ঢাকা, শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
Bagan Bangla Insider

ফাইনালের বিতর্কিত থ্রো নিয়ে মুখ খুলল আইসিসি

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৬ জুলাই ২০১৯ মঙ্গলবার, ০৮:৩০ পিএম
ফাইনালের বিতর্কিত থ্রো নিয়ে মুখ খুলল আইসিসি

নাটকীয় এক ফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারাল ইংল্যান্ড। প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পেল ক্রিকেটের জনক এই দলটি।

শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনাল ম্যাচে প্রথমে টাই হয় মূল ম্যাচ। ফলে খেলা গড়ায় সুপার ওভারে, সেখানেও দুই দলই করে সমান ১৫ রান। শেষ পর্যন্ত বাউন্ডারি বেশি হাঁকানোয় বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয় ইংল্যান্ড। তবে এই ম্যাচ নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে একটি বিতর্কের।

ইংল্যান্ডের ইনিংসের শেষ ৩ বলে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ৯ রান। তখন শেষ ওভারে ট্রেন্ট বোল্টের করা চতুর্থ বলটি ডিপ মিড উইকেটে ঠেলে দিয়ে এক রান নেন বাঁহাতি ইংলিশ ব্যাটসম্যান বেন স্টোকস।

ব্যবধান কমানোর জন্য ওই বলে দুই রান নিতে দৌড় দিলেন স্টোকস আর আদিল রশিদ। তখন একেবারে বাউন্ডারি লাইনে ফিল্ডিং করছিলেন মার্টিন পাগটিল। স্টোকসকে রান আউট করার জন্য তিনি যে থ্রো করেন, সেটি স্ট্যাম্পেও আঘাত হানলো না, কোনো ফিল্ডারের হাতেও গেল না। অন্যদিকে রান আউট থেকে বাঁচতে স্টোকস ঝাপিয়ে পড়লে বলটি গিয়ে তার ব্যাটে লাগে। শুধু তো ব্যাটে নয়, বলটি বাউন্ডারি পাড় হয়ে যায়। এক্সট্রা বাউন্ডারি। সঙ্গে দুই ব্যাটসম্যানের দু’বার জায়গা বদল। ফলে এই বলে ৬ রান ঘোষণা করেন অন ফিল্ড আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা।

ম্যাচের পর ওই ঘটনা প্রসঙ্গে একটি টুইট করেন পাঁচবারের বর্ষসেরা আম্পায়ার সায়মন টফেল। স্টোকসের দ্বিতীয় রান নেওয়ার আগেই গাপটিলের থ্রো করে ফেলায় ওই বলে ইংল্যান্ডের পাওয়ার কথা ছিলো পাঁচ রান, স্টোকসেরও তাহলে থাকতে হতো ননস্ট্রাইকে।

টফেলের এই মন্তব্যের পর থেকেই ওই ঘটনা নিয়ে শুরু হয়েছে নানা আলোচনা-সমালোচনায়। এবার এ নিয়ে মুখ খুলল ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। ওই ঘটনা নিয়ে আইসিসির এক মুখপাত্র বলেন, ‘আম্পায়াররা মাঠে নিয়ম সম্পর্কে তাঁদের ব্যাখ্যা অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেন এবং আমরা নীতিগত ভাবেই কোনও সিদ্ধান্ত নিয়ে মন্তব্য করতে পারি না।’


বাংলা ইনসাইডার/এমআরএইচ