ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

দু-দলের সামনে এখন একটাই প্রতিপক্ষ

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ জুন ২০১৯ বৃহস্পতিবার, ০৮:৫৭ এএম
দু-দলের সামনে এখন একটাই প্রতিপক্ষ

এবারের বিশ্বকাপ ক্রিকেট যেন পরিনত হয়েছে ‌‌‘বৃষ্টি কাপে’। এরইমধ্যে বৃষ্টির কারণে ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার নতুন রেকর্ড হয়েছে। ইতিপুর্বে বিশ্বকাপ ক্রিকেটে সর্বোচ্চ দুইবার ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার রেকর্ড ছিল। দ্বাদশ আসরে সেটি ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়ে দিল বৃষ্টি। এখন পর্যন্ত অনুষ্ঠিত ১৬টি ম্যাচের মধ্যে তিনটি ম্যাচই বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়েছে।

ট্রেন্ট ব্রিজে বিশ্বকাপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচ খেলতে নামছে টিম ইন্ডিয়া। দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসী ভারতীয় দলের সামনে এবার নিউজিল্যান্ড। যারা বিশ্বকাপে পর পর তিন ম্যাচ জিতে দুরন্ত ছন্দে রয়েছে। বিশ্বকাপের আগে ওয়ার্ম-আপ ম্যাচে এই কিউইদের কাছেই হারতে হয়েছিল বিরাটবাহিনীকে। বিশ্বকাপে সেই হাইভোল্টেজ ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেস্তে যেতে পারে, এমনই পূর্বাভাস স্থানীয় আবহাওয়া দফতরের। সঙ্গে অবশ্য আশার বাণীও রয়েছে, লাঞ্চ পর্যন্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা।

মঙ্গলবার বৃষ্টির কারণেই ভারতীয় দলের অনুশীলন স্থগিত থাকে। জিমে প্রস্তুতি সারেন ক্রিকেটারেরা। কোহলি, কুলদীপ, রাহুলদের সঙ্গে ছবি পোস্ট করে জাসপ্রীত বুমরা টুইট করেছেন, ‘পরের ম্যাচের আগে সতীর্থদের সঙ্গে দারুণ জিম সেশন হল আমাদের।’

তবে টানা তিন ম্যাচে জয়ী নিউজ়িল্যান্ড শিবির নিজেদের তৈরি রাখছে বৃহস্পতিবারের ম্যাচের জন্য। দলের এক নম্বর বোলার ট্রেন্ট বোল্ট জানিয়ে দিয়েছেন, বৃষ্টি যদি থেমে গিয়ে ম্যাচ হয়, তা হলে তিনি ত্রাস হয়ে উঠবেন ভারতীয় শিবিরের কাছে। এর আগে প্রস্তুতি ম্যাচেই বোল্টের সুইংয়ের কাছে হার মানতে হয়েছিল ভারতীয় ব্যাটিংকে। তিনি বলেছেন, ‘উইকেট যদি আর্দ্র থাকে তা হলে আমি সুইংয়ে পরাস্ত করে দেব ভারতীয় ব্যাটিংকে। তার জন্য নিজেকে তৈরি রাখছি।’ এক ধাপ এগিয়ে বোলার লকি ফার্গুসন জানিয়েছেন, ‘ভারতের বিরুদ্ধে তাদের সেরা অস্ত্র হতে চলেছে ফাস্ট বোলিং।’

তিনি বলেছেন, ‘ভারতের উপরের সারির ব্যাটিংটা খুব শক্তিশালী এবং ওরা অনেক বেশি সময় নিয়ে উইকেটে থেকে বোলারদের ক্লান্ত করে দেওয়ার চেষ্টা করে। আমরা তা হতে দেব না।’ আরও বলেছেন, ‘শুরুর দশ ওভারের মধ্যে ভারতের উপরের সারির ব্যাটসম্যানদের যে কোনও মূল্যে ফিরিয়ে দিতে হবে। আমরা তার জন্য প্রস্তুত থাকছি। ওদের উপর শুরু থেকে চাপ তৈরি করতে হবে। আঙুলে চোট পেয়ে শিখর বাইরে চলে যাওয়াতে আমরা বাড়তি সুবিধা পাব। সেটা কাজে লাগাতে হবে।’

এখন দেখার বিষয় আজ কারা জয় পায়। এখন পর্যন্ত আসরের শেষ দুই দল হিসেবে অপরাজিত আছে ভারত-নিউজিল্যান্ড। অপরাজয়ের রেকর্ডটা অক্ষুণ্ণ রেখে জয় পাবে কি বৃষ্টি? না মাঠে বল গড়ানোর সুযোগ পাবে? 

বাংলা ইনসাইডার/এসএম