ঢাকা, বুধবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৯, ১০ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

প্রথমবার যা ঘটল বিপিএলে

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০১৯ সোমবার, ০৯:০৫ এএম
প্রথমবার যা ঘটল বিপিএলে

শেষ হলো ঢাকা পর্বের খেলা। শুরুর দিকে বিপিএল অনেকটাই ছিল নিরুত্তাপ। মাঠে ছিল না দর্শকের উপচে পড়া ভীড়, ছিল না ব্যাটসম্যানদের মাঠ শাসন, ছিল না রানের বন্যা। তবে ঢাকা পর্বের শেষ দিকে কিছুটা হলেও দর্শক খরা কাটে।

চার-ছক্কায় মাঠ গরম না হোক। বিতর্ক ও আলোচিত সব ঘটনা শুরু থেকে জমিয়ে রেখেছিল বিপিএল। প্রথম দিকে এমপি-ক্রিকেটার, ভুল আম্পায়ারিং, উদ্ভট ধারাভাষ্য অথবা ক্রুটিপূর্ণ ডিআরএস প্রযুক্তি বিপিএলকে জমিয়ে রেখেছিল। শেষ দিকে বিপিএলকে রোমাঞ্চিত করে ফেক ফিল্ডিং, সুপার ওভার ও আলিস খানের হ্যাটট্রিকের মতো বিষয়গুলো। এবারের বিপিএল আসরে প্রথম বারের মতন যা যা ঘটল তা এক নজরে দেখে নেয়া যাক:

ফেক ফিল্ডিং ও ৫ রান জরিমানা

ফেক ফিল্ডিংয়ের জন্য রাজশাহীর অধিনায়ক মিরাজকে ৫ রান জরিমানা দিতে হয়। এবারই বিপিএলে প্রথম বারের মতন ফেক ফিল্ডিংয়ের জন্য কোন ক্রিকেটারকে শাস্তি পেতে হল।

ফেক ফিল্ডিংয়ের ইতিহাসের সাথে বাংলাদেশ জড়িত। প্রথমবারের মতন ফেক ফিল্ডিং আইনটি চালু হয় বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম টেস্ট থেকে। নিয়মানুযায়ী, প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানকে ধোঁকা দিতে ফিল্ডিংয়ের নামে  নাটক করা যাবে না। গতকাল ম্যাচের ১২ তম ওভারে অধিনায়ক মিরাজ বল ধরার নামে আচমকা ঝাঁপ দেয়। কিন্তু বাস্তবে সেটা ছিল ব্যাটসম্যানদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা। কারণ বল তার কাছে ছিলই না। ফলশ্রুতিতে মাঠেই ৫ রান জরিমানা দিতে হয় রাজশাহীর দলপতিকে।

 

সুপার ওভারে খেলা নিষ্পত্তি

প্রথমবারের মতন বিপিএলে কোন খেলা সুপারওভারে গড়ায়। শনিবার খুলনা-চিটাগং ম্যাচের ফলাফল নির্ধারিত হয় সুপারওভারে যা বিপিএলের ছয় আসরে এবারই প্রথম ঘটে। সুপারোভারে চিটাগং খুলনাকে পরাজিত করে।

উল্লেখ্য, টি-২০তে কোন ম্যাচ টাই হলে নিষ্পত্তির জন্য প্রত্যেকে দলকে এক ওভার করে ব্যাট করার সু্যোগ দেয়া হবে। এই এক ওভারের ফলাফলেই নির্ধারিত হবে ম্যাচের পরিণতি।

অভিষেকেই হ্যাটট্রিক

বিপিএলে হ্যাটট্রিক অনেক আছে। কিন্তু অভিষেকে হ্যাটট্রিকের নজির নেই। অভিষেক ম্যাচে হ্যাটট্রিক করে সকলের আলোচনায় আসেন ঢাকা ডায়নামাইটসের আলিস ইসলাম।  

মূল একাদশ তো নয়ই বরং স্কোয়াডেই ছিলেন না এই আলিস ইসলাম। ছিলেন নেট বোলার। সেখান থেকে এক লাফে ম্যাচ জয়ের নায়ক।

বিপিএলের তৃতীয় হ্যাটট্রিক ছিল এটি। এর আগে ২০১১-১২ বিপিএলে প্রথম হ্যাটট্রিক করেন মোহাম্মদ সামি এবং ২০১৫-২৬ বিপিএলে দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক করেন আল আমিন হোসেন।

তবে বিতর্কিত বোলিং স্টাইলের জন্য সামনে বড় ঝামেলায় পড়বে আলিস খান।



দুই নতুন দেশের ক্রিকেটের

প্রথমবারের মতোন বিপিএলে খেলছেন আইসিসির সদস্যপদ না পাওয়া দুই দেশের দুই ক্রিকেটার। নেপালের সন্দিপ লামিচান ও যুক্তরাষ্ট্রের আলী খান। কিন্তু ইনজুরির কারণে আলী খানকে বিপিএলের আসর থেকে ছিটকে যেতে হয়েছে। খুলনা টাইটানসের হয়ে তিনি দুইটি ম্যাচ খেলেছেন যেখানে ৭ ওভার বল করে  ৬১ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন।

লামিচান এখনও খেলছেন সিলেট সিক্সার্সের হয়ে। প্রতিশ্রুতি রক্ষা করে বিগ ব্যাশ ছেড়ে বিপিএলের শুরুতেই ঢাকা চলে আসেন তিনি। খুলনার হয়ে তিনি তিন ম্যাচে ১২ ওভার বল করেছেন। ৭০ রান দিয়ে ২টি উইকেট নিয়েছেন।

এছাড়াও এবারের বিপিএলে প্রথমবারের মতোন ডিআরএস প্রযক্তির ব্যবহার করা হয়। সব থেকে তরুণ অধিনায়ক রাজশাহী কিংসের মেহেদী হাসান মিরাজ।

বাংলা ইনসাইডার/ডিএম