ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৭ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

সাকিববিহীন নিউজিল্যান্ড জয় কতটা সম্ভব?

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ সোমবার, ০৯:০১ এএম
সাকিববিহীন নিউজিল্যান্ড জয় কতটা সম্ভব?

কথায় আছে, পৃথির্বীতে কখনও, কোন কিছু, কারও জন্য অপেক্ষা করে না। পৃথিবীর গতি চলবে তার নিজেস্ব নিয়মে। তেমনি সাকিব আল হাসানকে ছাড়া বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফর থেমে থাকবে না। চলবে তা নিজ গতিতে। কিন্তু অজয় নিউজিল্যান্ডের মাটিতে কতটা ভালো করতে পারবে বাংলাদেশ? পরিসংখ্যান বলছে বেশ খানিকটা অসম্ভবই।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ষষ্ঠ আসরে ফাইনালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বোলার থিসারা পেরেরার বলে হাতে আঘাত পান সাকিব। তখন বোঝা যায়নি, এই বলটিতে শেষ হয়ে যাবে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের ওয়ানডে সিরিজ।

খেলা শেষে এক্স-রে করে দেখা যায়, বাঁ হাতের অনামিকায় চিড় ধরেছে। বিসিবির সিনিয়র চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানান, কম পক্ষে তিন সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে সাকিবকে।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের ওয়ানডে সিরিজ শুরু হবে ১৩ ফেব্রুয়ারি। ১৬ ও ২০ ফেব্রুয়ারি শেষ দুই ওয়ানডে। তিন সপ্তাহ হিসেব করলে ওয়ানডে সিরিজ থেকে ছিটকে গেছেন বাঁহাতি এই অলরাউন্ডার।

ডাক্তারের বেধে দেওয়া তিন সপ্তাহ শেষ হবে আগামী ১ মার্চ। সিরিজের প্রথম টেস্ট শুরু হবে ২৮ ফেব্রুয়ারি। সুতরাং সেখানেও খেলার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। ইনজুরি কাটিয়ে পুর্নবাসন প্রক্রিয়া শেষ করে পরের দুই টেস্ট খেলতে পারনে সাকিব, এমন নিশ্চিয়তা দিতে পারেনি বিসিবি’র চিকিৎসকরা।

সুতরাং ধরে নিতে হবে পুরো নিউজিল্যান্ড সফর মিস করতে যাচ্ছেন তিনি। সাকিবের ইনজুরির পর বিসিবির নির্বাচক হাবিবুল বাশার বলেছিলেন, ‘সাকিব না থাকাটা বাংলাদেশের জন্য বড় ধাক্কা।’ তামিম, ইমরুল, সাইফউদ্দিনকে নিয়ে নিউজিল্যান্ড রওনা দেওয়ার আগে অধিনায়ক মাশরাফিও বলেন একই কথা।

হাবিবুল বাশার ও মাশরাফির কথাকেও সমর্থন জানাচ্ছে পরিসংখ্যান। সাকিবই, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশী ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সেরা। ২১ ম্যাচে দুই করে শতক ও অর্ধশতক তাঁর রান ৫৭৫। কিউইদের বিপক্ষে সাকিবের ব্যাটিং গড় ৩০.২৬। দুই দলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকের তালিকায় সাকিবের অবস্থান দুই নম্বরে। সাকিবের ছয় সেঞ্চুরি দুই আবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সাকিব ও মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরিতে জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। এছাড়া কিইউদের বিপক্ষে ঘরের মাঠে ১০৬ একটি ইনিংস রয়েছে তাঁর।

দুই দলের দ্বিপাক্ষিক ওয়ানডে সিরিজে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকার র্শীষে আছেন সাকিব। তিনি কিউইদের বিপক্ষে ২১ ম্যাচে নিয়েছেন ৩৫ উইকেট। এ পর্যন্ত দুই দলের মধ্যকার ৭টি ওয়ানডে সিরিজ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে নিউজিল্যান্ডের পাঁচ সিরিজের বিপরীতে ২টি সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে কিইউরা, চারবার হোয়াইট ওয়াশ করেছে টাইগারদের। আর বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডকে বাংলা ওয়াশ করেছে দুইবার। কিন্তু দুইবারই ঘরের মাঠে, প্রথমবার ২০১০ সালে আর দ্বিতীয়বার তিন বছর পর, ২০১৩ সালে। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে প্রথম জয় পেতে সাকিবের সার্ভিস প্রয়োজন ছিল মাশরাফির দলের।

বাংলা ইনসাইডার/আরইউ