ঢাকা, সোমবার, ১৮ জুন ২০১৮ , ৪ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

ভারতের বৈচিত্র্যময় বোলিং নিয়ে সতর্ক বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০১৮ মঙ্গলবার, ১০:৩৭ পিএম
ভারতের বৈচিত্র্যময় বোলিং নিয়ে সতর্ক বাংলাদেশ

নিদাহাস ট্রফি ত্রিদেশীয় সিরিজে ফাইনালের পথে বাংলাদেশের সামনে এখন প্রথম বাধা ভারত। বুধবার সন্ধ্যায় ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের আগে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ককে ভাবাচ্ছে প্রতিপক্ষের বোলিং লাইন। কেনোনা এই সিরিজে ভারতের দুটি জয়েই ম্যাচ-সেরা হয়ছেন দুই পেসার। দলের অন্য বোলাররাও দারুণ করেছেন। ভারতের এই বৈচিত্রময় বোলিং আক্রমণ ম্যাচে টাইগারদের কঠিন পরীক্ষাই নিবে বলে মনে করেন মাহমুদউল্লাহ।

দুই দলের প্রথম লড়াইয়ের ম্যান অব দা ম্যাচ হয়েছিলেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার বিজয় শঙ্কর। বাঁহাতি পেসার জয়দেব উনাদকাটও তিন উইকেট নিয়েছিলেন। আরেক পেসার শার্দুল ঠাকুর এক উইকেট নিলেও রান দেওয়ায় ছিলেন ভীষণ হিসেবী। স্পিনে ওয়াশিংটন সুন্দর ও যুজবেন্দ্র চেহেল প্রতিপক্ষকে নিয়মিত ঘোল খাইয়ে চলেছেন।

ভারতের ৫ বোলারই তাদের বৈচিত্রময় বোলিং দিয়ে নজর কেড়েছেন। বিশেষ করে গতির হেরফেরে। স্পিনাররা যেমন ব্যাটসম্যানদের ভোগাচ্ছেন গতি বৈচিত্রে; উনাদকাটের কাটার ও শার্দুলের ‘নাকল বল’ বিভ্রান্তিতে ফেলছে ব্যাটসম্যানদের। তাই ব্যাটসম্যানদের আরেকটি পরীক্ষার আগে বাংলাদেশ অধিনায়ক আমলে রাখছেন ভারতীয় বোলারদের।

রিয়াদ বলেন, ‘ওদের বোলারদের কৃতিত্ব দিতেই হবে, যেভাবে তারা বোলিং করছে। ওদের পুরো বোলিং ইউনিটই গতি বৈচিত্র খুব ভালো ভাবে করতে পারছে। শুধু পেসাররা নয়, স্পিনাররাও। ওয়াশিংটন সুন্দর, যুজবেন্দ্র চেহেল প্রায়ই অনেক মন্থর বল করছে, টার্নও করছে বল। পেসাররাও গতির হেরফের খুব ভালো করছে। আমাদের এই বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে হবে।‘

বাংলাদেশ অধিনায়ক দলের পেস আক্রমণকে এখনই কাঠগড়ায় তুলতে রাজি নন। প্রেমাদাসার ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে বোলারদের জন্য ভালো করা কঠিনই। তবে টাইগারদের স্পিন আক্রমণে কিছুটা সন্তুষ্ট অধিনায়ক বলেন, ‘আমাদের স্পিনাররা কিন্তু খারাপ করেনি। গত ম্যাচেও মিরাজ ও অপু বোলিং করার সময় রান আটকানো গিয়েছিল কিছু সময়। ২০ বলের মতো মনে হয় বাউন্ডারি হয়নি। আমার স্পিনারদের ওপর আমার ভরসা আছে। তার পরও বোলিং বিভাগকে আরেকটু এগিয়ে আসতে হবে। আশা করি, সেটা তারা পারবে।‘


বাংলা ইনসাইডার/আরকে