চেয়েছিলেন, তাকে তিনি মুক্তির নির্দেশ দিলেন।

এ রকম অনেক ঘটনা আছে কোনটা ছেড়ে কোনটা গুরুত্বপূর্ণ? এই প্রশ্নের উত্তর দেবেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু শেখ হাসিনা রাজনীতিতে এক নতুন ধারার সূচনা করেছেন। তিনি আদর্শ ও বিশ্বাসে অটল থেকেছেন। বিপদে ঘাবড়ে যাননি। প্রতিকূলতাকে জয় করেছেন। দীর্ঘ দিন ক্ষমতায় থাকার পরও অহমিকা, আমিত্ব তাকে পেয়ে বসেনি। সব সময় মাটিতে পা রেখেছেন। অসম্ভব সাহসী আবার প্রচণ্ড দরদী। দুর্বৃত্তদের জন্য এক বিন্দু ছাড় নয় আবার নিপীড়িতদের জন্য সব কিছু উজাড় করে দেন। সবথেকে বড় কথা, তিনি জনগণের ভাষা বোঝেন। জনগণের আশা আকাঙ্ক্ষাকে ধারণ করেন। রাষ্ট্র বা সরকার প্রধানরা যখন জনগণের থেকে নক্ষত্রের দূরত্বে যান। শেখ হাসিনা বরং উল্টো। অচেনা মানুষের ফোন ধরেন। তার কথা শোনেন। তিনি জনগণের সঙ্গে একটা সংযোগ স্থাপন করতে পেরেছেন। আর একারণেই দীর্ঘ প্রায় এক যুগ টানা ক্ষমতায় থাকার পরও শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা কমেনি। বরং তিনিই এখন বিকল্পহীন। শেখ হাসিনাই যেন এখন বাংলাদেশ। দেশের সব মানুষ বিশ্বাস করে শেখ হাসিনার বিকল্প শেখ হাসিনাই।