ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ৩ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কাদের মির্জার কাণ্ডে ক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ সভাপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১ শুক্রবার, ০৮:৫৮ পিএম
কাদের মির্জার কাণ্ডে ক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ সভাপতি

শেষ পর্যন্ত আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বসুরহাট পৌরসভার নির্বাচিত মেয়র কাদের মির্জার আচরণে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বলে আওয়ামী লীগের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। আজ বসুরহাটে কাদের মির্জার সাথে তার প্রতিপক্ষের সংঘর্ষ বাঁধে এবং গত কয়েকদিন ধরেই বসুরহাটে এলাকায় কাদের মির্জা একরকম উত্তেজনা ছড়াচ্ছিলেন।

কাদের মির্জা এই ঘটনা সারাদেশে আওয়ামী লীগের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলেছে। উল্লেখ্য যে, বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে বিতর্কিত মন্তব্যের মাধ্যমে আলোচনায় আসেন কাদের মির্জা। তিনি কেবলমাত্র বসুরহাট পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ছিলেন না, বরং তিনি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাইও বটে। আর এজন্য তার বিতর্কিত কথাগুলো গণমাধ্যমে ব্যাপকভাবে প্রচারিত হয়েছিল।

এই সময় পর্যন্ত আওয়ামী লীগ সভাপতির কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকও কাদের মির্জার ব্যাপারে তেমন কোনো কথাবার্তা প্রথমদিকে বলেননি। কাদের মির্জা নির্বাচিত হওয়ার পরেও যখন তিনি তার বিতর্কিত বক্তব্য অব্যাহত রাখেন, তখন ওবায়দুল কাদের তাকে এ সমস্ত কথাবার্তা বন্ধ করার জন্য বলেন। উল্লেখ্য যে, নির্বাচনের পরে কাদের মির্জা আওয়ামী লীগকে আক্রমণ করে কথাবার্তা বলা শুরু করেছিলেন। আওয়ামী লীগের একটি দায়িত্বশীল সূত্র বলছে আগামীকালের মধ্যে সাময়িকভাবে বরখাস্ত হতে পারেন কাদের মির্জা। আওয়ামী লীগ মনে করছে, কাদের মির্জার এরকম আচরণের পিছনে বিএনপি-জামাতের ইন্ধন আছে। আওয়ামী লীগের একজন নির্বাচিত প্রতিনিধি হিসেবে তিনি যেভাবে কথা বলছেন তা বিএনপি-জামাতের বক্তব্যের মত। কাজেই আওয়ামী লীগের কোন স্থানীয় পর্যায়ের নেতা এভাবে কথা বলতে পারেনা। আর এই সবকিছু নিয়েই প্রধানমন্ত্রীর কাছে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতারা অভিযোগ করেছেন।

সর্বশেষ গত কয়েকদিনের ঘটনা এবং আজ আওয়ামী লীগের সহিংসতায় প্রধানমন্ত্রী ক্ষুব্ধ হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের ভিতর দ্বন্দ্ব, অন্তঃকলহ এবং অনুপ্রবেশকারীদের ঠেকানোর কথা বলে আসছিলেন। আর এই সহিংসতায় বর্তমান রাজনীতির বাস্তবতায় আওয়ামী লীগের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলেন, প্রধানমন্ত্রী এই কাদের মির্জার আচরণে ক্ষুব্ধ হয়েছেন এবং এই জন্য খুব শীঘ্রই তার বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে।

আরো পড়ুন: আওয়ামী লীগের কার্যক্রম থেকে কাদের মির্জাকে অব্যাহতি