ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

সেমির টিকিট পাচ্ছে না টাইগার সমর্থকরা

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ জুন ২০১৭ মঙ্গলবার, ১০:৩০ পিএম
সেমির টিকিট পাচ্ছে না টাইগার সমর্থকরা

বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান এবং ইংল্যান্ড। সেমিফাইনালের চূড়ান্ত হওয়া চার দল। চার দেশের সমর্থকরা টিকিট কিনতে রীতিমতো লড়াই করছেন। সেই লড়াইয়ে আপাতত জয়ী ভারতীয়রা। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শেষ তিন ম্যাচের সব টিকেট নিজেদের দখলে নিয়েছেন ভারতের সমর্থকরা। যার ফলে অনেক খুঁজেও সেমিফাইনালের টিকেট পাচ্ছেন না বাংলাদেশের সমর্থকরা।

এজবাস্টনে ১৫ জুনের সেমিফাইনালে বাংলাদেশের  প্রতিপক্ষ ভারত। ১৪ জুন আরেকটি ম্যাচ, কার্ডিফে। সেখানে ইংল্যান্ড খেলবে পাকিস্তানের বিপক্ষে। ভারতীয়রা দুই ম্যাচের টিকিটেই ভাগ বসিয়েছেন। কার্ডিফের ৩৭ শতাংশ এবং এজবাস্টনের ৩৮ শতাংশ টিকিট কিনে নিয়েছেন তারা।

দলকে উজ্জীবিত করে তুলতে মাঠে সরব উপস্থিতি থাকে সমর্থকদের। ভারতীয়রা এক্ষেত্রে একটু বেশিই এগিয়ে! কারণ দল সেমিফাইনালে ওঠার আগেই সেমিফাইনালের সব টিকিট কিনে নিয়েছিল ভারতীয় সমর্থকরা!

হয়তো ভারতীয় সমর্থকরা ঝুঁকি নিতে চাননি! কার বিপক্ষে খেলবেন কোহলি-যুবরাজরা? এটা নিশ্চিত হওয়ার আগেই দুটি সেমিফাইনালের টিকিট দখলে নিয়েছে তারা। আর এতে ভালোই বিপাকে পড়েছেন বাংলাদেশ, ইংল্যান্ড ও পাকিস্তানের সমর্থকরা। স্বাগতিক হয়েও মাঠে বসে খেলা দেখতে পারবেন কিনা এমন সংশয় কাজ করছে ইংলিশ সমর্থকদের মধ্যে। আর পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে টাইগারদের সমর্থন জানানো প্রবাসী বাংলাদেশীদের মাঝে দেখা যাচ্ছে টিকিটের জন্য হাহাকার।

এমন পরিস্থিতিতে আইসিসি ভারতীয় সমর্থকদের অনুরোধ জানিয়েছে বাড়তি টিকিট ফেরত দেয়ার জন্য। বাড়তি টিকিট যদি ফেরত আসেও তাহলে আশংকা জাগছে কালোবাজারে টিকিট বিক্রি হওয়ার। ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচে, মূল দামেরও পাঁচ গুণ বেশি দিয়ে খেলা দেখেছেন অনেকে।

মাঠে অতিরিক্ত হইচইয়ের বদনাম আছে ভারতীয়দের। রোববার ভারত-সাউথ আফ্রিকা ম্যাচের পর প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান ফাফ ডু প্লেসিস অভিযোগ করেছিলেন ম্যাচে অতিরিক্ত চিৎকারের কারণে ঠিক মতো যোগাযোগ করতে পারেননি অপর প্রান্তের ব্যাটসম্যান ডেভিড মিলারের সঙ্গে। সেজন্য নাকি রানআউট হয়ে যান মিলার!

এদিকে আইসিসির এক মুখপাত্র মিররকে জানান, ‘সেমিফাইনালের দল নিশ্চিত হওয়ার আগেই শেষ চারের দুটি ম্যাচে সব টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। ভারতীয় সমর্থকরা কার্ডিফের ৩৭ শতাংশ ও এজবাস্টনের ৩৮ শতাংশ টিকিট কিনে নিয়েছেন। অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে নতুন করে টিকিট বিক্রির সুযোগ রাখা হয়েছে। যার যে টিকিট প্রয়োজন হবে না, সেটি তারা বিক্রি করে দেয়ার সুযোগ পাচ্ছেন।


বাংলা ইনসাইডার/ডিআর