ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ফেসবুকে মন্তব্য, সতর্কতাই কর্তব্য

লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৯ আগস্ট ২০১৭ মঙ্গলবার, ০৩:১৫ পিএম
ফেসবুকে মন্তব্য, সতর্কতাই কর্তব্য

ফেসবুক পাতা খুললেন। নিউজফিড দেখছেন। কোনো একটি পোস্টে চোখ আটকে গেল। পড়লেন। মন্তব্য করলেন। যার পোস্টে মতামত রাখলেন, তিনিও পাল্টা মন্তব্য করলেন। কেউ কারো মতামত নিতে পারছেন না! চলছে মন্তব্য, পাল্টা মন্তব্য।   

সামাজিক যোগাযোগের ব্যাপক জনপ্রিয় মাধ্যম ফেসবুকের নিয়মিত ব্যবহারকারীদের কাছে এ রকম ঘটনা নতুন কিছু নয়। প্রায়ই এমন পরিস্থিতিতে পড়ে বিব্রত হন অনেকে। ফেসবুকে মন্তব্য করার বিষয়ে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের তেমন কোনো বাধা-নিষেধ নেই। কিন্তু ব্যবহারকারী হিসেবে একটা নূন্যতম বিবেচনাবোধ থাকা উচিত প্রত্যেকেরই।

মত, অমত, দ্বি-মত ও সহমত- এই চার শব্দের ব্যহারিক এবং প্রয়োগিক অসতর্কতার কারণেই বাড়ছে ফেসবুকে মন্তব্য বিড়ম্বনা। ফেসবুক ব্যবহারকারীরা এ চার বিষয়ে সচেতন হলে খুব সহজেই মন্তব্য জটিলতা থেকে রেহাই মিলবে।  

এ প্রতিবেদন তৈরির জন্য আমরা ২৫ জন ফেসবুক ব্যবহারকারীরর সঙ্গে কথা বলি। যারা প্রত্যেকেই তরুণ ও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। তাদের বক্তব্য থেকে উঠে এসেছে নানা তথ্য । এখানে সেসবই পরামর্শ আকারে উপস্থাপন করা হলো।          

-মন্তব্য করার ক্ষেত্রে বিচারিক পর্যবেক্ষণ জরুরি। কোনো পোস্ট, লেখা বা ভিডিওচিত্রের অন্তর্নিহিত ভাব বা বক্তব্য না বুঝে মতামত বা প্রতিক্রিয়া দেখাবেন না।  

-মন্তব্যের ক্ষেত্রে প্রসঙ্গ ঠিক রাখুন। অনেক সময় ফেসবুক ব্যবহারকারীরা নির্দিষ্ট পোস্টের প্রসঙ্গের বাইরে গিয়ে মন্তব্য করেন। এটা করবেন না।  

-মন্তব্য করার সময় ব্যক্তিগত আক্রোশ বা দ্বন্দ্ব পরিহার করুন। অপর পক্ষকে হেয় করার মানসিকতা ঝেড়ে ফেলুন।

-অযথা বক্তব্য বাড়াবেন না। অল্প কথায় বক্তব্যের মূল ভাব স্পষ্ট করুন।

-চটকদার মন্তব্য ছুড়ে লাইক কুড়ানোর অভ্যাস ত্যাগ করুন। পশাপাশি দলগতভাবে কাউকে আক্রমণ করার অভিপ্রায় ছেড়ে দিন।

-মন্তব্যের মাধ্যমে কাউকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে হতাশ করবেন না। মন্তব্য করার ক্ষেত্রে ব্যক্তিত্বপ্রবণ থাকুন।

-অপরিচিত কারো পোস্টে মন্তব্য করবেন না। বিষয়ভিত্তিক সমালোচনার ক্ষেত্রে ওই বিষয় সম্পর্কে পর্যাপ্ত জানাশোনা না থাকলে লিখবেন না।     

-অযৌক্তিক, কটাক্ষমূলক, অপ্রয়োজনীয় কথা মন্তব্যে লিখবেন না।        

-পাল্টা মন্তব্য প্রকাশের ক্ষেত্রে আক্রমণাত্বক ভাব প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকুন। প্রয়োজনে সরল ভাষায় ভুল ধরিয়ে দিন।

-আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে মন্তব্যকারীর সমালোচনা করবেন না। একইসঙ্গে বিতর্কিত মন্তব্য করার অভ্যাস ছাড়ুন।         


বাংলা ইনসাইডার/আরজে/জেডএ




বিষয়: ফেসবুক