কালার ইনসাইড

কোকাকোলার বিজ্ঞাপন নিয়ে ক্ষমা চাইলেন জীবন-শিমুল


প্রকাশ: 11/06/2024


Thumbnail

সম্প্রতি ফিলিস্তিন-ইসরায়েল ইস্যুতে সারাবিশ্বের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে কোমল পানীয় 'কোকাকোলা' বয়কটের ডাক দেয় দেশের একটি মহল। কোকাকোলা ইসরায়েলের একটি কোম্পানি এমন একটি  ধারণা দীর্ঘদিন ধরে সামাজিক মাধ্যমে প্রচলিত থাকায় কোকাকোলা বাংলাদেশ বারবার বোঝানোর চেষ্টা করেছে যে এটি ইসরায়েলি কোম্পানি নয়। বাংলাদেশে উৎপাদিত কোকাকোলা দেশীয় প্রক্রিয়ায় তৈরি হয়। তবে, কোকাকোলার এই বার্তা জনগণ তেমনভাবে গ্রহণ করেনি।

তাই কোম্পানিটি এবার সরাসরি একটি বিজ্ঞাপন নির্মাণ করেছে, যেখানে তারা বোঝানোর চেষ্টা করেছে, কোকাকোলা ১৯৩টি দেশে তৈরি হয় এবং ফিলিস্তিনেও তাদের একটি ফ্যাক্টরি রয়েছে। এই প্রচেষ্টায় প্রতিষ্ঠানটি প্রমাণ করতে চেয়েছে যে, কোকাকোলার ইসরায়েলি মালিকানাধীন বলে যে তথ্যটি ছড়ানো হচ্ছে তা পুরোপুরি মিথ্যা ও গুজব। আর কোকাকোলা বাংলাদেশের এই বিজ্ঞাপনটি নিয়েই এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয়েছে তীব্র বিতর্ক, চলছে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা। 

বিজ্ঞাপনটিতে মডেল হয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেতা শরাফ আহমেদ জীবন ও শিমুল শর্মা। আর তাই কোকাকোলা বয়কটের পাশাপাশি এবার এই দুই অভিনয়শিল্পীকে বয়কটের হুমকি দিয়েছেন নেটিজেনরা। বিভিন্ন গ্রুপ থেকে শুরু করে অনেকে নিজের ফেসবুক আইডিতেও পোস্ট দিয়ে এমন বয়কটের ডাক দিচ্ছেন। 

 এমন পরিস্থিতিতে তোপের মুখে পড়ে কোকাকোলার বিজ্ঞাপনে কাজ করার বিষয়ে অবশেষে মুখ খুলেছেন অভিনেতা শরাফ আহমেদ জীবন। সোমবার (১০ জুন) রাতে এ অভিনেতা তার ফেসবুক আইডিতে দেয়া এক পোস্টে দাবি করেছেন, তিনি ইসরায়েলের পক্ষে কোন কাজ করেননি।

পোস্টে শরাফ আহমেদ জীবন বলেন, ‘আমি একজন নির্মাতা এবং অভিনেতা হিসেবে সবার কাছে পরিচিত। বিগত দুই দশক ধরে আমি নির্মাণ ও অভিনয়ের সাথে জড়িত। ব্যক্তিগত জীবনে আমি সবসময় মানবাধিকারবিরোধী যেকোনো আগ্রাসনের বিপক্ষে দাঁড়িয়েছি এবং আপনাদের অনুভূতি ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকেছি।’

এ অভিনেতা আরও দাবি করেন, বিজ্ঞাপনটিতে তিনি কোথাও ইসরায়েলের পক্ষ নেননি, এমনকি অতীতেও তিনি ইসরায়েলের পক্ষ নিয়ে কোন মন্তব্য করেননি। পাশাপাশি তার হৃদয় সবসময়  ন্যায়ের পক্ষে এবং মানবতার পাশে আছে, থাকবে বলেও আশা প্রকাশ করেছেন তিনি। 

কোকাকোলার বিজ্ঞাপনের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি কোকা-কোলা বাংলাদেশ তাদের একটি বিজ্ঞাপন নির্মাণ এবং এতে অভিনয়ের জন্য আমাকে প্রস্তাব দেয়। আমি শুধুমাত্র তাদের দেয়া তথ্য ও উপাত্তই কাজটিতে তুলে ধরেছি। বিজ্ঞাপনটি প্রচার হবার পর থেকে আমি আপনাদের অনেক মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করছি এবং আপনাদের প্রতি সম্মান জানিয়ে আমি আবারো বলতে চাই কাজটি শুধুই আমার পেশাগত জীবনের একটি অংশমাত্র।’

এদিকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দিয়ে বিজ্ঞাপনটিতে মডেল হওয়ার জন্য দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন আরেক অভিনেতা শিমুল শর্মা। মঙ্গলবার (১১ জুন) সকালে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেইজে একটি স্ট্যাটাস দেন তিনি। স্ট্যাটাসটিতে তিনি লিখেছেন,

‘আমি শিমুল শর্মা যদিও পরিচয় দেবার মত একজন অভিনেতা এখনও হয়ে উঠতে পারিনি কারণ একজন অভিনেতা হবার জন্য যে অধ্যবসায় এবং দূরদর্শিতা দরকার সেটা এখনো আমার হয়ে উঠেনি, আমি চেষ্টা করছি মাত্র। তাই হয়ত না বুঝে করা আমার কাজ আজ আমার দর্শক, তথা আমার পরিবার ও দেশের মানুষকে কষ্ট দিয়েছে। আমি ভবিষ্যতে কোন কাজে অভিনয় করতে গেলে অবশ্যই আমাদের দেশের মূল্যবোধ, মানবাধিকার, মানুষের মনোভাবকে যথেষ্ট সম্মান দিয়ে বিবেচনা করে তারপর কাজ করব। আমি মাত্র আমার জীবনের পথচলা শুরু করেছি, আমার এই পথচলায় ভুল ত্রুটি ক্ষমা সুলভ দৃষ্টিতে দেখবেন এবং আমাকে ভবিষ্যতে একজন বিবেকবান শিল্পী হয়ে ওঠার জন্য শুভ কামনায় রাখবেন। ধন্যবাদ সবাইকে।’

এর আগে শিমুল বলেছিলেন,  বাংলাদেশে কোকাকোলা নিয়ে প্রোপাগান্ডামূলক একটি তথ্য ছড়িয়ে আছে। কোনো প্রোডাক্টকে যদি ধর্মীয় মোড়কে মুড়িয়ে ফেলা হয়, তাহলে কিছু করার নেই। সবাই  নিজেদের জায়গা থেকে স্টেটমেন্ট  দিতে পারে। মূলত সেই জায়গা থেকেই  বিজ্ঞাপনটি নির্মাণ করা হয়েছে।

তবে কোকাকোলার বিতর্কিত বিজ্ঞাপনটি বয়কটের ডাক দেওয়ার পরে তার ফেসবুক পেজ ডিএক্টিভেট করে রেখেছিলেন শিমুল। এরপর আজ সকালে পেইজটি পুনরায় অ্যাক্টিভ করে বিজ্ঞাপনের বিষয়ে পোস্ট দিয়ে ক্ষমা চাইলেন এই অভিনেতা।

এদিকে, বিজ্ঞাপনটি নিয়ে যেহেতু বিতর্ক হচ্ছে- স্বাভাবিকভাবেই এর নির্মাতাকে নিয়েও আলোচনা হচ্ছে। অনেকেই জানতে চাইছেন বিজ্ঞাপনটির নির্মাতা 'ব্যাচেলর পয়েন্ট' খ্যাত কাজল আরেফিন অমি কিনা। আর তাই এ বিষয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন অমি নিজেই। ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে তিনি দাবি করেন,  এটি তার বানানো নয়। কাজল আরেফিন অমি তার ফেসবুকে লিখেছেন, আমি কখনো বিজ্ঞাপন বানাই নি, আমি নাটক, ওয়েব ফিল্ম, ওয়েব সিরিজ নিয়েই কাজ করেছি, ভবিষ্যতে সিনেমা বানাবো। ধন্যবাদ।

এদিকে, আসন্ন ঈদুল আযহায় কাজল আরেফিন অমি নির্মিত 'ফিমেল' সিরিজের নতুন সংস্করণ 'ফিমেল ৪' আসছে। যা প্রথমবারের মতো ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পাবে।



প্রধান সম্পাদকঃ সৈয়দ বোরহান কবীর
ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেডের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

বার্তা এবং বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ২/৩ , ব্লক - ডি , লালমাটিয়া , ঢাকা -১২০৭
নিবন্ধিত ঠিকানাঃ বাড়ি# ৪৩ (লেভেল-৫) , রোড#১৬ নতুন (পুরাতন ২৭) , ধানমন্ডি , ঢাকা- ১২০৯
ফোনঃ +৮৮-০২৯১২৩৬৭৭