ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ৫ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কাফুর সেই ডিগবাজি!

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ মার্চ ২০১৮ বুধবার, ০৪:০৬ পিএম
কাফুর সেই ডিগবাজি!

১০ জুন, ১৯৯৮। প্যারিসের স্তাদে দি ফ্রান্স সেইন্ত দেনিস স্টেডিয়ামে চলছে ফিফা বিশ্বকাপের ব্রাজিল-স্কটল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচ। ৮০ হাজার দর্শক-সমর্থকে মাঠ ঠাঁসা। সেই ম্যাচেই ব্রাজিলের কিংবদন্তি রাইট ব্যাক কাফুর ঘটিয়েছিলেন এক অভূতপূর্ব দৃশ্য, দিয়েছিলেন ডিগবাজি! এই ডিগবাজির কারণেই ফুটবল ইতিহাসে আলাদা করে জায়গা করে নিয়েছে সেই ম্যাচ।

কি হয়েছিল সেই ম্যাচে? আর কেনইবা বিপজ্জনক শৈল্পিক উদযাপনই করেছিলেন কাফু? তিনি তো গোল করেননি সেই ম্যাচে!

এখনও ম্যাচের সেই ছবিটা ফুটবল ইতিহাসে উজ্জ্বল হয়ে আছে। ‘সামারসল্ট’ দিয়ে উল্টো হয়ে বাতাসে ভাসছেন কাফু। মাটি থেকে বেশ খানিকটা উপরে। স্কটিশ শিবিরে তখন হতাশা। গোলরক্ষক মাটিতে পরে হা হয়ে দেখছে কাফুর উদযাপন।

ম্যাচের ৭৪ মিনিটই কাফুর সেই বুনো উদযাপনের উত্তরটা দিয়ে দেয়। সেই ম্যাচটা ছিল স্কটল্যান্ডের বিশ্বকাপে ফেরার প্রথম ম্যাচ। আর সেই ম্যাচেই কিনা দুঙ্গার অপ্রতিরোধ্য ব্রাজিল। কে নেই সে দলে- রোনালদো রিভালদো, বেবেতো, কাফু। মাঠে থাকা বেশিরভাগ দর্শকদের সমর্থনই ছিল ব্রাজিলিয়ানদের। তবে বিরুদ্ধস্রোতে ভিন্ন অনুভূতি নিয়ে স্কটিশদের শুরু।

যদিও ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যায় পরাক্রমশীল ব্রাজিল। আর প্রমার্ধের খেলা শেষ হওয়ার মাত্র সাত মিনিট আগে পেনাল্টি থেকে গোল করে সমতায় ফেরে স্কটিশরা। পুরো স্টেডিয়াম হতোবাক হয়ে যায়। অনেকেতর কাছেই বিস্ময়করভাবে মনে হচ্ছিল ফেভারিট ব্রাজিলকে বুঝি ম্যাচটাতে রুখেই দিল স্কটল্যান্ড। কিন্তু নিজেদের ভুলে ম্যাচের ৭৪ মিনিটে গোল হজম করে বসে স্কটল্যান্ড। আর তখনই কাফু ঘটান সেই অদম্য-দুর্ধর্ষ ঘটনা।

সবাই জানত, কাফুর অভ্যাস ছিল ডিফেন্স থেকে উঠে এসে পজিশন নিয়ে খেলার। ম্যাচের সেই ৭৪ মিনিটে ওভারল্যাপ করে প্রায় মাঝমাঠ থেকে উড়ে এসেছিল বলটা। ডি বক্সের ভেতরে একমাত্র কাফু। দুঙ্গার বাড়ানো বল প্রথমবার পা দিয়ে নিজের আয়ত্বে নেওয়ার চেস্টা করলেন। কিন্তু ঠিকমতো লাগলো না। তখন বাউন্স করা বলকে ডান পায়ে একটু ঘুরিয়ে জালে ঢোকানোর জন্য তুলে দিতে চাইলেন। কিন্তু গোলকিপার লেইটনের বুকে লেগে সেই বল আঘাত হানে সামনে দাঁড়ানো রাইট ব্যাক টম বয়েডের বুকে। ধাক্কায় গতি কিছুটা বাড়িয়ে বল ঢুকে যেতে থাকে সোজা জালে। গোললাইনে দাঁড়ানো আরেক ডিফেন্ডার বুঝে ওঠার রেফারির বাঁশি, গোল! কাফুর সঙ্গে পুরো ব্রাজিল দল এবং স্টেডিয়াম অবাক! কাফু দৌড়ে দিলেন সেই সামারসল্ট বা ডিগবাজি। উল্লসিত কাফু একটু সামনে ছুটেই ডি বক্স পেরিয়ে বাতাসে ভাসিয়ে দেন নিজেকে। সঙ্গে সঙ্গে বিশ্বের বিখ্যাত সব ফটোগ্রাফাররা ক্যামেরায় বন্দি করেন সেই ছবি। যা মুহূর্তে বিশ্বকাপের ইতিহাসের অন্যতম সেরা ছবি হিসেবে আটকে যায়।

যদিও রেকর্ডের পাতায় গোলটা আত্মঘাতী স্কটল্যান্ডের বয়েডের নামে লেখা। কিন্তু কাফুর চেষ্টাটুকু না থাকলে হয়তো গোলটা হতোনা। আর ওই গোলেই ম্যাচটা ২-১ এ জিতেছিল ব্রাজিল।


বাংলা ইনসাইডার/ডিআর/জেডএ