ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

এখন পর্যন্ত এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে নাটকীয় ম্যাচ!

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ জুন ২০১৯ বুধবার, ১১:৩৮ পিএম
এখন পর্যন্ত এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে নাটকীয় ম্যাচ!

‘আনপ্রেডিক্টেবল’ তকমাটা তো আর নামের পাশে এমনি এমনি জুড়ে বসেনি।কখন কি করে দলটা বোঝা দায়। যেমনটা বলা গেল না টনটনে আজকের (বুধবার) ম্যাচটির শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত।

এবারের বিশ্বকাপের এখন পর্যন্ত সবচেয়ে নাটকীয় ম্যাচটিই উপহার দিল আজ অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান। যে নাটকের পুরো চিত্রনাট্যই ঘুরপাক খেলো পাকিস্তানের হাত ধরে। ম্যাচে উত্থান-পতন আর টানটান উত্তেজনা, সব কিছুই ঘটলো আসলে পাকিস্তানের আনপ্রেডিক্টেবল চরিত্রের কারণে।

নাটকীয়তায় ঠাসা ম্যাচটি শেষও হলো নাটকীয়ভাবে।শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে ননস্ট্রাইক এন্ডে সরফরাজ আহমেদ যেভাবে রানআউট হলেন, সেটাকে নাটকই বলা যায়। শেষ পর‌্যন্ত অস্ট্রেলিয়া ম্যাচটি জিতেছে ৪১ রানে।

শুরুতে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানদের আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে মনে হচ্ছিল পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের দুমড়ে মুচড়ে দেবেন আজ। সেখান থেকে এক ওভার বাকি থাকতেই অজিদের অলআউট করে দেয় সরফরাজের দল। পরে রান তাড়ায়ও একটা সময় মনে হলো, সহজেই জেতার পথে হাঁটতে যাচ্ছে পাকিস্তান। কিন্তু মনে হলে তো হবে না, দলটা যে পাকিস্তান! কখন কি করবে বলা মুশকিল।

লক্ষ্য ৩০৮ রানের। ৫৬ রানের মধ্যে ২ উইকেট হারানোর পর তৃতীয় উইকেটে ৮০ রানের জুটি গড়েছিলেন মোহাম্মদ হাফিজ আর ইমাম উল হক। একটা সময় পাকিস্তানের রান ছিল ২ উইকেটে ১৩৬। মোটে তখন ২৫ ওভার খেলা হয়েছে। সেখান থেকে আর ২৬ রান তুলতে ৪টি উইকেট হারিয়ে বসে আনপ্রেডিক্টেবলরা।

শেষের দিকে অষ্টম উইকেটে ৬৩ বলে ৬৪ রানের অবিশ্বাস্য এক জুটি গড়ে ম্যাচ অনেকটাই হাতের কাছে নিয়ে আসেন সরফরাজ আর ওয়াহাব রিয়াজ। মনে হচ্ছিল, পাকিস্তানই জিতে যাবে শেষ পর্যন্ত।

শেষ উইকেটটিও পড়লো নাটকীয়ভাবে। রিচার্ডসনের বলটি শর্ট এক্সট্রা কাভারে খেলেছিলেন শাহীন শাহ আফ্রিদি। ননস্ট্রাইক এন্ড থেকে সরফরাজ রানের জন্য দৌড়ও দেননি। একটু বেরিয়েছিলেন। চোখের পলকে স্ট্যাম্প ভেঙে দেন ম্যাক্সওয়েল। পাকিস্তান অধিনায়ক আউট হন ৪০ রানে।


বাংলা ইনসাইডার/এমআরএইচ