ঢাকা, শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

উইন্ডিজকে জয়টা উপহার দিল বাংলাদেশ!

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৬ জুলাই ২০১৮ বৃহস্পতিবার, ০৮:৩৭ এএম
উইন্ডিজকে জয়টা উপহার দিল বাংলাদেশ!

আবারও খামখেয়ালি ব্যাটিংয়ে সহজ জয় হাতছাড়া করল বাংলাদেশ। উইন্ডিজের দেয়া ২৭২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ২৬৮ রানেই থামে টাইগাররা। উইন্ডিজ জিতে যায় ৩ রানে। জয়টা সহজই ছিল টাইগারদের জন্য। কিন্তু পাগলাটে ব্যাটিংয়ে সেই জয়টাই হাতছাড়া করে টাইগাররা। উইন্ডিজও হয়তো ভাবেনি তাঁরা এই ম্যাচটি জিততে পারবে। এক কথায় বাংলাদেশ তাদের ম্যাচটি উপহার দিয়ে এসেছে।

আজ ২৭২ রানের লক্ষ্যে নেমে শুরু থেকেই চালিয়ে খেলতে থাকে টাইগাররা। বিশেষ করে আগের ম্যাচে ব্যর্থ এনামুল যেন অন্য রুপে শুরু করে আজ। এনামুলের মারকুটে ব্যাটিংয়ে মাত্র ২.২ ওভারেই ৩২ রানে পৌছে যায় বাংলাদেশ। তখন এনামুলের নামের পাশে ৮ বল খেলে ২ চার ও ২ ছয়ে ২৩ রান লেখা। কোথায় দেখে খেলবেন। তা না করে আবারও খামখেয়ালীভাবে খেলতে গিয়ে জোসেফের বোলে বোল্ড হয়ে ফিরে যান এই ডানহাতি ওপেনার।  ক্রিজে তামিমের সঙ্গে যোগ দেন সাকিব।

গত ম্যাচের মতো এই জুটি আবারও দলের হাল ধরেন। দেখেশুনে খেলে ধীর গতিতে রানের চালা সচল রাখেন। তবে সহজ সিঙ্গেলস ও ডাবল ঠিকই নিচ্ছেলেন সাকিব-তামিম। আর তার সুবাদেই ৬ করে রান রেটে ১ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ পৌছে গেছে একশতে।

উইকেটে থেকে দলকে জয়ের আশাও দেখাচ্ছিলেন তামিম্-সাকিব জুটি। কিন্তু ২৫তম ওভারে সব ওলটপালট হয়ে গেল। দলের রান তখন ১২৯। জুটির একশ হতে মাত্র ৩ রান দূরে সাকিব-তামিম। কিন্তু লেগি বিশুর বল ডাউন দ্যা উইকেটে এসে খেলতে গিয়ে স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে প্রেনব তামিম। এক কথায় সুন্দরভাবে চলতে থাকা খেলাটাকে বদলে দেন এই ওপেনার। ৮৫ বলে ৬ চারে ৫৪রানের ইনিংস খেলে ফিরে গেলেন সাজঘরে।

এরপর সাকিবের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দেন মুশফিকুর রহিম। আর সাকিব মুশিকে সঙ্গে নিয়েই নিজের ক্যারিয়েরের ৩৯তম ও সিরিজে টানা দ্বিতীয় অর্ধশতক তুলে নেন সাকিব। যদিও এর পরের বলে বিশুর লেগ স্পিনে লেগ বিফোর আউট দেন আম্পায়ার। কিন্তু রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান সাকিব। বল ট্রাকিংয়ে দেখা যায় যে, বল স্ট্যাম্পের অনেক বাইরে দিয়ে গিয়েছিল।  কিন্তু বন্ধু তামিমের মতো ফিফটির পর তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে নার্সের বলে প্লের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান সাকিব। ৫ চারে ৭২ বলে ৫৬ করেন সাকিব। এরপর  মাহমুদুল্লাহকে নিয়ে শক্ত জুটি গড়ে দলকে জয়ের আশা দেখাচ্ছিলেন মুশফিক। কিন্তু ভুল বোঝাবুঝুতে রাউন আউট হন মাহমুদউল্লাহ। ৫১ বলে ২ ছয়ে ৩৯ রান করেন রিয়াদ। মুশির সঙ্গে গড়েন ৮৭ রানের দুর্দান্ত জুটি। এরপর মুশির সঙ্গে যোগ দেন সাব্বির। আর মুশফিকও নিজের ক্যারিয়ারের ২৯তম  অর্ধশতক তুলে নেন। এই দুইজন দলকে জয়ের আশাই দেখাচ্ছিলেন। কিন্তু যখন ৭ বলে ৮ রান প্রয়োজন তখন অহেতুক শট খেলে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসেন সাব্বির। এরপরে শেষ  ওভারের প্রথম বলেই ফুলটস বলে শট খেলতে গিয়ে আঊটন হন মুশি। বিপদে পড়ে যায় টাইগাররা। উইকেটে আসেন মাশরাফি। কিন্তু মোসাদ্দেককে নিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যেতে পারেননি। আবারও সহজ জয় হাতছাড়া করল বাংলাদেশ। আর ৩ রানে ম্যাচ জিতে সিরিজে সমতায় ফিরল ক্যারিবীয়রা। 

আগামী ২৮ জুলাই অলিখিত ফাইনাল ম্যাচে লড়বে বাংলাদেশ-উইন্ডিজ।    

বাংলা ইনসাইডার/ডিআর