ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩ আগস্ট ২০১৮ শুক্রবার, ০৭:১১ পিএম
দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ

বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ৭ উইকেটে হেরে ১-০তে পিছিয়ে রয়েছে। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের লক্ষ্য ঘুরে দাঁড়ানোর। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায়। 

অনেকেই জানেন যুক্তরাষ্ট্রে ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা নেই বললেই চলে। সেখানে রাগবি ও ফুটবলের জয়জয়কার। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তাঁরা এখনো পা দেয়নি। সেই হিসেবে ক্রিকেটে যে তাঁদের আগ্রহ নেই সেটা বলা যাবে না। সেখানকার দেশের ক্রীড়া প্রতিনিধিরা ক্রিকেটের উন্নয়নের জন্য উঠে পড়ে লেগেছে।

এদিকে যেই স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ খেলবে তাঁর নাম সেন্ট্রাল ব্রোয়ার্ড রিজিওনাল পার্ক স্টেডিয়াম, লডারহিল। মোট দর্শক ধারণক্ষমতা ২০ হাজারের মতো। এখন পর্যন্ত এই স্টেডিয়ামে মোট তিনটি সিরিজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ম্যাচ হয়েছে মাত্র ৬টি। ২০১০ সালে নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার ম্যাচের মধ্য দিয়ে এই স্টেডিয়ামটি আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পা রাখে। ফ্লোরিডায় প্রচুর বাংলাদেশিদের বসবাস। স্বাভাবিকভাবেই বাংলাদেশের খেলা দেখতে বাংলাদেশি দর্শকদের উপস্থিতি থাকবে দেখার মতো। আর ভিন্ন কন্ডিশনে নিজেদের দেশের নাগরিকদের পেয়ে বাংলাদেশ দল যে আরও উজ্জীবিত থাকবে সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না।

বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশি দর্শক সেটা একটা বাড়তি পাওয়া। সেই বাড়তি পাওয়াকে কাজে লাগিয়েই ঘুরে দাঁড়াতে চায় বাংলাদেশ। সিরিজে সমতায় ফিরতে চায়। সমতা ফেরার লড়াইয়ে বাংলাদেশের একাদশ কেমন হতে পারে আসুন দেখে নেই।

ওপেনিং

ওপেনিং এ তামিম ইকবাল যে অটো চয়েস এটা কাউকে বলে দিতে হবেনা। ওয়ানডেতে দুর্দান্ত পারফর্ম করা তামিম গত ম্যাচে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। তাই এবার মুখিয়ে থাকবেন দ্বিতীয় ম্যাচেই নিজেকে ফিরে পাওয়ার। কিন্তু বাংলাদেশের বড় সমস্যা তামিমের সঙ্গী। গত ম্যাচে তামিমের সঙ্গী হিসেবে সুযোগ পেয়েছিলেন সৌম্য সরকার। অফ ফর্মের ধারাবাহিকতা তিনি এখনো ধরে রেখেছেন। যেহেতু দলের প্রয়োজনে বাংলাদেশের সঙ্গে শেষ সময়ে যোগ দিয়েছেন। সেই হিসেবে প্রথম ম্যাচে আবারো তাঁকে দেখা যেতে পারে। তিনি আরও একটি সুযোগ পাবেন।

কোন কারণে সৌম্যকে সুযোগ দেওয়া না হলে লিটন দাস হতে পারেন তামিমের ওপেনিং সঙ্গী। গত ম্যাচে ২১ বলে ২৪ রান করেছেন লিটন। দলের পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন তিনি ওই ম্যাচে।

মিডল অর্ডার

গত ম্যাচে তিনে নেমে লিটন দাস ভালো খেলেছেন। সৌম্য দলে থাকলে তিনি তিন নম্বরে নামছেন এটা এক রকম নিশ্চিত। লিটন কোন কারণে যদি ওপেনিং করে সে ক্ষেত্রে তিনে নামবেন সাকিব আল হাসান। ওয়ানডেতে তিন নম্বরে নেমে দুর্দান্ত খেলেছিলেন সাকিব।

এরপরে চার এবং পাঁচে মুশফিক ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের পরীক্ষিত জুটিই হবে সেরা চয়েস।

লোয়ার অর্ডার

এই ম্যাচে সাব্বির যে খেলছেন না সেটা প্রায় নিশ্চিত। তাঁর জায়গায় দলে সুযোগ পাওয়া আরিফুল আবারো সুযোগ পাবেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে প্রথমবারের মতো মাঠে নেমে চাপের মুখে ১৮ বলে ১৫ রানের ইনিংস সত্যি প্রশংসনীয়। মেহেদী হাসান মিরাজ অনেকটা অটো চয়েস খেলোয়াড় হয়ে দাঁড়িয়েছেন বাংলাদেশের জন্য।

বোলার

মুস্তাফিজ ও রুবেল থাকবেন এটা নিশ্চিত। তবে নাজমুল ইসলামের ভাগ্য খারাপ হতে পারে। তিনি গত ম্যাচে উল্লেখযোগ্য তেমন কিছুই করতে পারেননি। সেই হিসেবে তাঁর বদলে দলে ঢুকতে পারেন আবু হায়দার রনি অথবা আবু জায়েদ রাহী।

একনজরে একাদশ

তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, আরিফুল হক, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন ও আবু হায়দার রনি/আবু জায়েদ রাহী।


বাংলা ইনসাইডার/এসএকে