ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৭ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

মস্তিষ্ক বলছে নিউজিল্যান্ড; হৃদয়ের দাবি বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ মঙ্গলবার, ০৯:০০ এএম
মস্তিষ্ক বলছে নিউজিল্যান্ড; হৃদয়ের দাবি বাংলাদেশ

টেস্ট, ওয়ানডে কিংবা টি-টোয়েন্টি কোন ফরমেটেই বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের মাটিতে জয় পায়নি। আগামীকাল ১৩ ফেব্রুয়ারি (বুধবার) থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের ওয়ানডে সিরিজে। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটি হবে নেপিয়ারে। বিশ্বকাপের আগে এই সিরিজটি বাংলাদেশের শক্তি পরীক্ষার লড়াই। এই সিরিজে ঘিরে ক্রিকেট পাগল বাঙালির আগ্রহটা অন্য যে কোন সিরিজের চেয়ে একটু বেশি।

ক্রিকেট প্রেমিদের প্রশ্ন, এবারো কিউইদের মাটি থেকে জয়হীন হয়ে ফিরবে নাকি অজেয় নিউজিল্যান্ডের মাটিতে টাইগারদের মাথায় উঠবে জয়ের মুকুট। অতীত পরিসংখ্যানের দিকে তাকিয়ে মস্তিষ্ক

বলছে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে। কিন্তু বাঙালির হৃদয়ের দাবি, এবার সিরিজ জিতেই ফিরবে টাইগাররা।

এজন্য টাইগারভক্তদের সামনে বড় উদাহরণ ভারত। সম্প্রতি ওয়ানডে সিরিজে ঘরের মাঠে ভারতের কাছে ৪-১ ব্যবধানে হেরেছে নিউজিল্যান্ড। কিন্তু বাংলাদেশের পরিসংখ্যান বেশ উল্টো। এর আগে কিইউদের মাটিতে ১০টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। সবগুলোতে হেরেছে যাচ্ছেতাই ভাবে। আবার ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এগিয়ে বাংলাদেশই। ১৩ ম্যাচের ৮টি জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। বাকি ৫টি জয় কিউইদের।

এ পর্যন্ত দুই দলের মধ্যকার ৭টি ওয়ানডে সিরিজ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে নিউজিল্যান্ডের পাঁচ সিরিজের বিপরীতে ২টি সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে কিউইরা, চারবার হোয়াইটওয়াশ করেছে টাইগারদের। আর বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডকে বাংলা ওয়াশ করেছে দুইবার। কিন্তু দুইবারই ঘরের মাঠে, প্রথমবার ২০১০ সালে আর দ্বিতীয়বার তিন বছর পর, ২০১৩ সালে।

বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড ওয়ানডে সিরিজ:

নং

সিরিজ

সাল

ম্যাচ সংখ্যা

ফলাফল

০১

বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড

২০০৪-০৫

০-৩ (নিউজিল্যান্ড)

০২

নিউজিল্যান্ড বনাম বাংলাদেশ

২০০৭-০৮

৩-০ (নিউজিল্যান্ড)

০৩

বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড

২০০৮-০৯

২-১ (নিউজিল্যান্ড)

০৪

নিউজিল্যান্ড বনাম বাংলাদেশ

২০০৯-১০

৩-০ (নিউজিল্যান্ড)

০৫

বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড

২০১০-১১

৪-০ (বাংলাদেশ)

০৬

বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ড

২০১৩-১৪

৩-০ (বাংলাদেশ)

০৭

নিউজিল্যান্ড বনাম বাংলাদেশ

২০১৬-১৭

৩-০ (নিউজিল্যান্ড)

 

মোট সিরিজ ৭টি

বাংলাদেশ: জয় ২        পরাজয়: ৫ ড্র: ০

নিউজিল্যান্ড: জয় ৫      পরাজয়: ২  ড্র: ০

জেতা সিরিজগুলোতে ব্যাট বল দুই বিভাগেই জ্বলে উঠেছিলন সাকিব আল হাসান। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশী ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সেরা তিনি। ২১ ম্যাচে তাঁর রান ৫৭৫। দুই দলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় সাকিবের অবস্থান দুই নম্বরে। সাকিবের ছয় সেঞ্চুরি দুই আবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে।

দুই দলের দ্বিপাক্ষিক ওয়ানডে সিরিজে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারীর তালিকার শীর্ষে আছেন সাকিব। তিনি কিউইদের বিপক্ষে ২১ ম্যাচে নিয়েছেন ৩৫ উইকেট। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে প্রথম জয় পেতে সাকিবকে খুব দরকার ছিল মাশরাফির।

কিন্তু বাঁহাতের আঙুলে ইনজুরির কারণে ওয়ানডে সিরিজ থেকে ছিটকে গেছেন তিনি। টাইগারভক্তদের মূল ভরসা দলের সিনিয়র ক্রিকেটাররা। বিপিএল থেকে দারুণ ফর্ম নিয়ে গেছেন তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তার প্রমাণ করতেই প্রস্তুতি ম্যাচে রান করেছেন মুশফিক ও রিয়াদ।

বল হাতে ভালো করার ইঙ্গিত দিয়েছেন রুবেল হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজরা। এক পাণ্ডব ইনজুরিতে, বাকি চার পাণ্ডবের সঙ্গে তরুণ ক্রিকেটার সৌম্য সরকার, লিটন কুমার দাস, সাব্বির রহমানরা জ্বলে উঠতেই প্রথমবারের মতো নিউজিল্যান্ডের মাটিতে সিরিজ জয়ের উৎসব করতে পারে বাংলাদেশ। তাই ক্রিকেট পাগল বাঙালি বলতেই পারে, পরিসংখ্যান যাই বলুক, হৃদয়ের কথা বলিতে এবং ভাবিতে ব্যাকুল।

বাংলা ইনসাইডার/আরইউ/এআরএন