ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ৯ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কাদের নিয়ে দল গড়বে ইউরোপীয় জায়ান্টরা?

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি ২০১৯ শনিবার, ০৯:০৯ এএম
কাদের নিয়ে দল গড়বে ইউরোপীয় জায়ান্টরা?

কিছুদিনের মধ্যেই ইউরোপীয় ক্লাবগুলোতে শুরু হবে দলবদল। চ্যাম্পিয়ন লিগ ও বিভিন্ন ঘরোয়া লিগকে কেন্দ্র করে ক্লাবগুলো নিজেদের সেরা একাদশ বানাবে। নতুন মুখ আসবে, পুরাতনরা চলে যাবে। কাদের নিয়ে দল গড়তে চায় বড় ক্লাবগুলো?

বার্সেলোনা

লা লিগা জায়ান্টদের মূল সমস্যা রক্ষণভাগ। তাই তাদের প্রথম নজর থাকবে রক্ষণভাগ শক্তিশালী করা। বার্সার রক্ষণভাগ আগলে রেখেছে স্যামুয়েল উমতিতি। হাঁটুর ইনজুরির কারণে উমতিতি দীর্ঘদিন মাঠের বাইরে থাকতে পারেন। তাই তার পরিবর্তে দরকার একজন সেন্টার ব্যাক।

উমতিতির বিকল্প হিসেবে দেখা হচ্ছে আয়াক্সের দুই ডিফেন্ডার মাথিস ডি লিগট ও  ফ্রাঙ্কি ডি ইয়ংকে। আদ্রিয়ান রাবিওটের উপরেও নজর আছে কাতালানদের।

লুইস সুয়ারেজের বিকল্প হিসেবে তারা দলে একজন ফরোয়ার্ড ভেড়াতে চাচ্ছে। সাথে রাখতে চাচ্ছে একজন মিডফিল্ডার।

রিয়াল মাদ্রিদ

লা লিগার অন্যতম সেরা ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের এখন প্রধান লক্ষ্য ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর অভাব দূর করা। কেননা দীর্ঘদিন ধরে রিয়াল গোল খরায় ভুগছে। আক্রমণভাগকে ঢেলে সাজাবার জন্য রিয়ালের দরকার একজন অভিজ্ঞ ফরোয়ার্ড। 

কিলিয়ান এমবাপ্পে বা নেইমার দুইজনের দিকেই চোখ আছে লা ব্লাঙ্কাদের। কিন্তু সেটা এই মৌসুমে সম্ভব হবে না। তবে চেলসির এডেন হ্যাজার্ডকে এই মৌসুমে দলে ভেড়াতে পারে তারা। তরুণ মিডফিল্ডার ব্রাহিম ডায়াজকেও পছন্দের তালিকায় রেখেছে কোচ সান্তিয়াগো সোলারি।

রক্ষণভাগে দুর্বলতা থাকলেও আপাতত সেটার দিকে তেমন নজর দিতে চাচ্ছে না ক্লাবটি। বরং তাদের মূল লক্ষ্যই হলো আক্রমণভাগকে আরও শক্তিশালী করা।

ম্যানচেস্টার সিটি

নতুন খেলোয়াড় কিনতে খুব একটা আগ্রহ নেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়নদের। তবে রণকৌশল পাল্টে মিডফিল্ড ও রক্ষণভাগ নিয়ে কাজ করতে ইচ্ছুক পেপ গার্দিওলা।   

অভিজ্ঞ মিডফিল্ডার ফার্নান্দিনহো লুইস রোজার পাশাপাশি দলে তরুণ ফুটবলার ভেড়াতে পারে ম্যান সিটি। এই পজিশনে তাদের প্রধান পছন্দ নাপোলির জর্জিনহো।

দলের রক্ষণভাগ আগলে রেখেছেন অভিজ্ঞ বেঞ্জামিন মেন্ডি। সাথে আছে ফ্যাবিয়ান ডেলফ ও আলেকজান্ডার জিনশেঙ্কো। তবে গার্দিওলা রক্ষণভাগ নিয়ে কোন রিস্ক নিতে রাজী নন। তাই তার নজর আয়াক্সের ফ্রাঙ্কি ডি ইয়ংয়ের দিকে।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

মরিনহোত্তর যুগে দলে ব্যাপক পরিবর্তন আনতে চায় রেড ডেভিলরা। আক্রমণ ও রক্ষণ দুইভাগেই দুর্বল হয়ে গেছে ক্লাবটির। চ্যাম্পিয়ন লিগের আগে পুরো দলটা ঢেলে সাজাতে চায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

তবে রক্ষণভাগের জন্য এই মুহূর্তে তারা পছন্দ করে রেখেছে কালিদু কুলিবালি, মিলান স্ক্রিনিয়ার বা নিকোলা মিলেনকোভিচের মতো ডিফেন্ডার।

চেলসি

আক্রমণ ও রক্ষণ দুইভাগেই খেলোয়াড় দরকার চেলসির। কেননা এই মৌসুমে দল ছাড়তে পারে এডেন হ্যাজার্ড। তার জায়গায় দলে দরকার একজন অভিজ্ঞ ও তরুণ অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার। কাকে বসাবে হ্যাজার্ডের জায়গায় সেটা এখনও নিশ্চিত না।

রক্ষণভাগের দুর্বলতা কাটাতে কোচ মরিসিও সারির প্রথম পছন্দ নাপোলির জর্জিনহো।

জুভেন্টাস ও পিএসজি

গত মৌসুমে সব থেকে আলোচিত দলবদল ছিল ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্টাসের। রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে কিনে তারা আলোড়ন তৈরি করেছিল। এই মুহূর্তে দলে বিশেষ কোন পরিবর্তনের দরকার নেই জুভেন্টাসের। তবে আক্রমণ ভাগকে আরও শক্ত করতে চায় ইতালিয়ান জায়েন্টরা।
ফরাসি লিগ ওয়ান চ্যাম্পিয়ন পিএসজি’র গত মৌসুম ছিল সব থেকে আলোচিত মৌসুম। রেকর্ড অর্থ বিনিয়োগ করে তারা নেইমারকে দলে ভিড়ায়। কিন্তু উয়েফা কর্তৃক নির্ধারিত বাজেটের মধ্যে দল গড়তে হলে নেইমার বা কিলিয়ান এমবাপ্পেকে ছেড়ে দিতে হতে পারে। যদি সেটা না করে তাহলে দলের অনেক খেলোয়াড়কে ছেড়ে দিতে হবে ফরাসি জায়েন্টদের।

এসবের মধ্যেই জুভেন্টাস ও পিএসজি দুই দলই পল পগবা ও অ্যালেক্সিস সানচেজকে কিনতে আগ্রহী। এই মৌসুমেই হয়ত ফলাফল দেখা যাবে।

বাংলা ইনসাইডার/ডিএম/এমআর